আশুলিয়ায় প্রকাশ্যে তাণ্ডব চালিয়ে ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট!
প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৪৩
আশুলিয়ায় প্রকাশ্যে তাণ্ডব চালিয়ে ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট!
সাভার প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

সাভারের আশুলিয়ায় একটি শ্রমিক কলোনীতে প্রকাশ্যে কয়েক ঘন্টাব্যাপি তাণ্ডব চালিয়ে প্রায় নগদ চার লাখ টাকাসহ ১০ লাখ টাকার মালামাল লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। সন্ত্রাসীদের ভয়ে গার্মেন্টস শ্রমিকরা আতঙ্কে রাত কাটিয়েছেন।


বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত আশুলিয়া ইউনিয়নের টংগাবাড়ি এলাকায় মৃত ওসমান হাজীর শ্রমিক কলোনীতে এ ভয়াভহ হামলার ঘটনা ঘটে। শ্রমিক কলোনীতে হামলার ঘটনায় খবর পেয়ে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।


এলাকাবাসী জানায়, আশুলিয়ার টংগাবাড়ি এলাকার মৃত ওসমান হাজীর ছেলে ফারমান হোসেন পৈতিক সুত্রে নিজের ১৩ শতাংশ জমিতে প্রায় চল্লিশটি রুম ভাড়া দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন। পরে সেই ১৩ শতাংশ জমি নিজেদের বলে দাবি করে আসছিলেন ওই এলাকার রশিদ ব্যাপারী। গতকাল সকালে রশিদ ব্যাপারী ৪০ থেকে ৫০ সদস্যের একদল ভাড়াটে সন্ত্রাসী নিয়ে প্রকাশ্যে ওই শ্রমিক কলোনীতে অস্ত্রশ্রস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রবেশ করে তিন রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে সবার মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করে শ্রমিক কলোনীর প্রায় চল্লিশটি রুমে বিকেল পর্যন্ত ব্যাপক ভাঙচুর করে। একটি দোকান থেকে নগদ চার লাখ টাকাসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুটপাট করে। এসময় ১০ জনকে পিটিয়ে আহত করে তারা। পরে একটি ঘরের দেয়াল ভেঙ্গে ফেলে নির্বিঘ্নে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।


সন্ত্রাসীদের তান্ডবে ওই শ্রমিক কলোনীর গার্মেন্টস শ্রমিকসহ এলাকাবাসী আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। পরে খবর পেয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অভিযুক্ত সন্ত্রাসী রশিদ ব্যপারী, রাশেদ ব্যাপারী ও কাওসার ব্যাপারীসহ তিনজনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় আজ ভোর রাতে সন্ত্রাসী রশিদ ব্যাপারীকে প্রধান আসামী করে অজ্ঞাত আরো চল্লিশ জনের নাম উল্লেখ করে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন জমির মালিক ফারমান
হোসেন।


এ বিষয়ে ওই ১৩ শতাংশ জমির মালিক ফারমান হোসেন দাবি করে বলেন, ওই এলাকার কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা সাইদুর রহমান সম্রাট, সাবেক আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন মাদবর ও পিন্টু মোল্ল্যার নির্দেশে সন্ত্রাসী রশিদ ব্যাপারী ওই শ্রমিক কলোনীতে হামলা চালিয়ে লুটপাট করেছেন। এর আগেও রশিদ ব্যাপারী ওই ১৩ শতাংশ জমি তার নিজের দাবি করে আদালতে মামলা দায়ের করলে আদালত আমাদের পক্ষে রায় দেয়।


তিনি আরো বলেন ওই শ্রমিক কলোনীতে হামলার আগে সেখানে হামলার বিষয়ে বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা সাইদুর রহমান সম্রাট, সাবেক আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন মাদবর ও পিন্টু মোল্ল্যাসহ আরো অনেকে।


আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন মাদবর ক্ষতিগ্রস্ত ওই শ্রমিক কলোনী পরিদর্শন করে সন্ত্রাসীদের কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন।


এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা সাইদুর রহমান সম্রাটের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।


এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার ওসি (তদন্ত) জিয়াউল ইসলামের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকেও পাওয়া যায়নি।


বিবার্তা/শরিফুল/এনকে

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com