ওয়াসার নাম দিয়ে জমজমাট প্রতারণা
প্রকাশ : ২৪ আগস্ট ২০১৭, ১৯:০৮
ওয়াসার নাম দিয়ে জমজমাট প্রতারণা
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় ওয়াসার গ্রাহকদের বাসার পানির মিটার ও লাইনের অসঙ্গতি চিহ্নিত করার নামে পানির লাইন বিচ্ছিন্নকরণ ও জেল-জরিমানা করার ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায়কারী একটি প্রতারক চক্রকে সনাক্ত করেছে র‌্যাব।


র‌্যাব জানায়, ইতোমধ্যে ওই চক্রের পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। তারা হলো লিটন সিকদার, রফিকুল ইসলাম, জিয়াউর রহমান, দুলাল হোসেন ও বিপ্লব মিয়া।


আটকদের মধ্যে বিপ্লব মিয়া মিরপুর ওয়াসা অফিসের ইন্সপেক্টর জহির উদ্দিনের সহকারী। আর জহির এলাকার গ্রাহকদের মিটার রিডিং নেয়া ও বিল দেয়ার কাজ করে। এই সুযোগে বিপ্লব রাজধানীর কাওরান বাজার ও যাত্রাবাড়ী ওয়াসা অফিস থেকে ওয়াসার গ্রাহকদের হোল্ডিং জরিপ তালিকা এবং তাদের বকেয়া প্রত্যয়ন ফরম সংগ্রহ করে তার বাবা রুহুল আমিনের কাছে দেয়। রুহুল আমিন অন্য প্রতারকদের নিয়ে হোল্ডিং জরিপ তালিকা অনুযায়ী গ্রাহকদের বাসায় যেতো। তাদের মধ্যে লিটন শিকদার নিজেকে ওয়াসার উপসহকারী প্রকৌশলী এমদাদুল হক হিসেবে, রফিকুল ওয়াসার সেনেটারী মিস্ত্রী এবং জিয়া ও দুলাল নিজেদেরকে ওয়াসার কর্মচারী পরিচয় গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণা করতো।


র‌্যাব আরো জানায়, প্রতারকরা নিজেদের ওয়াসার পরিদর্শন টিম পরিচয় দিয়ে গ্রাহকদের পানির মিটার ও লাইনের অসংগতি চিহ্নিত করে পানির লাইন বিচ্ছিন্নকরণ এবং জেল-জরিমানার ভয়ভীতি দেখায়। শুধু ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায় করতো।


এ ব্যাপারে র‌্যাব-৩ এর মিডিয়া অফিসার আবদুল করিম জানান, ওয়াসার নাম বিক্রি করে প্রতারণা করা হচ্ছে - এমন অভিযোগের ভিত্তিতে রাজধানীতে অভিযান চালানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে ওই চক্রের পাঁচ প্রতারককেকে আটক করা হয়েছে। আটকের পর তাদের দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে অনেক গুরু্ত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। অন্য প্রতারকদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


তিনি জানান, প্রতারকরা ওয়াসার সীল, স্ট্যাম্প প্যাড, ওয়াসা লেখা কাভার ফাইল, সীল স্বাক্ষরযুক্ত ওয়াসার হোল্ডিং জরিপ তালিকা, ওয়াসার গ্রাহকদের বকেয়া প্রত্যয়নপত্র এবং ওয়াসার প্রকৌশলীদের নকল আইডি কার্ড তৈরী করে, যাতে প্রতারণা করতে সহজ হয়।


তিনি আরো জানান, র‌্যাবের অভিযানে ওয়াসার সীল তিনটি, স্ট্যাম্প প্যাড একটি, লোহার হাতুড়ি একটি, টর্চ লাইট একটি, হ্যাকসো ব্লেড একটি, ওয়াসা লেখা কভার ফাইল একটি, সীল স্বাক্ষরযুক্ত ওয়াসার হোল্ডিং জরিপ তালিকা, ওয়াসার গ্রাহকদের বকেয়া প্রত্যয়নপত্র, ব্যাগ একটি ও আইডি কার্ড উদ্ধার করেছে।


তবে এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার বিকালে মিরপুর ওয়াসা অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল মাজিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি জানতে রাজস্ব কর্মকর্তা নাসির উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।


এক পর্যায়ে ঢাকা ওয়াসা অফিসের ওয়েবসাইট থেকে রাজস্ব কর্মকর্তা নাসির উদ্দিনের সেল ফোন নাম্বার যোগাড় করে সাথে যোগাযোগ করা হলে অপর এক কর্মকর্তা ফোন রিসিভ করে বলেন, নাসির উদ্দিন বদলী হয়ে গেছেন। উনার স্থলে আমি আছি।


তখন বিষয়টি তার কাছে জানতে চাইলে তিনি সাফ বলে দেন, ''এখন অফিস টাইম শেষ। বিষয়টি জানতে হলে অফিস টাইমে যোগাযোগ করবেন।''


বিবার্তা/খলিল/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com