দিনাজপুরে কিছুতেই থামছে না অবৈধভাবে বালু উত্তোলন
প্রকাশ : ২৯ মে ২০২০, ১০:৪০
দিনাজপুরে কিছুতেই থামছে না অবৈধভাবে বালু উত্তোলন
দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

দিনাজপুরে কিছুতেই বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন। কোনো প্রকার নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিনের সাহায্যে, কখনো নদীর পাড় কেটে, আবার কখনো আবাদি জমি থেকে অবাধে বালু উত্তোলন করছে প্রভাবশালী এক শ্রেণীর স্বার্থান্বেষী মহল। এতে নদী তার গতিপথ হারাচ্ছে। ঘটছে মারাত্মক পরিবেশ বিপর্যয়।


অন্যদিকে বালু বহনে নিয়োজিত ১০ চাকার ভারি ট্রাক এবং ট্রাক্টরগুলো প্রতিনিয়ত শব্দ ও পরিবেশ দূষণ করছে। ভেঙ্গে ফেলছে রাস্তা-ঘাট।দিনাজপুরের বীরগঞ্জ ও খানসামাসহ বিভিন্ন উপজেলাতে বেপরোয়াভাবে চলাচল করছে বালু বহনে নিয়োজিত ভারি ট্রাক এবং ট্রাক্টর।


বালু নিয়ে ট্রাক, ট্রাক্টর বেপরোয়াভাবে চলাচল করায় চরম ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন সাধারণ মানুুষ। এছাড়াও মহা-সড়কে চলাচলের জন্য অনুমোদিত ভারি ট্রাকগুলো গ্রামীণ রাস্তা দিয়ে চলাচল করায় এসব রাস্তা ভেঙ্গে দেবে যাচ্ছে। এমনি অভিযোগ করেছেন খানসামা উপজেলা চেয়ারমান মো হাতেম।


তিনি বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার আগেই এলাকায় বালুবাহী ভারি যান চলাচল যাতে না করতে পারে সেজন্য নিষেধাজ্ঞা চেয়ে বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দিয়েছি। এ নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের সভার আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, যাতে বালুবাহী এই ১০ চাকার ভারি চলাচল যাতে না করতে পারে। কিন্তু তারপরও দিব্যি বালু বহনে এই ১০ চাকার ভারি চলাচল করছে।


বীরগঞ্জ উপহেলার সহকারি ভুমি কর্মকর্তা মো রমিজ আলম সরজমিনে ঝাড়বাড়ি এলাকায় পরিদর্শন করে এই ভয়াবহ এই করোনা পরিস্থিতির লকডাউন মূহুর্তে অবৈধ পদ্ধতিকে বালু উত্তোলন ও বহনে বিধি নিষেধ জারী করেছেন। কিন্তু তা মানছেন না বালু ইজারাদাররা।


পূণর্ভবা, আত্রাই, ধলেশ্বর,গর্ভেশ্বর, ইছামতি, ছোট যমুনা, তুলাই, কাঁকরা, ঢেপাসহ দিনাজপুরের বিভিন্ন নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিনের অবাধে বালু উত্তোলন করছে একটি মহল। জেলার বেশ কয়েকটি স্থানে নদী থেকে এভাবেই মেশিনের মাধ্যমে অবাধে চলছে বালু উত্তোলনের মহাযজ্ঞ। শুধু নদী থেকেই নয়; কোথাও নদীর পাড় কেটে, কোথাও নাম মাত্র টাকা দিয়ে, আবার কোথাও জোড়পূর্বক অন্যের ফসলি জমি কেটে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।


নদী থেকে মেশিনের সাহায্যে বালু তোলা, নদীর পাড় কাটা কিংবা অন্যের জমি থেকে বালু উত্তোলনের কোন সুযোগ নেই বলে জানাচ্ছে প্রশাসন। এ বিষয়ে প্রযোজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন,দিনাজপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা এসএইচএম মাগ্ফুরুল হাসান আব্বাসী।


বিবার্তা/শাহী/এসএ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com