টাঙ্গাইলে কালভার্ট ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন তিন উপজেলার মানুষ
প্রকাশ : ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৯:২৬
টাঙ্গাইলে কালভার্ট ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন তিন উপজেলার মানুষ
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

টাঙ্গাইলের বাসাইলে বন্যার পানির প্রবল স্রোতে রাতে একটি কালভার্ট ভেঙে গেছে। এতে করে তিন উপজেলার প্রায় ৩০ গ্রামের মানুষ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।


বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) সকালে পৌরএলাকার দক্ষিণপাড়া গারামাড়া বিল সংলগ্ন বাসাইল-নাটিয়াপাড়া সড়কে অবস্থিত কালভার্ট ভেঙে যায়।


সম্প্রতি উপজেলার সর্বত্রই বন্যার পানি পুনঃরায় ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। পানি বৃদ্ধির প্রভাবে বিভিন্ন এলাকার পা-পথসহ পাকা সড়ক ডুবে যাচ্ছে। তাছাড়া এসব পা-পথে কোথাও কোথাও পানির স্রোতে রাতে বাঁশের তৈরী সাঁকোগুলোও ভেসে যাচ্ছে। গারামাড়া বিলে পানি বৃদ্ধির কারনে বাসাইল-নাটিয়াপাড়া সড়কের ওই কালভার্টের নিচ দিয়ে প্রবল স্রোতে রাতের সৃষ্টি হয় এবং বৃহস্পতিবার সকালে এটি হঠাৎ করে ভেঙে যায়।


স্থানীয়রা জানান, এই সড়ক দিয়ে বাসাইল উপজেলার আদাজান, কাঞ্চনপুর, বিলপাড়া, বালিনা, ভোরপাড়া, হাবলা, মির্জাপুর উপজেলার কর্নী, ফতেপুর, পাটখাগুড়ী, মহেড়া, ভাতকুড়া, আদাবাড়ি এবং দেলদুয়ার উপজেলার নাটিয়াপাড়া, বর্নীসহ প্রায় ৩০টি গ্রামের মানুষ যাতায়াত করতো। কালভার্টটি ভেঙে যাওয়ার কারণে এসব এলাকার মানুষের বাসাইল সদরের যাতায়াত বন্ধ হয়ে গেলো।


স্থানীয়রা আরো জানান, এই রাস্তায় বাসাইলের সকল বড় ব্যবসায়ীরা ঢাকা থেকে মালামাল আনা-নেয়া করতো। কালভার্টটি ভেঙ্গে যাওয়াতে আমাদের যোগাযোগ ব্যবস্থা একেবারেই বন্ধ হয়ে গেলো। এবং মালামাল আনার খরচ বেড়ে যাবে। আমরা অতিদ্রæত এখানে একটি ব্রীজ নির্মানের দাবী করছি।


এ ব্যাপারে বাসাইল উপজেলা প্রকৌশলী রোজদিদ আহমেদ বলেন, ১৯৯৫ সালে ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে সাড়ে চার মিটার কালভার্টটি নির্মান করা হয়েছিলো। পূর্বেই এই কালভার্টটি ঝুকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। পানি বৃদ্ধির ফলে প্রবল স্রোতে রাতে এবার এটি ভেঙ্গে গেছে। সরজমিনে আমরা এলাকা পরিদর্শন করেছি। এখানে ২০ মিটার দৈর্ঘ্যরে একটি সেতু নির্মানের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে।


বিবার্তা/তোফাজ্জল/এসএ

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com