চাকরি দেয়ার নামে বড়াইগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যানের অর্থ আত্মসাত!
প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০২০, ১২:১৮
চাকরি দেয়ার নামে বড়াইগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যানের অর্থ আত্মসাত!
নাটোর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ বন শিল্প উন্নয়ন করপোরেশন এর ‘সহকারী ভান্ডার রক্ষক’ পদে সরকারী চাকরী দেয়ার নামে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং বামদল থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করা চিহৃত অনুপ্রবেশকারী, জেলা আওয়ামী লীগের বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে ৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে।


সোমবার (১৩ জুলাই) সকাল ৮টা ১৭ মিনিটে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসে এ অভিযোগ করেছেন প্রতারণার শিকার নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া পৌর শহরের মৃধাপাড়া এলাকার বাসিন্দা মোঃ আমজাদ আলীর ছেলে আমিরুল ইসলাম (বাবু)।


সেই স্ট্যাটাসটি পাঠকদের কাছে হুবহু তুলে ধরা হলো-


‘আমার নামঃ মোঃ আমিরুল ইসলাম (বাবু), পিতার নামঃ মোঃ আমজাদ আলী। বনপাড়া (মৃধাপাড়া),বরাইগ্রাম, নাটোরের বাসিন্দা। আমার জন্ম মধ্যবিত্ত পরিবারে। ২০১০ সালে আমি পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ভর্তি হই। আমার পড়াশোনা চলতে থাকে। এমত অবস্থায় ২০১২ সালের শুরুতে ডঃ মোঃসিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী। বতমানে বনপাড়া উপজেলার চেয়ারম্যান। আমাকে ডেকে উনার হাসপাতালে চাকুরী দেয়। তারপর সরকারী চাকরির জন্য আমাকে বলে। আমি সেই মোতাবেক তাকে টাকা দেই ৫/৯/২০১৩ তে ৩,০০,০০০/- টাকা। তারপর ৯/৯/২০১৩ তে ১,৫০,০০০/- টাকা। সব শেসে তার নিজ একাউন্ট উত্তরা ব্যাংকে ১৫/৯/২০১৩ তে নগদ ৫০,০০০/- টাকা জমা দেয়া হয়। বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশন এ রিটেন পরীক্ষায় আমি উত্তীর্ণ হই। ভাইবা পরীক্ষার আগে এই টাকা দেওয়া হয়। টাকা দেয়ার পরেও আমার চাকরী হলো না।


তার পর ডঃ সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী কে টাকার কথা বললে সে বলে আমি টাকা উঠাবো তার পর টাকা ফেরত দেবো। এই টাকা গুলো অনেক জায়গা থেকে কষ্ট করে সংগ্রহ করা হয়। বিভিন্ন সমিতি, ব্যাংক, বৌ এর গহনা বেচে, জমি কটে রেখে। তার পরেও সে টাকা ফেরত দেয় না। আমার বাবা দুই বার স্টোক করে। তার কাছে আমার মহল্লার মানি লোকজন যায় এবং তার সাথে কথা বলে যে আপনি তো অনেক টাকা যাকাত দেন, সেই যাকাত এর টাকা থেকে আপাদত ৫০,০০০/- হাজার টাকা দিয়ে পরিবার টাকে বাচান।তার পরেও সে টাকা দেয় না।


অভাবের কারণে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর এর ১ তারিখ এ আমি ঢাকা লিবাস টেক্সটাইল নামে এক গামেন্স এ চাকরি নেই। আজ আট বছর অতিক্রম হলো আমার টাকা সে ফেরত দেয় নি। আমি বাংলাদেশ একজন সাধারন নাগরিক। তাই বলছি আজ আমার পরিবার ধ্বংস করেছে একমাত্র উপজেলা চেয়ারম্যান ডঃ মো সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী। আমার পরিবারকে আপনারা বাচান।’


ফেসবুকে প্রকাশিত স্ট্যাটাস এর লিংক- https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=310017783716997&id=100041263321151


বিবার্তা/সাকলাইন/এনকে

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com