পরিবারের সবাই ইয়াবা ব্যবসায়ী!
প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৯:৪৮
পরিবারের সবাই ইয়াবা ব্যবসায়ী!
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

আব্দুল আজিজ ট্রাক চালাতো। রাতারাতি অনেক টাকার মালিক হওয়ার লোভে সে হয়ে গেলো ইয়াবাব্যবসায়ী। নিজে তো জড়ালোই পাপে, সঙ্গে পরিবারের অন্য সদস্যদেরও এতে জড়িয়ে নিলো। অর্থাৎ বাড়িশুদ্ধ সবাই হয়ে গেলো ইয়াবা ব্যবসায়ী।


র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) এ চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেছে।


র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান জানিয়েছেন, শনিবার রাতে রাজধানীর পান্থপথ এলাকার হোটেল ওলিও ড্রীম হ্যাভেনে অভিযান চালিয়ে ৭,৮৯০ পিস ইয়াবাসহ ছয় জনকে আটক করা হয়। তারা হলো আব্দুল আজিজ (৬৪), তার স্ত্রী নিলুফা ওরফে রানী বেগম (৫৫), তাদের ছেলে সুমন (৩২) ও রতন (২৫)। এছাড়া হোটেল ম্যানেজার এনামুল হক নয়ন (৩২) ও সারোয়ার কামাল (৩২) নামের আরো দুই ব্যক্তিকে আটক করা হয়। তারাও ওই ব্যবসায় সাথে জড়িত বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা।


তিনি আরো জানান, তাদের কাছ থেকে দুই লাখ ছয় হাজার ষাট টাকা মূল্যের ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে।


যেভাবে মাদক ব্যবসায়ী হলো আজিজ


গাজীপুরের জয়দেবপুর উপজেলার আমবাগ গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল আজিজ ছিলো একজন ট্রাকচালক। এই সুবাদে দেশের বিভিন্ন স্থানের ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সাথে পরিচয় হয় তার। এক পর্যায়ে রাতারাতি বড়লোক হওয়ার আশায় সেও ওই ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে।


ব্যবসা শুরুর পর সে তার স্ত্রী ও সন্তানদের একই কাজে নিয়োজিত করে। তাদের মাধ্যমে সে ঢাকা, গাজীপুর ও মুন্সিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে ইয়াবা ডেলিভারী দিত। তারা মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ইয়াবা কিনে বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে বিক্রি করত।


এ ব্যাপারে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান জানান, হোটেল ওলিও ড্রীম হ্যাভেনের ম্যানেজার এনামুল এবং সারোয়ার কামাল নামের এক মাদক ব্যবসায়ী আব্দুল আজিজের কাছে একটি ইয়াবা চালান বিক্রি করার আগ্রহ প্রকাশ করে। এ জন্য আব্দুল আজিজ তার স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে ঢাকা আসে। গোপনে খবর পেয়ে র‌্যাব তাদের আটক করে।


মিয়ানমার থেকে আসছে ইয়াবা


র‌্যাব জানিয়েছে, চট্টগ্রামে বসবাসরত এক বার্মিজ নাগরিক দীর্ঘদিন থেকে মিয়ানমার থেকে ইয়াবা নিয়ে আসছে। সে কসমটিক্স, শাড়ী-কাপড় ইত্যাদি আমদানির আড়ালে ইয়াবা আমদানি ও বিভিন্ন সোর্সের মাধ্যমে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ইয়াবা বিপণন করে আসছে। তার কাছ থেকে রাজধানীতে আটক সারোয়ার কামালও ইয়াবা ক্রয় করত।


নিরাপদ মাধ্যম কুরিয়ার সার্ভিস


র‍্যাব জানায়, সুন্দরবন ও কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে নিরাপদে ইয়াবা আনা নেয়া করা হচ্ছে। ভুয়া নাম ও মোবাইল ব্যহার করে কাপড়ের চালানের মাধ্যমে ইয়াবা আনা হয়।


র‌্যাব আরো জানায়, মাদক ব্যবসায়ী সারোয়ার কামাল ইয়াবার একটি চালান কাপড়ের গাইটের মধ্যে প্রসেসিং করে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের চট্টগ্রামের হাটহাজারী শাখা থেকে উত্তরা শাখায় পাঠায় আর নিজে বাসযোগে ঢাকায় আসে। ওই চালনটি ডেলিভারী দিতে গিয়ে র‌্যাবের হাতে আটক হয় সে।


বিবার্তা/খলিল/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com