শোক দিবসের কমিটিতে থাকতে চান না প্রকৌশলী জসীম!
প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০২০, ২৩:২৫
শোক দিবসের কমিটিতে থাকতে চান না প্রকৌশলী জসীম!
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকীতে সারা দেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় শোক দিবস পালন করা হয়। দিবসটি দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, সামাজিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ পালন করে থাকেন। আর ওই দিন আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচিও পালন করা হয়।


বিশেষ করে সরকারি দফতরগুলোতে দিবসটি খুব গুরুত্বের সাথে পালন করা হয়। দিবসটি পালনের জন্য সরকারি দফতরে বিভিন্ন উপ কমিটি করা হয়। ওই কমিটিতে সরকারি কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালন করে থাকেন। কিন্তু ওই দিবসের‘পুষ্পমালা অর্পণ উপ-কমিটির’ আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না বলে অপারগতা প্রকাশ করেছেন পিরোজপুর জেলার মঠবাড়ীয়া উপজেলার প্রকৌশলী কাজী আবু সাইদ মো. জসীম। অসুস্থতা ও পারিবারিক সমস্যার কথা বলে তিনি কৌশলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি আবেদন করেছেন। এতে উপজেলায় নানা ধরনের আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে।


জানা গেছে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকী পালনের জন্য গত ৬ আগস্ট একটি সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক আয়োজিত সভায় প্রকৌশলী কাজী আবু সাইদ মো. জসীম উপস্থিত হননি। শুধু তাই নয়, তার দফতরের কোনো কর্মকর্তা বা প্রতিনিধি ওই সভায় উপস্থিত হন নাই। পরবর্তীতে সভায় উপস্থিত সকলের সম্মতিক্রমে কাজী আবু সাইদ মো. জসীমকে ‘পুষ্পমালা অর্পণ উপ-কমিটির’ আহ্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয়।


কিন্তু প্রকৌশলী কাজী আবু সাইদ মো. জসীম সোমবার (১০ আগস্ট) উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি আবেদন করেছেন। ওই আবেদনের নিচে তার নাম, পদবী ও স্বাক্ষর রয়েছে। আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, ‘নিম্ন স্বাক্ষরকারী শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার কারণে ঝুঁকিপূর্ণ বিবেচনায় বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে জনসমাগম যথাসম্ভব পরিহার করে সতর্কতার সাথে দাফতরিক ও মাঠ পর্যায়ের কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করছেন। তদুপরি সম্প্রতি নিম্ন স্বাক্ষরকারীর পারিবারিক দুর্ঘটনার কারণে তিনি মানসিকভাবে বেশ বিপর্যস্ত। বিগত ১০ আগস্ট প্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার মারফত উনাকে জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচির ‘পুষ্পমালা অর্পণ উপ-কমিটির’ আহ্বায়ক হিসেবে মনোনীত করা হয়। কিন্তু নিম্ন স্বাক্ষরকারীর পক্ষে তার বর্তমান মানসিক বিপর্যস্থতা ও শারীরিক অসুস্থতার কারণে উপ কমিটির দায়িত্ব যাথাযথভাবে পালন সম্ভব হবে না বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।’


আদেবন জমা দেয়ার পর পুরো উপজেলায় আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে। কেউ কেউ বলছেন তিনি সুস্থ থেকেও অসুস্থতার বান ধরেছেন। এছাড়া অসুস্থ হলেও তিনি আবেদনের সাথে কোনো মেডিকেল সাটিফিকে জমা দেন নাই। এতেই প্রমানিত তিনি সুস্থ থেকেও শোক দিবস অনুষ্ঠানের দায়িত্ব পালন করতে অনিহা প্রকাশ করেছেন।


তবে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মঠবাড়ীয়া উপজেলার প্রকৌশলী কাজী আবু সাইদ মো. জসীম বিবার্তাকে বলেন, আমি ছুটি নেইনি। তবে আমার আম্মা মারা গেছেন। আমার বাবাও অসুস্থ তাই আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। আমি পরিবারের বড় ছেলে। আর বড় ছেলে হিসেবে পারিবারিক একটা দায়িত্ব থাকে। তবে তিনি অসুস্থ কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি মানসিকভাবে অসুস্থ।


বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উর্মি ভৌমিক বিবার্তাকে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী পালন উপলক্ষ্যে গত ৬ আগস্ট একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় অনুপস্থিত ছিলেন প্রকৌশলী কাজী আবু সাইদ মো. জসীম। তবে সভার সকলের সম্মতিক্রতে তাকে ‘পুষ্পমালা অর্পণ উপ-কমিটির’ আহ্বায়ক করা হয়। কিন্তু অসুস্থতা ও মানসিক বিপর্যতার কারণ দেখিয়ে গতকাল (১০ আগস্ট) তিনি ওই দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে পারবেন না বলে আমার কাছে একটি আবেদন করেছেন।


বিবার্তা/খলিল/জাই

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com