৪ বছর ধরে ঘুমান না যে নারী
প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৫৯
৪ বছর ধরে ঘুমান না যে নারী
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

চার বছর ধরে ঘুমান না এ পোলিশ নারী। ৩৯ বছর বয়সী মালগোরজাটা স্লিউইন্সকা বিরল রোগে আক্রান্ত। তিনি অনেক বছর ধরে তার সোমনিফোবিয়া রোগ সম্পর্কে বুঝতে পারেননি, যা তার জীবনকে অসহনীয় করে তুলেছে।


দ্য সানের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পোল্যান্ডের ৩৯ বছরের নারী মালগোরজাটা স্লিউইন্সকা টানা চার বছর ধরে ঘুমাতে পারেননি। ফলে তার চোখ ব্যথা হয়ে যায় এবং মাথাও ব্যথা হতে শুরু করে। হঠাৎ তার শরীরে এ ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়, কিছুতেই তার ঘুম আসে না। এ সমস্যার কারণে তার জীবন পুরো নষ্ট হয়ে গেছে বললে ভুল হয় না। শুধু তার শারীরিক সমস্যা নয়, এ রোগের কারণে তার পারিবারিক জীবনও সম্পূর্ণরূপে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।


মালগোরজাটা স্লিউইন্সকা জানিয়েছেন, এ রোগের কারণে তার চোখ জ্বলতে শুরু করে এবং শুকিয়ে যায়। একটানা ঘুম না আসার কারণে খুবই ক্লান্তির সৃষ্টি হয়। তার শর্ট টার্ম মেমোরি পুরোপুরি নষ্ট হয়ে গেছে এবং তিনি কোনো কারণ ছাড়াই কাঁদতে শুরু করে দেন। এ রোগ তার শরীরের ক্ষতির সঙ্গে সঙ্গে তার চাকরিও কেড়ে নিয়েছে।


এ রোগের চিকিৎসার পেছনে তার জমানো সব টাকা নষ্ট হয়ে গেছে, কিন্তু কোনো ফল পাওয়া যায়নি। এ ধরনের রোগের কারণে স্বামী এবং ছেলের সঙ্গেও তার সম্পর্ক নষ্ট হতে শুরু করেছে। মালগোরজাটা স্লিউইন্সকার এ অসুখের শুরু ২০১৭ সালে।


স্পেন থেকে ছুটি কাটিয়ে বাড়ি ফেরার পরই তার এ রোগের সূত্রপাত হয়। এরপর থেকে ধীরে ধীরে ঘুম আসা বন্ধ হয়ে যায়। তিনি অনেক চেষ্টা করেও ঘুমাতে পারেননি। ২০১৭ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত একটানা তিনি না ঘুমিয়ে কাটিয়ে দিয়েছেন, যা তার শরীরে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করেছে।


৪ বছর পর পোল্যান্ডের এক ডাক্তারের কাছ থেকে তিনি জানতে পারেন, তিনি সোমনিফোবিয়া রোগের শিকার। সেই ডাক্তারের ওষুধে মালগোরজাটা স্লিউইন্সকা এখন সপ্তাহে মাত্র ২-৩ রাত ঘুমাতে পারেন। এছাড়া তিনি শুরু করেছেন ধ্যান এবং ব্যায়াম। একই সঙ্গে মালগোরজাটা স্লিউইন্সকা পার্ট টাইম চাকরিও শুরু করেছেন। সূত্র: দ্য সান।


বিবার্তা/ইমরান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com