ময়মনসিংহ থেকে সব পথে বাস বন্ধ
প্রকাশ : ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:২৮
ময়মনসিংহ থেকে সব পথে বাস বন্ধ
ময়মনসিংহ প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ময়মনসিংহ থেকে বিভিন্ন পথে বিআরটিসির বাস চলাচল নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে সোমবার (৯ ডিসেম্বর) দুই পক্ষের হাতাহাতিতে তিনজন শ্রমিক আহত হয়েছেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে ও বিআরটিসি বাস বন্ধের দাবিতে ময়মনসিংহ থেকে সব পথে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন শ্রমিকনেতারা।


বাস বন্ধ থাকায় ময়মনসিংহের বিভিন্ন উপজেলার পাশাপাশি ঢাকাসহ সব জেলাগামী যাত্রীরা ভোগান্তিতে পড়েছে। তারা বিকল্প বিভিন্ন গণপরিবহনে বাড়তি ভাড়া দিয়ে এখন গন্তব্যে যেত বাধ্য হচ্ছে।


ময়মনসিংহ ট্রাফিক বিভাগ ও পরিবহনশ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত কয়েক মাসে ময়মনসিংহের বিভিন্ন উপজেলা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোতে ময়মনসিংহ নগর থেকে বিআরটিসির বাস সার্ভিস চালু হয়েছে। ময়মনসিংহ থেকে মুক্তাগাছা উপজেলা পর্যন্ত ১০টি, ময়মনসিংহ থেকে কিশোরগঞ্জ পর্যন্ত ৮টি এবং ময়মনসিংহ থেকে ফুলপুর পর্যন্ত ১০টি বিআরটিসি বাস নতুন যুক্ত হয়েছে। এসব বাস সরকারের কাছ থেকে ইজারার মাধ্যমে সড়কে চলাচল করছিল।


সর্বশেষ গত রবিবার (৮ ডিসেম্বর) ময়মনসিংহ থেকে নেত্রকোনা সড়কে আরো ১০টি বিআরটিসি বাস চালু হয়। কিন্তু পরিবহনশ্রমিকদের বাধায় চার ঘণ্টার মাথায় ওই বাস সার্ভিস বন্ধ হয়ে যায়। শ্রমিকদের দাবি, বিআরটিসির বাস নিয়ম না মেনে চলছে। এতে সাধারণ গণপরিবহনে যাত্রী কমেছে। পাশাপাশি বিআরটিসির বাস যত্রতত্র পার্কিং করায় যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।


বিআরটিসির বাসগুলো ময়মনসিংহ নগরের পাটগুদাম আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল হয়ে চলাচল করে। সোমবার সকালে ওই এলাকায় গিয়ে বিআরটিসির বাস চলাচলে বাধা দেয়ার চেষ্টা করেন সাধারণ গণপরিবহনের শ্রমিকেরা। এ নিয়ে সেখানে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে পাটগুদাম টার্মিনাল এলাকায় বিআরটিসি বাসের শ্রমিকেরা তিনটি বাস রেখে চলে যান। এতে ওই সড়ক দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ নিয়ে দ্বিতীয় দফায় উত্তেজনার সময় হাতাহাতিতে তিনজন শ্রমিক আহত হন।


সাধারণ গণপরিবহনের শ্রমিকদের দাবি, বিআরটিসির বাসের শ্রমিকদের মারধরে ওই তিনজন শ্রমিক আহত হয়েছেন। এ অবস্থায় বেলা তিনটা থেকে ময়মনসিংহ জেলা মোটর শ্রমিক সমিতির নেতারা ময়মনসিংহ থেকে ঢাকাসহ সব জেলায় বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেন।


সাধারণ শ্রমিকেরা বলছেন, ময়মনসিংহের বিভিন্ন সড়কে বিআরটিসির বাস চলাচল শুরুর সময় বলা হয়েছিল, সাধারণ পরিবহনের শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা করে বিআরটিসির বাসগুলো চলাচল করবে। কিন্তু চলাচল শুরু করার পর সাধারণ পরিবহনের শ্রমিকদের সঙ্গে কোনো ধরনের আলোচনা করছেন না বিআরটিসি বাসের শ্রমিকেরা। প্রায় সব সড়কেই অধিক সংখ্যক বিআরটিসি বাস চলাচল শুরু করেছে। এতে সাধারণ গণপরিবহনের ব্যবসা ক্ষতির মুখে পড়েছে।


ময়মনসিংহ জেলা মোটর শ্রমিক সমিতির সভাপতি আবদুস ছালাম বলেন, বিআরটিসির বাস চলাচলের একটা নিয়ম আছে। সেটা হচ্ছে, বাসগুলো বিআরটিসির ডিপো থেকে ছেড়ে গিয়ে অন্য কোনো ডিপোতে যাত্রা শেষ করবে। কিন্তু এখানে সেই নিয়ম মানা হচ্ছে না। বিআরটিসির বাসগুলো সাধারণ গণপরিবহনের টার্মিনালের সামনে থেকেই যাত্রী নিচ্ছে। এতে সাধারণ শ্রমিকেরা ক্ষিপ্ত হয়েছেন।


শ্রমিকনেতাদের ঘোষণার পর সোমবার দুপুরের পর থেকে বিভিন্ন পথে বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে বিশেষ করে ময়মনসিংহ থেকে ফুলপুর, হালুয়াঘাট, ঈশ্বরগঞ্জ, নান্দাইলসহ বিভিন্ন উপজেলা ও পার্শ্ববর্তী শেরপুর, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জ এবং ঢাকাগামী যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়ে। তারা পাটগুদাম আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল ও মাসকান্দা টার্মিনালে গিয়ে বাস না পেয়ে সিএনজিচালিত অটোরিকশা আর ইজিবাইকে করে গন্তব্যে গেছে।


এদিকে নেত্রকোনা-ময়মনসিংহ পথে চালুর মাত্র চার ঘণ্টার মাথায় বিআরটিসির বাস বন্ধের প্রতিবাদে সোমবার মানববন্ধন করেছেন বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার মানুষ। নেত্রকোনা জেলা শহরের মোক্তারপাড়া এলাকায় এই কর্মসূচি থেকে বক্তারা বলেছেন, এই পথে দ্রুত বিআরটিসির বাস চালু না হলে মালিক সমিতির কোনো বাসও চলতে দেয়া হবে না।


ময়মনসিংহ ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (প্রশাসন) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, পরিবহন শ্রমিকদের সঙ্গে এ ব্যাপারে আলোচনা করে সমাধানের চেষ্টা করা হবে।


বিবার্তা/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com