পাখির সঙ্গে ওড়ার অভিনব অভিজ্ঞতা
প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৪৬
পাখির সঙ্গে ওড়ার অভিনব অভিজ্ঞতা
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

পাখির মতো বাতাসে ভেসে বেড়ানো, তাও আবার পাখিদেরই সঙ্গে – এমন অভিনব অভিজ্ঞতা অর্জন মানুষের জীবনে দুর্লভ। এখন ফ্রান্সে অত্যন্ত হালকা এক উড়োজাহাজের কল্যাণে পর্যটকরা এমন বিরল অভিজ্ঞতার স্বাদ পাচ্ছেন।


এমন অভিজ্ঞতার স্বাদ পেতে আবহাওয়াবিদ ক্রিস্টিয়াঁ মুলেক-এর কাছে গেছেন জার্মান বেতার ডয়চে ভেলের সাংবাদিক মেগিন লেই। শৈশব থেকেই পাখি সম্পর্কে এই আবহাওয়াবিদের বিপুল আগ্রহ ছিল৷। পাখি সুরক্ষার লক্ষ্যে এক প্রকল্পের আওতায় এমন উড়ালের ব্যবস্থা করা হয়েছে।


মুলেক বলেন, ‘‘এই পাখিদের দূরে পাড়ি দিয়ে আবার প্রকৃতিতে বিচরণ করার কায়দা শেখানোর চেষ্টা করি। শিকারের কারণে তারা লুপ্তপ্রায় হতে বসেছিল। খাঁচায় থাকা নতুন প্রজন্মের পাখিদের পরিযায়ী পাখি হিসেবে প্রশিক্ষণ দেবার চেষ্টা করি, যাতে তারা জার্মানির দক্ষিণ পশ্চিম প্রান্তে সংরক্ষিত এলাকায় শীতযাপন করতে পারে।''
ফ্রান্সের ওরিয়াক এলাকায় ক্রিস্টিয়াঁ মুলেক-এর খামারে প্রায় ২০০ পাখির সঙ্গে অন্য প্রাণীও শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করে। তাঁর খামারে লুপ্তপ্রায় প্রাণী হিসেবে স্বীকৃত ১২টি প্রজাতি আশ্রয় পেয়েছে। দিনে কমপক্ষে একবার, প্রধানত সকালেই তিনি পাখিদের নিয়ে আকাশে ওড়েন। প্রত্যেক উড়ালের আগে হালকা বিমানটি ভালোভাবে পরীক্ষা করা হয়। মুলেক বলেন, ‘‘অনেক বিষয়ের প্রতি নজর দিতে হয়, যাতে পাখিদের শরীরে কোনো আঘাত না লাগে। অন্য পাইলটদেরও পাখিদের সঙ্গে ওড়ার প্রশিক্ষণ দিয়েছি, কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই সেটা শিখতে পারেন না। আমি পারি, কারণ আমার পাখিদের প্রতি সম্পূর্ণ মনোযোগ দেই, তাদের আঘাত লাগতে দেই না। বরং বিমান চালনার প্রতি আমার মনোযোগ কম থাকে।’’


মুলেক-এর খামারের হাঁসগুলো পোষা হলেও সেগুলোর মর্জিমেজাজও একেবারে কম নয়! উড়ালের আগে হাঁসগুলো খুব উত্তেজিত হয়ে পড়ে।


মাটি ত্যাগ করার সময় কিছুটা ভয় পেলেও আকাশে ওড়ার অভিজ্ঞতা বেশ উপভোগ করতে থাকে সাংবাদিক মেগিন। বলেন, ‘‘গুজবাম্প বা গায়ে কাঁটা দেওয়া কাকে বলে, তা সত্যি বুঝতে পারছি। এমন রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা আমার কখনো হয়নি।’’


প্রায় ৩৫ মিনিট ওড়ার পর নিচে নামার পালা। সেই প্রক্রিয়া ওড়ার তুলনায় আরো ভয়ানক মনে হয় তার। পাখিদের অবশ্য নিচে নামার কোনো ইচ্ছে দেখা যায় না। মেগিন লেই বলেন, ‘‘পাখিদের সঙ্গে উড়ে আবেগে চোখে পানি এসে গিয়েছিল। এমন অসাধারণ অভিজ্ঞতার জন্য ধন্যবাদ ক্রিস্টিয়াঁ!’’ সূত্র : ডয়চে ভেলে


বিবার্তা/হুমায়ুন/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com