পেপালের জুম সেবা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে
সেরা ফ্রিল্যান্সারের ৭টি পুরস্কার পেল র‌্যাডিসন আইটি
প্রকাশ : ১৯ অক্টোবর ২০১৭, ২০:১০
সেরা ফ্রিল্যান্সারের ৭টি পুরস্কার পেল  র‌্যাডিসন আইটি
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

প্রবাসী ও ফ্রিল্যান্সারদের সুবিধার্থে বাংলাদেশে চালু হলো ইন্টারনেট-ভিত্তিক পেমেন্ট কোম্পানি পেপ্যালের ‘জুম’ সার্ভিস। ফলে ফ্রিল্যান্সারদের পাশাপাশি উপকৃত হবেন অনলাইনে লেনদেন করছেন এমন ব্যবহারকারীরাও।


বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম পেপালের জুম সেবা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি-বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।


একই অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠিত হয়েছে ফ্রিল্যান্সার সম্মেলন। সারাদেশ থেকে আগত ফ্রিল্যান্সারদের আগমনে মুখরিত ছিল বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র। এসময় এলইডিপি প্রজেক্টের আওতাধীন প্রশিক্ষণার্থী সেরা ফ্রিল্যান্সারদের বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে ১৭ টি বিশেষ সম্মাননা দেয়া হয়। এর মধ্যে ৭টি সম্মাননা পেয়েছে র‌্যাডিসন ডিজিটাল টেকনোলজি লিমিটেডের প্রশিক্ষণার্থীরা।


সারাদেশ থেকে আগত ফ্রিল্যান্সারদের মধ্যে ১৭টি সম্মাননা দেয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে ২টি জাতীয় ও ১৫টি বিভাগীয়। জাতীয় ২টিই সম্মাননা পান র‌্যাডিসন ডিজিটাল টেকনোলজি লিমিটেডের প্রশিক্ষণার্থী চট্টগ্রামের রায়হান মাহমুদ ও মৌলভীবাজারের শারমিন আহমেদ।


এছাড়াও বিভাগীয় পর্যায়ে সম্মাননা পাওয়া র‌্যাডিসন ডিজিটাল টেকনোলজি লিমিটেডের অন্যান্য প্রশিক্ষণার্থীরা হলেন, রাঙ্গামাটি জেলার শুভঙ্কর চাকমা, ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার সীরাত রাজ্জাকী ও সুনামগঞ্জের মোবারক হোসেন।



বিভাগীয় পর্যায়ে সম্মাননা পাওয়া অন্য প্রশিক্ষণার্থীরা হলেন, ঢাকা বিভাগের সাদিয়া সুলতানা, বাপ্পা শর্মা, ময়মনসিংহ বিভাগের মো. আলামীন হোসাঈন, আফরিনা ফারজিন নওরিন, রাজশাহী বিভাগের তানজিমা আক্তার, মো. মুজিবুল হক, রংপুর বিভাগের সাফিনা আক্তার, এসএম ইমরান ইসলাম, খুলনা বিভাগের বিশ্বজিৎ অধিকারী, মৌরিন রহমান, বরিশাল বিভাগের নিকর সিকদার ও সুলতানা রাজিয়া পলি।


তরুণ ও উদীয়মান এ ফ্রিল্যান্সারদের উদ্দেশ্যে কথা বলেন সজিব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেন, ‘আপনারা দীর্ঘ দিন দেশে পেপাল সার্ভিসের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। আপনাদের কষ্টের টাকা যেন কেউ মেরে দিতে না পারে বা প্রতারিত না হন সেজন্য আমরা এ ব্যবস্থা চালু করলাম। ’


জয় বলেন, ‘আমাদের তরুণেরা অনলাইনে যে আয় করছে, সেই টাকা পাঠাতে বিরাট সমস্যা ছিল। ৩-৭ দিন সময় এবং টাকার ৩০ শতাংশের বেশি পাঠানোর খরচেই চলে যেতো। ফ্রিল্যান্সারদের দাবি ছিল পেপাল চালু করা।আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা দিতে চাই, আজকে সেই সার্ভিস বাংলাদেশে চালু হলো। পেপাল অ্যাকাউন্ট থেকে, অ্যাপ থেকে সরাসরি টাকা পাঠাতে পারবে। ৪০ মিনিট থেকে টাকা দুই ঘণ্টার মধ্যে চলে আসবে। বছরে কোনো ফি দিতে হবে না। সপ্তাহে সাত দিন ২৪ ঘণ্টা যে কোনো সময় টাকা পাঠানো যাবে।’



বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এক কোটি ১৮ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশিও এই সুবিধায় দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন বলে জানান জয়।


নিজেরও একটি পেপাল অ্যাকাউন্ট রয়েছে জানিয়ে জয় বলেন, ‘আমারও পেপাল অ্যাকাউন্ট আছে, আমিও চেক করে দেখেছি যে কোনো সময় বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারি।’


সরাসরি পেপাল চালু না হওয়ায় এর ইনবাউন্ড সেবা জুম চালু নিয়ে সমালোচনা করে আসছেন অনেকেই। কারণ, এই সেবায় দেশের বাইরে টাকা পাঠানো যাবে না।


জবাবে জয় বলেন, ‘এটা ব্যর্থতা নয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের আইনে দেশের বাইরে টাকা পাঠানো নিষিদ্ধ। ২০০৯-১০ সালে বিশ্বে যে অর্থনৈতিক ক্রাইসিস পড়েছে, বাংলাদেশে তার প্রভাব পড়েনি। বাংলাদেশ থেকে টাকা যেন স্বাধীনভাবে না যেতে পারে, সেটা আমাদের পলিসি। তবে ভবিষ্যতে এই সীমাবদ্ধতা থাকবে না।’


এই সেবার মধ্য দিয়ে রেমিটেন্স এবং ফ্রিল্যান্সারদের আয় আগে যে হুন্ডির মধ্য দিয়ে আসতো সেটা বন্ধ হয়ে যাবে জানিয়ে জয় বলেন, ‘এখন লিগ্যাল চ্যানেল দিয়ে সেটা আসবে। এতে দুর্নীতির সুযোগ বন্ধ হয়ে যাবে। টাকা চুরি হওয়ার সম্ভাবনা আর থাকছে না।’


ভবিষ্যতে অর্থ লেনদেনে নিজের স্বপ্নের কথা তুলে ধরে জয় বলেন, ‘আমাদের দেশের ভেতর যতো লেনদেন হবে, সরকারি বিভিন্ন ফি, লাইসেন্স ফি, বিদ্যুৎ-গ্যাস বিল- সব টাকা লেনদেন অনলাইনে হবে। মোবাইলের মাধ্যমে হবে। আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে আমরা মোবাইল ফাইন্যান্সিং সিস্টেম বানিয়ে, এটা থাকবে বাংলাদেশ ব্যাংকের হাতে। ভাতার টাকা, সেবার টাকা মেরে দেওয়ার সুযোগ, ঘুষ নেওয়ার সুযোগ থাকবে না।’


আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ এমপি, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির এবং আইসিটি সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী।


বিবার্তা/উজ্জ্বল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com