গৌরী সেনকে জানুন
প্রকাশ : ২৩ মে ২০১৮, ১৬:৪৮
গৌরী সেনকে জানুন
জয়নাল হোসেন
প্রিন্ট অ-অ+

বাঙ্গালিমাত্রেই অপচয়ের ক্ষেত্রে অনেক সময় এ প্রবচনটি উচ্চারণ করে থাকে - ‘লাগে টাকা দেবে গৌরী সেন’। কোনো ধনী আত্মীয়ের ওপর নির্ভর করে কেউ দু'হাতে টাকা ওড়ালে আমরা তখন বলি, চিন্তা কি, খরচ করে যান। লাগে টাকা দেবে গৌরী সেন।


তবে অহরহ নাম উচ্চারণ করলেও আমরা কেউই আসলে জানি না কে এই গৌরী সেন? জানি না এরকম একজন উদার দানশীল ব্যক্তি আসলেই কি ছিলেন?


জবাব হচ্ছে, হাঁ এমন একজন ছিলেন। তিনি ছিলেন অনেকের ভরসাস্থল। তার কাছে কেউ টাকা চাইলে তিনি ফেরাতেন না, তাকে তিনি প্রশ্ন ছাড়াই টাকা দিতেন।


তার পুরো নাম হচ্ছে গৌরীকান্ত সেন। পেশায় সুবর্ণবণিক বা স্বর্ণব্যবসায়ী। তার জন্ম সাল, স্থান ও পরিচয় নিয়ে মতভেদ রয়েছে। বলা হয়, গৌরীকান্ত সেনের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার বালি শহরে (বর্তমানে এই স্থানটি হাওড়ার অন্তর্ভূক্ত)। অনেকে তার জন্ম হুগলির সপ্তগ্রামে বলেও বলে থাকেন। আবার অনেকে তার জন্ম মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে বলেও ধারণা করে থাকেন।


গৌরি সেনের পিতার নাম নন্দরাম সেন (কারো মতে, হরেকৃষ্ণ মুরলীধর সেন)। তিনি সুবর্ণবণিক সম্প্রদায়ের এক ব্যবসায়ী পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন। তিনি ব্যবসায়ের উদ্দেশ্যে বাড়ি ছেড়ে কলকাতায় চলে আসেন এবং কলুটোলা স্ট্রিটের এক বাসায় ওঠেন। এখানে বৈষ্ণবচরণ শেঠ নামের এক ব্যবসায়ীর সাথে তার পরিচয় হয়। বৈষ্ণবচরণ শেঠের সাথে মিলে তিনি ব্যবসা চালাতে আরম্ভ করেন।


একবার গৌরীকান্ত সেনের নামে বৈষ্ণবচরণ শেঠ সাত নৌকা জিঙ্ক বা দস্তা কেনেন। নৌকাগুলো ঘাটে আসার পর দেখা গেল সাতটি নৌকাই রূপাভর্তি। তারা উভয়েই ছিলেন সৎ। যেহেতু নৌকার মাল (দস্তা) গৌরী সেনের নামে কেনা, তাই সব মাল অর্থাৎ সাত নৌকা রূপাই তিনি দিয়ে দেন গৌরী সেনকে। ফলে গৌরী সেন হঠাৎ বিরাট সম্পদের মালিক হয়ে গেলেন। তারপর তিনি বৈষ্ণবচরণ শেঠের অনুমতি নিয়ে আলাদা ব্যবসা করা আরম্ভ করেন এবং কালক্রমে বিপুল সম্পদের মালিক হন। কলকাতার আহেরীটোলায় পরে তিনি বিশাল একটি বাড়ি করেছিলেন।


ব্যবসায়ের মাধ্যমে গৌরী সেন যতই সম্পদ বাড়াতে থাকেন ততই বেড়ে যেতে থাকে তার দানের উৎসব।


সেকালে দেনার দায়ে কারো জেল হলে ঋণ পরিশোধ না হওয়া অবধি তারা মুক্তি পেত না। এতে অনেকের জেলেই মৃত্যুবরণ করতে হতো। তিনি তাদের অনেককে মুক্ত করতেন। তাদের বকেয়া রাজকর পরিশোধের জন্য তিনি তাদের টাকা দিতেন। তার আশপাশের মানুষগুলো তাদের যে কোনো প্রয়োজনে তার কাছে থেকে টাকা নিতে পারতো।


তা থেকেই এই বাংলা প্রবাদের জন্ম হয় -‘লাগে টাকা দেবে গৌরী সেন’। এই প্রবাদের মধ্য দিয়ে মানুষ আজও এই মহৎ মানুষটিকে স্মরণ করে থাকেন।


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com