চীনের বিরুদ্ধে ‘ডিজিটাল স্ট্রাইক’ শুরু করেছে ভারত!
প্রকাশ : ৩০ জুন ২০২০, ১৬:৩৩
চীনের বিরুদ্ধে ‘ডিজিটাল স্ট্রাইক’ শুরু করেছে ভারত!
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

নিজেদের সাইবার স্পেসের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রাখতে চীনের বিরুদ্ধে ‘ডিজিটাল স্ট্রাইক’ শুরু করেছে ভারত! দেশটিতে সোমবার টিকটক, ইউসি ব্রাউজার, শেয়ার-ইট, উই-চ্যাট ও ক্যামস্ক্যানারসহ ৫৯টি মোবাইল অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়।


দেশটির তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সোমবার এই তথ্য জানিয়েছে। ভারতের সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষার জন্য হুমকিস্বরূপ হিসেবে এসব অ্যাপ বন্ধ করা হয়েছে বলে জানানো হয়।


নিষিদ্ধ (ব্যান) হওয়া অ্যাপের তালিকায় আরও রয়েছে টেনসেন্টের কিউকিউ, শাওমির এমআই কমিউনিটি এবং এমআই ভিডিও কল। এ বিষয়ে অবশ্য কোম্পানিগুলোর পক্ষ থেকে এখনই কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।


শটির তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদের দাবি, ‘ভারতের সুরক্ষা, সংহতি, নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা এবং এ দেশের সাধারণ মানুষের তথ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই আইনের ৬৯(ক) ধারায় এই সিদ্ধান্ত। লাদাখ সীমান্তে চীন-ভারত সংঘাতের আবহে এই ঘোষণা স্বাভাবিকভাবেই তাৎপর্যপূর্ণ। বিশেষত যেখানে নিষেধের তালিকায় বহুল পরিচিত চীনা অ্যাপের ছড়াছড়ি এবং শুধুমাত্র দেশীয় পণ্য কেনার কথা নিয়ম করে বলছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও।


ভারতের প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, ভারত সরকার দেশটির সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা এবং প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তার স্বার্থে এই অ্যাপগুলো নিষিদ্ধ করেছে। ভারত সরকার বলছে এই পদক্ষেপ ভারতের কোটি কোটি মোবাইল ও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর স্বার্থ রক্ষা করবে।


ভারতের সাইবার স্পেসের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রাখতে এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে পিআইবির টুইটে জানানো হয়। শোনা যাচ্ছে, প্রথমত, গুগল প্লে কিংবা অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরের থেকে নতুন করে ডাউনলোড ‘ব্লক’ করতে বলা হবে। আর দ্বিতীয়ত, ইন্টারনেট পরিষেবা সংস্থাগুলোকে বলা হবে, ওই অ্যাপগুলোর জন্য নেট না-দিতে। এই সমস্ত অ্যাপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা ভারতে অবশ্য বিপুল।


নতুন এই সিদ্ধান্ত চীনা কোম্পানির জন্য ক্ষতিই বটে। টিকটকের ক্ষেত্রে ভারত একটি বড় বাজার। দেশটিতে ২০০ মিলিয়নের অধিক টিকটক ব্যবহারকারী রয়েছেন। চলতি বছরে ৩০০ মিলিয়নের মাইলফলকে পৌঁছানোর পরিকল্পনা করেছিলো অ্যাপটির মালিকানা প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্স।


যদিও এখন পর্যন্ত ভারতে অ্যাপলের অ্যাপ স্টোর এবং গুগল প্লে স্টোরে অ্যাপগুলো পাওয়া যাচ্ছে। ফলে ঠিক কখন বা কবে থেকে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে সেটি এখনও জানা যায়নি।


সম্প্রতি অন্তত ২০ ভারতীয় সেনার মৃত্যুর ঘটনায় চীন-ভারতের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এরই ধারাবাহিকতায় চীনের সাথে সবধরণের সম্পৃক্ততা ছিন্ন করতে যাচ্ছে ভারত! তারই পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত এমনটা মনে করছেন অনেকেই।


বিবার্তা/গমেজ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com