সেলফিতে হক নেই বানরের !
প্রকাশ : ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ১১:০৫
সেলফিতে হক নেই বানরের !
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

জাতে বানর হলেও সে শখের ক্যামেরাম্যান হিসেবে বিশ্বখ্যাত। নাম তার নারুতো। সাত বছর আগে হাতের কাছে একটি ক্যামেরা পেয়ে সে ‘সেলফি’ তুলেছিল কয়েকটি।


কমলা-রঙা চোখ, দাঁত বের করা হাসি দেয়া তোলা ছবিতে ইন্দোনেশিয়ার ‘ক্রেস্টেড ম্যাকাক’ প্রজাতির এই বানরের নাম ছড়িয়েছিল দুনিয়া জুড়ে।


যুক্তরাষ্ট্রের আদালত এই নিয়ে দু’বার রায় দিয়েছে যে, নিজের তোলা নিজের ছবির উপরেও কোনো হক নেই তার। কারণ তেমন কোনো আইনই নেই। উল্টো আইন বলছে, ছবির স্বত্ব দাবি করতে পারে শুধু মানুষ। বরং পশু অধিকার রক্ষা আইনে তার জন্য কিছু করা যেতে পারে।


মার্কিন বন্যপ্রাণ চিত্রগ্রাহক ডেভিড জন স্লেটার ২০১১ সালে গিয়েছিলেন ইন্দোনেশিয়ায়। সেখানেই নারুতোর সঙ্গে আলাপ। তখন তার বয়স সাত বছর। স্লেটারের ক্যামেরা নেড়েচেড়ে দেখার ফাঁকেই নারুতোর ওই সেলফি তোলা। সেই ছবিগুলো পরে নিজের একটি বইয়ে ব্যবহার করেছিলেন স্লেটার।


২০১৫ সালে স্লেটার ও ওই বইয়ের প্রকাশনা সংস্থার বিরুদ্ধে নারুতোর হয়ে মামলা করে ‘পিপ্‌ল ফর এথিক্যাল ট্রিটমেন্ট অব অ্যানিম্যালস (পেটা)’।


পেটা বলে, ছবিগুলো যেহেতু নারুতোর তোলা, তাই ছবিগুলোর উপরে স্লেটারের কোনো অধিকার নেই। ব্যবসায়িক কারণে ব্যবহার করা যাবে না নারুতোর ছবি। স্লেটার ও তার দল যুক্তি দেন, নারুতো যেহেতু বানর, তাই ছবির উপরে তার স্বত্বাধিকার থাকার কথা নয়। ২০১৬ সালে জানুয়ারিতে মার্কিন আদালত স্লেটারদের যুক্তিই মেনে নেয়।


পেটা তখন আপিল আদালতে যায়। গত সোমবার সেই আদালতও একই রায় দেয়। রায়ে বলা হয়, মানুষ ছাড়া কোনো জীবই ছবির স্বত্ব চাইতে পারে না। তবে একটি সমঝোতা হয়েছে। ঠিক হয়েছে, ভবিষ্যতে নারুতোর সেলফি থেকে আসা মুনাফার ২৫% স্লেটার দান করবেন ক্রেস্টেড ম্যাকাক প্রজাতির বানরদের সংরক্ষণে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা ও ডয়চে ভেলে


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com