কোথাও স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই!
প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:৩১
কোথাও স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই!
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন মোকাবিলায় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) থেকে এসব বিধিনিষেধ কার্যকর করার কথা থাকলেও কোথায় সরকারের এই আদেশ মানা হচ্ছে না। মার্কেট, রেস্তোরা, রাস্তা-ঘাটে মাস্ক ছাড়াই চলাফেরা করছেন সবাই।


শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেট ও এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।


রাজধানীর কারওয়ান বাজারে এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, গণপরিবহণে অর্ধেক যাত্রী বহনের কথা থাকলেও কেউ এই আদেশ মানছে না। এমনকি যাত্রী, চালক, হেলপার মাস্ক ছাড়াই চলাফেরা করছেন।


শাহবাগ, পল্টন, গুলিস্তানসহ অন্যান্য এলাকায় বিভিন্ন যাত্রীবাহী বাসে স্বাস্থ্যবিধি তো দূরের কথা যাত্রীদের চাপে ভাড়া আদায়কারীদের হিমশিম খেতে দেখা গেছে।


রাজধানীর ফার্মগেট এলাকার মার্কেটগুলো ঘুরে দেখা গেছে, লোকজন মার্কেটগুলোতে অবাধে চলাফেরা করছেন। দুই একজনের মুখে মাস্ক থাকলে বেশিরভাগের মুখেই নেই মাস্ক।


ফার্মভিউ মার্কেটে আসা রহিম নামের এক যুবক ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবার্তাকে বলেন, সরকার ১১ দফা বিধিনিষেধ দিয়েছে। কিন্তু কেউ এই আদেশ মানছেন না। এতে সবার ক্ষতি হচ্ছে। আসলে সরকারের আদেশ মেনে চললে করোনা সংক্রামণ থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।



মইনুল ইসলাম নামের এক বাস চালক বিবার্তাকে বলেন, যাত্রীরা মাস্ক পড়তে অনিহা দেখাচ্ছে। মাস্ক ছাড়া বাসে উঠতে দেয়া না হলে উল্টো ঝামেলা শুরু করেন তারা।


নিউ মার্কেট এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, ছুটির দিন হওয়াতে সবাই মার্কেটে আসছেন। কারো কারো সাথে ছোট শিশু রয়েছে। তাদের কারো মুখে মাস্ক নেই।


এ সময় রহিমা বেগম নামের এক নারীকে মাস্ক নেই কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাস্ক নিয়ে আসতে ভুলে গেছি। এছাড়া মার্কেটে বেশিভাগ মানুষ মাস্ক পড়ে না। তাই আমিও মাস্ক পড়ি নাই।


এ ব্যাপারে জানাতে চাইলে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ডা. সঞ্জীব দাস বিবার্তাকে বলেন, বৃহস্পতিবার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়েছে। তবে গণপরিবহনের যাত্রীদের মধ্যে মাস্ক পরার প্রবণতা অনেক কম রয়েছে। এছাড়াও মাস্ক না পরার কারণ জানতে চাইলে নানা ধরনের অজুহাত দিয়েছেন।


বৃহস্পতিবারের অভিযান সম্পর্কে তিনি আরো বলেন, আমাদের মূল উদ্দেশ্য ছিল বিধিনিষেধের ব্যাপারে মানুষকে সতর্ক করা। সতর্ক করার পাশাপাশি অভিযানকালে ১১ জনের নামে মামলা দেয়া হয়েছে। তাদের ১০০-২০০ টাকা করে মোট ২ হাজার ৫৫০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বেশ কয়েকজনকে মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়েছে। কেউ কেউ পরবর্তী সময়ে মাস্ক ব্যবহার করবেন বলে মুচলেকাও দিয়েছেন। অভিযানের খবর অন্যরা যখন জানবেন, তখন তারাও সতর্ক হবেন বলে আমরা আশা করি।


উল্লেখ্য, গত সোমবার (১০ জানুয়ারি) বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, করোনাভাইরাসজনিত রোগের (কোভিড-১৯) নতুন ধরন ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব ও দেশে এ রোগের সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত সভায় নেয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচল রাখা এবং সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ১৩ জানুয়ারি থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সার্বিক কাৰ্যাবলি/চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করা হলো। বিধিনিষেধ চলাকালে ১১টি নির্দেশনা মেনে চলার জন্য বলা হয়েছে।


বিবার্তা/খলিল/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com