ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৮৫ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল বাংলাদেশ
প্রকাশ : ০৬ আগস্ট ২০১৮, ০৮:৫০
ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৮৫ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল বাংলাদেশ
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

৩ ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৮৫ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমে ব্যাট করে লিটন দাস ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৮৪ রান করেছে টাইগাররা। এ ম্যাচে জয় তুলে নিতে পারলেই দ্বিতীয়বারের মতো দেশের বাইরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিজেদের করে নিতে পারবে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।


ফ্লোরিডায় দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টির ম্যাচসেরা তামিম ইকবাল এদিন জ্বলে উঠতে পারেননি। তবে দুর্দান্ত সূচনায় লিটন দাসের সঙ্গী ছিলেন তিনি। দুই ওপেনারের ব্যাটে দ্রুততম ফিফটি পায় বাংলাদেশ। লিটনও করেন হাফসেঞ্চুরি। বাংলাদেশকে শক্ত অবস্থানে রেখে বিদায় নেন এই ওপেনার।


টস জিতে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ দারুণ শুরু করে। প্রথম বলেই লিটন মারেন বাউন্ডারি, প্রথম ওভারে আসে ৮ রান। দ্বিতীয় ওভারে এই বাংলাদেশি ওপেনার দুটি ছয় ও একটি চারে যোগ করেন ১৭ রান। চার-ছয়ের মার ছিল তামিমের ব্যাটেও। দুজন সমানতালে ক্যারিবিয়ান বোলারদের ওপর চড়াও হয়েছেন। মাত্র ৩.৪ ওভারে দল ৫০ রানের ঘরে পৌঁছায়। বাংলাদেশের জন্য এটি ছিল দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি।


বিপজ্জনক হয়ে ওঠা এ জুটি ভাঙেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। পঞ্চম ওভারের চতুর্থ বলে তামিমকে কেসরিক উইলিয়ামসের ক্যাচ বানান তিনি। ১৩ বলে ৩ চার ও ১ ছয়ে ২১ রানে আউট হন বাঁহাতি ওপেনার। মাত্র ৩০ বলে ৬১ রানের ঝড়ো জুটি ভাঙে তামিমের বিদায়ে।


দারুণ শুরুর পরও সৌম্য সরকার চাপমুক্ত হয়ে খেলতে পারেননি। পরের ওভারে কিমো পলের বলে রভম্যান পাওয়েলের ক্যাচ হন উঁচু শট খেলে। ৪ বলে ৫ রান করেন তিনি। প্রথম পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে ২ উইকেটে ৭১ রান করে বাংলাদেশ।


আগের ১৪ ম্যাচে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করা লিটন অষ্টম ওভারে পেয়ে যান প্রথম ফিফটি। ২৪ বলে ৫ চার ও ৩ ছয়ে হাফসেঞ্চুরি করেন এই ওপেনার। মুশফিকুর রহিম তার সঙ্গে ৩১ রানের জুটি গড়ে ফিরে গেছেন ব্র্যাথওয়েটের বলে। ১৪ বলে ১২ রান করে পেছনে দিনেশ রামদিনের হাতে বল তুলে দেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। পরের ওভারে উইলিয়ামসের বলে অ্যাশলে নার্সের কাছে ক্যাচ হন লিটন। মাত্র ৩২ বলে ৬ চার ও ৩ ছয়ে ৬১ রান করেন তিনি।


লিটন বিদায় নেওয়ার পর মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে সাকিব আল হাসান গড়েন ৪৪ রানের জুটি। গত ম্যাচের মতো স্বতঃস্ফূর্ত ব্যাটিং করেননি অধিনায়ক। ২২ বলে ২৪ রানে পলের শিকার হন তিনি নার্সকে ক্যাচ দিয়ে।


তারপর আরিফুল হককে নিয়ে অপরাজিত ৩৮ রানের জুটি গড়ে মাঠ ছাড়েন মাহমুদউল্লাহ। ২০ বলে ৪টি চার ও ১ ছয়ে ৩২ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। ১৮ রানে খেলছিলেন আরিফুল।


দারুণ শুরুতে আরেকটি সিরিজ জয়ের হাতছানি পাচ্ছে টেস্টে একপেশে হারে হোয়াইটওয়াশ হওয়া বাংলাদেশে। ওয়ানডেতে দুর্দান্ত জয়ে শুরু হয়েছিল তাদের। যদিও দ্বিতীয় ম্যাচে দুর্ভাগ্যজনকভাবে হেরে যায় তারা। তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিকদের হারিয়ে ৯ বছর পর বিদেশের মাটিতে সিরিজ জয়ের স্বাদ পান তামিম-সাকিবরা।


টি-টোয়েন্টি সিরিজের শুরুতে ওই জয়ের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। হেরে যায় তারা বড় ব্যবধানে। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের কাছে হেরে শুরু করলেও থমকে যায়নি তারা। ফ্লোরিডার লডারহিলে ১২ রানের দারুণ এক জয়ে সিরিজে সমতায় ফিরেছে তারা। ২৪ ঘণ্টা পর আবারও একই ভেন্যুতে মুখোমুখি দুই দল। এবারও সিরিজ কার, সেই লড়াই। এমন সুযোগে উজ্জীবিত টানা ৫ ম্যাচ হারের পর টি-টোয়েন্টিতে প্রথম জয় পাওয়া বাংলাদেশ।


বিবার্তা/শান্ত/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com