বাজারে ৫হাজার টাকার মধ্যে ৮ স্মার্টফোন
প্রকাশ : ০২ আগস্ট ২০২০, ২০:১১
বাজারে ৫হাজার টাকার মধ্যে ৮ স্মার্টফোন
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

আধুনিক জীবনে স্মার্টফোন ছাড়া এক মুহূর্তও চলে না। তবে কারো কারো সাধ থাকলেও সাধ্যে কুলায় না। বিশেষ করে মধ্যবিত্ত পরিবারের স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী ও তরুণদের বেলায় এমনটা ঘটে থাকে।


তাদের কথা চিন্তা করে এখানে জনপ্রিয় কিছু ব্র্যান্ডের ৫হাজার টাকার মধ্যে ৮টি স্মার্টফোন সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-


‘ওয়ালটন প্রিমো এফ ৯’ : বাংলাদেশি পণ্য ব্যবহারে গর্ববোধ করেন? তাহলে কিনতে পারেন ওয়ালটনের স্মার্টফোন। ওয়ালটন একটি বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান, যার সদর দপ্তর বাংলাদেশের কালিয়াকৈরে অবস্থিত। বাজেট স্মার্টফোন ছাড়াও সাশ্রয়ী মূল্যের বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক পণ্য তৈরি করে থাকে ওয়ালটন। দেশীয় এই প্রতিষ্ঠানের তৈরি ‘ওয়ালটন প্রিমো এফ ৯’ ফোনটিকে রাখা যেতে পারে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও তরুণ পেশাজীবীদের পছন্দের তালিকায়। ৪ হাজার ৯৯৯ হাজার টাকার মধ্যে ফোনটি অসাধারণ।


‘সিম্ফনি ভি ১০৫’ : ব্যবহারবান্ধব ইন্টারফেস, উজ্জ্বল ডিসপ্লে এবং প্রয়োজনীয় সব অ্যাপলিকেশনসহ বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের জন্য দেশে আকাশ ছোঁয়া খ্যাতি অর্জন করেছে সিম্ফনি। এছাড়া সাশ্রয়ী দামের মধ্যে স্মার্টফোন তৈরিতে সিম্ফনির বিশেষ কৃতিত্ব রয়েছে। ৫ হাজার টাকার মধ্যে ‘সিম্ফনি ভি ১০৫’ দুর্দান্ত একটি স্মার্টফোন।


‘ওয়ালটন প্রিমো এফ ৯’ : নান্দনিক ডিজাইনের ‘প্রিমো এফ ৯’ ফোনটিতে রয়েছে আধুনিক সব বৈশিষ্ট্য। কম দামের মধ্যেই এই ফোনে রয়েছে উন্নতমানের অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই গো এডিশন।


ওয়ালটনের এই ফোনটিতে রয়েছে ২ হাজার ৫০০ এমএইচের শক্তিশালী লি-অন ব্যাটারি এবং ৫.৪৫ ইঞ্চির উজ্জ্বল ডিসপ্লে। এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ১ জিবির ডিডিআরথ্রি র‌্যাম ও ১৬ জিবি রম।


এছাড়া মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে ৬৪ জিবি পর্যন্ত। এই ফোনের সামনে ও পেছনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ওয়ালটন প্রিমো এফ ৯ এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ৪ হাজার ৯৯৯ টাকায়।


‘সিম্ফনি ভি ১০৫’ : ৫ হাজার টাকার মধ্যে ‘সিম্ফনি ভি ১০৫’ অন্যতম সেরা একটি স্মার্টফোন। এতে রয়েছে ২২০০ এমএইচের শক্তিশালী লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি।


এই ফোনটি কিনলে আপনি ৯ ঘণ্টা টক টাইমের পাশাপাশি ২০০ ঘণ্টারও বেশি স্ট্যান্ডবাই টাইম উপভোগ করতে পারবেন। সহজে চালানোর জন্য এই ফোনে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ এর গো এডিশন।


৫ ইঞ্চির উজ্জ্বল ডিসপ্লের সাথে এতে আছে শক্তিশালী ডুয়েল ক্যামেরা। আর এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ১ জিবি র‌্যাম ও ৮ জিবি রম। বাজারে মাত্র ৪ হাজার ১০৫ টাকায় পাওয়া যাবে ‘সিম্ফনি ভি ১০৫’ ফোনটি।


‘মাইক্রোম্যাক্স বোল্ট কিউ ৩৮১’ : ১ জিবি র‌্যাম ও ৮ জিবি রমের এই ফোনটিতে ডুয়েল সিম ব্যবহারের সুবিধা, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ও গ্রাভিটি সেন্সরসহ রয়েছে প্রয়োজনীয় প্রায় সকল ফিচার।


এই ফোনের পেছনে ৫ মেগাপিক্সেলে এবং সামনে রয়েছে ০.৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। এর শক্তিশালী ২০০০ এমএএইচ ব্যাটারি আপনাকে দেবে ৯ ঘণ্টার টকটাইম এবং ১৮০ ঘণ্টার স্ট্যান্ডবাই টাইম। ‘মাইক্রোম্যাক্স বোল্ট কিউ ৩৮১’ মডেলের এই ফোনের মূল্য ৪ হাজার ৮৯০ টাকা।



‘এলজি অ্যারিস্টো ২’ : সাশ্রয়ী মূল্যে ভালো মানের ইলেকট্রনিক পণ্য দিয়ে বাংলাদেশে লাখো মানুষের আস্থা অর্জন করেছে এলজি করপোরেশন। এলজির অন্যান্য বাজেট স্মার্টফোনের মতো ‘এলজি অ্যারিস্টো ২’ ফোনটি সহজে বহন উপযোগী একটি ফোন এবং এর ওজন মাত্র ১৩৮ গ্রাম।


‘এলজি অ্যারিস্টো ২’ মডেলের ফোনটিতে রয়েছে ২ হাজার ৪১০ এমএএইচ সক্ষমতার ব্যাটারি, যা স্ট্যান্ডবাই মোডে আপনাকে বিশ্বের সাথে যুক্ত রাখবে টানা ১৪ দিন ৮ ঘণ্টা। আর টক টাইম সুবিধা দেবে টানা ১৭ ঘণ্টা ৫ মিনিট।


নির্বিঘ্নে চালানোর জন্য এই ফোনে রয়েছে ১ দশমিক ৪ গিগাহার্জের কোয়াড কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪২৫ চিপসেট। অ্যান্ড্রয়েড ৭.১.২ নুগাট অপারেটিং সিস্টেমে চলা এই ফোনটি বেশ সহজেই ব্যবহার করা যায়।


কম দামের মধ্যে ২ জিবি র‌্যাম ও ১৬ জিবি রম থাকায় এটি বাজারের অন্যান্য বাজেট ফোনের তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। এছাড়া আপনি চাইলে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে এর স্টোরেজ ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়াতে পারেন। বাংলাদেশের বাজারে ফোনটির দাম ৪ হাজার ৯৯০ টাকা।


‘ম্যাক্সিমাস পি৭ প্লাস’ : মান বজায় রেখে সাশ্রয়ী মূল্যে মোবাইল নির্মাতা আরেক সুপরিচিত ব্র্যান্ড ম্যাক্সিমাস। ২০১৯ সালের মে মাসে বাজারে আসে ম্যাক্সিমাস পি৭ প্লাস মোবাইল। ৫.৪৫ ইঞ্চি উজ্জ্বল ডিসপ্লের এই ফোনটির পেছনে রয়েছে উন্নত প্রযুক্তির ৫ মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।


সেলফি তোলার জন্য সামনে আছে ৫ মেগাপিক্সেলের আরও একটি ক্যামেরা। এছাড়া রয়েছে কম্প্যাস, লাইট সেন্সর ও প্রক্সিমিটি সেন্সরের মতো আধুনিক সব ফিচার।


অ্যান্ড্রয়েডের ৮.১ ওরিও গো অপারেটিং সিস্টেমের সাথে মিডিয়াটেকের শক্তিশালী চিপসেট ফোনটিকে বাজারে থাকা এই বাজেটের অন্যান্য ফোন থেকে অনেকটাই এগিয়ে রেখেছে প্রতিযোগিতায়।


ফোনটিতে রয়েছে ১ জিবি র‌্যাম ও ৮ জিবি রম। ‘ম্যাক্সিমাস পি৭ প্লাস’ ফোনের দাম ধরা হয়েছে ৪ হাজার ৯০০ টাকা।


‘মাইক্রোম্যাক্স বোল্ট কিউ ৩৮১’ : আপনি যদি সাধারণ ব্র্যান্ডের বাইরে গিয়ে অন্য কোনো স্মার্টফোন ব্যবহার করতে চান তাহলে বেছে নিতে পারেন মাইক্রোম্যাক্স। ভারতের অন্যতম ইলেক্ট্রনিক পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোম্যাক্স ইনফরমেটিকস লিমিটেড। বিশ্বের ১০ম বৃহত্তম মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে মাইক্রোম্যাক্স বাজারে নিয়ে এসেছে সাশ্রয়ী মূল্যের বেশ কিছু ফিচার ফোন, ফ্যাবলেট এবং স্মার্টফোন। ৫ হাজার টাকার মধ্যে তেমনই একটি স্মার্টফোন ‘মাইক্রোম্যাক্স বোল্ট কিউ ৩৮১’।


এখানে ৫ হাজার টাকার মধ্যে থাকা সেরা ৯টি স্মার্টফোন নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। যেসব ফোনে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও তরুণদের জন্য রয়েছে প্রয়োজনীয় প্রায় সব ফিচার।


তবে এই ফোনগুলোর দাম সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে যেকোন সময় পরিবর্তন হতে পারে। এর মধ্য থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের স্মার্টফোনটি।


বিবার্তা/গমেজ

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com