সংলাপ এখন মামা বাড়ির আবদার: কাদের
প্রকাশ : ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৩:০৯
সংলাপ এখন মামা বাড়ির আবদার: কাদের
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকার গঠনের আগেই শেখ হাসিনা বিশ্ব নেতাদের আন্তর্জাতিকভাবে অভিনন্দন পেয়েছেন। এ নির্বাচন নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠেনি। দেশেও নির্বাচন নিয়ে কোনো বিতর্ক নেই।


তিনি বলেন, যেখানে ভোট নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই, বিতর্ক নেই, বিশ্ব উল্টো সমর্থন দিয়েছে, সেখানে সংলাপের কোনো যৌক্তিকতা কিংবা বাস্তবতা বা প্রয়োজনীয়তা এ মুহূর্তে নেই। নির্বাচন নিয়ে সংলাপের দাবি একেবারেই হাস্যকর। আমি বলবো সংলাপ এখন মামা বাড়ির আবদার, এছাড়া আর কিছু নয়।


রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউতে শনিবার বিআরটিএ’র ভ্রাম্যমাণ আদালতের (মোবাইল কোর্ট) কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।


কাদের বলেন, এবারই প্রথম সরকার গঠনের আগে গণতান্ত্রিক দেশগুলোর সমর্থন এবং শুভেচ্ছা আমাদের প্রধানমন্ত্রীর পেয়েছেন। উন্নত দেশগুলো সরকার গঠনের আগেই কিন্তু অভিনন্দন জানিয়েছে। কাজেই নির্বাচন নিয় অভিযোগ অবান্তর, কোনো যৌক্তিকতা নেই।



তিনি বলেন, নির্বাচন নিয়ে যারা আজকে অভিযোগ তুলেছেন, তারা নির্বাচনে হেরে গেছেন বলেই হেরে যাওয়ার বেদনা থেকেই এসব প্রশ্ন, এসব অভিযোগ তুলছেন এবং তাদের এই অভিযোগ ধোপে টেকে না। এটার কোনো বাস্তবতা নেই। দেশে-বিদেশে এর কোনো স্বীকৃতি নেই, জনগণ খুব খুশি।


তিনি আরো বলেন, নির্বাচন নিয়ে জনগণের কোনো প্রশ্ন নেই, প্রশ্ন আছে শুধু বিরোধী রাজনৈতিক দলের। তাদের কাছে প্রশ্ন থাকবেই। বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের চাঙা রাখতে হলে গরম কথা বলতে হবে।


আওয়ামী লীগের আগাম কাউন্সিলের সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়ে কাদের বলেন, কাউন্সিল আগে কীভাবে হবে? আগামী অক্টোবরে কাউন্সিল হবে। এর আগে কোনো কাউন্সিল হবে না।


বিআরটিএর অভিযান প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, মাঝখানে নির্বাচন থাকায় বিআরটিএর অভিযান স্থগিত ছিল। যে কারণে অনিয়ম বেড়ে গেছে। আজকে ২ ঘণ্টার মধ্যেই ৯৮ হাজার টাকা জরিমানা, আটটি গাড়ির জব্দ এবং তিনজনের জেল ও ৪২টি মামলা করা হয়েছে।



এই অভিযান নিয়মিত চলবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিআরটিএকে এই অভিযান আরো জোরদার করতে বলা হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সংখ্যা বেড়েছে, ১০ জন ম্যাজিস্ট্রেট যুক্ত হয়েছে।


তিনি আরো বলেন, এক রাতে তো আর পরিবর্তন হবে না। সামগ্রিকভাবে আমাদের মানসিকতা পরিবর্তন জরুরি।


মন্ত্রী বলেন, শুধু যে চালকের জন্য এক্সিডেন্ট হয় তা নয়, যাত্রীর জন্য, পথচারীর জন্য এক্সিডেন্ট হয়। এসব বিষয়গুলো নিয়ে সাংবাদিকদেরও ক্যাম্পেইনে আনা উচিত। সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে, তা না হলে আমরা রাস্তায় অনিয়ম বিশৃঙ্খলা দূর করতে পারব না। এই সচেতনতা গড়ে তুলতে আমি সবার সহযোগিতা চাই।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com