কিশোর গ্যাং তৈরির স্কুল!
প্রকাশ : ৩১ আগস্ট ২০১৯, ১৫:৫৩
কিশোর গ্যাং তৈরির স্কুল!
বরগুনা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বরগুনা জিলা স্কুল কিশোর গ্যাং ও মাদকাসক্ত তৈরির স্কুলে পরিণত হয়েছে। আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার আসামি ও জড়িত সন্দেহে গ্রেফতারকৃতদের দুই তৃতীয়াংশই বরগুনা জিলা স্কুলের ছাত্র। এছাড়াও বর্তমানে স্কুলটিতে অধ্যয়নরতও রয়েছেন দু’জন।


জিলা স্কুলের পেছনে দিকে ছাত্রদের থাকার জন্য একটি হোস্টেল আছে। তবে হোস্টেলে শিক্ষক বা ছাত্রদের কেউই থাকেননা। এর ভেতরটা একপ্রকার ‘ভুতের বাড়ি’র মত অবস্থা। এই হোস্টেলের বিভিন্ন কক্ষে সেবন করা হয় ইয়াবা।


হোস্টেলটির ঠিক পশ্চিম দিকে বিদ্যালয়ের পেছনে একটি সরু গলি রয়েছে। ওই পথ ধরে সামনে এগুলে দেখা যায় তালাবদ্ধ একটি দরজা। দরজাটি দূর থেকে তালাবদ্ধ মনে হলেও কাছে অনেক সময় এটি একটি কাঠি দিয়ে আটকানো থাকে।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জিলা স্কুলের এক ছাত্র জানায়,এই পথ ধরে বড় ভাইয়েরা হোস্টেলে আসেন। আর ছাত্ররাও ক্লাস ফাঁকি দিয়ে অথবা বিরতিতে এসে একসাথে মাদক সেবন করে দীঘির পাড় ঘেঁষে ওই গলিপথ ধরেই বের হয়ে যায়।


স্কুলের দক্ষিণ দিকে একটি পরিত্যক্ত ভবন রয়েছে। ভবনটি একসময় প্রধান শিক্ষকের বাসভবন ছিল। কিন্তু বেশ কয়েকবছর ধরে ভবনটি পরিত্যক্ত। এর ভেতরের কক্ষগুলোতেও ইয়াবা সেবনের উপাদান ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।


স্কুলটির উত্তর প্রান্তে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি পরিত্যক্ত ভবনের কক্ষে নিয়মিত গাজা, ইয়াবা সেবন করা হয়।


স্থানীয়রা লোকজন জানিয়েছেন, এলাকার স্থানীয় বখাটেদের পাশাপাশি বিদ্যালয়ের ভেতরে ছাত্ররাও দিনদিন ইয়াবা আসক্ত হয়ে পড়ছে। শহরের কথিত বড় ভাইয়েরা ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য এদের হাতে ইয়াবা ধরিয়ে দেয়, এখানেই চলে ইয়াবা সেবনের প্রাথমিক কার্যক্রম। এই বড় ভাইয়েরাই ছাত্রদের বিপথগামী করছে।


রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডের পর আলোচিত ইস্যুতে পরিণত হয় বরগুনার কিশোর গ্যাং ও মাদক। বের হয়ে আসে হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশ নেয়া ফেসবুকভিত্তিক নয়ন বন্ডের গড়া ০০৭ গ্রুপ ও নেপথ্যে মাদকের ভয়াল সাম্রাজ্য।


রিফাত শরীফ হত্যায় সরাসরি অংশ নেয় নয়ন বন্ড প্রতিষ্ঠিত কিশোর গ্যাং ০০৭ গ্রুপ। নিহত রিফাত শরীফ ও ঘাতক নয়ন বন্ডসহ কিলিং মিশনের মাস্টারমাইন্ড রিফাত ফরাজী, রিশান ফরাজী ও হত্যায় অংশ নেয়া অনেকেই এই স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেছেন।


গ্রেফতার হওয়া ১৪ জনের ১০জন ও পলাতক চারজনের দু’জন বরগুনা জিলা স্কুল থেকে সদ্য পাস করা ছাত্র। রিফাত হত্যায় জড়িত সন্দেহে গ্রেফতার আরিয়ান শ্রাবণ এবছর এ স্কুল থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। এছাড়াও গ্রেফতার রাতুল সিকদারও বরগুনা জিলা স্কুলে দশম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত।


বরগুনা থানার ওসি আবির হোসেন মাহমুদ বলেন, ‘আমরা বিশেষ করে কিশোর গ্যং ও এদের কার্যক্রম ও সার্বিক বিষয় নিয়ে তদারকি শুরু করেছি। শহরের কোথাও যেন এমন গ্যাং গড়ে না ওঠে সেদিকে আমাদের কড়া নজরদারি রয়েছে।


বিবার্তা/আবদাল/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com