''কোনো অবস্থাতেই নির্বাচন বয়কট করবে না ঐক্যফ্রন্ট''
প্রকাশ : ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:২২
''কোনো অবস্থাতেই নির্বাচন বয়কট করবে না ঐক্যফ্রন্ট''
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কোনো অবস্থাতেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন বয়কট করবে না বলে জানিয়েছেন জোটের আহবায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেছেন, সরকার যতই ছলচাতুরি করুক এবং প্রহসনের নির্বাচন করার চেষ্টা করুক না কেন, এবার নির্বাচন বয়কট করা হবে না। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।


শনিবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট বার মিলনায়তনে জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।


ড. কামাল হোসেন হুঁশিয়ারি করেন, ক্ষমতায় থেকে সরকার যা কিছু করবে আর জনগণ তা মেনে নেবে, এমনটা ভাবার সুযোগ নেই। সরকার আর পার পাবে না।


তিনি বলেন, ‘দ্রুত আমরা নির্বাচন চাই। অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। আমি একদমই সবাইকে বলব, হাত জোড় করে, যে বয়কট-টয়কট একদম আমরা করব না। একবার করে আমাদের যে খেসারত দিতে হয়েছে। এটা আবার যেন কোনোদিনই না দিতে হয়। ওরা যত রকমের দশ নম্বরি করে আমরা ভোট দেব, আমরা হাজারে হাজারে গিয়ে ভোট দেব।’


সমাবেশের প্রধান বক্তা বিএনপি মহাসচিব ও ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘সরকার চেষ্টা করছে আপনাদের বারবার উসকানি দিয়ে আবার ভিন্ন খাতে যাওয়ার জন্য এবং তারা যেটা চায় বিএনপিকে সন্ত্রাসের দিকে ঠেলে দিয়ে, বিএনপিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে তারা বিএনপিকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে বিএনপিকে দূরে সরিয়ে রাখবে। শান্তিপূর্ণভাবে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দুর্বার আন্দোলনের মধ্য দিয়ে আমরা যেন আমাদের দাবিগুলো আদায় করি।’


বিএনপির মহাসচিব বলেন, ক্ষমতা নয়, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠা ও গণতন্ত্র রক্ষার জন্যই জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আন্দোলন করছে। ওইখানেই নিহিত আছে গণতন্ত্রের স্বাধীনতা। বিচার বিভাগের যদি কোনো স্বাধীনতা না থাকে তাহলে কোথাও কোনো স্বাধীনতা থাকবে না।


ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র বলেন, সরকার ইচ্ছেমতো বিচার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করছে। আমি বিচার ব্যবস্থার স্বাধীনতার জন্য আপনাদের আন্দোলন করার জন্য আহ্বান জানাব। ওইখানেই নিহিত আছে গণতন্ত্রের স্বাধীনতা। বিচার বিভাগের যদি কোনো স্বাধীনতা না থাকে তাহলে কোথাও কোনো স্বাধীনতা থাকবে না।


মির্জা ফখরুল বলেন, এই নির্বাচনে যদি গণতন্ত্রকামী মানুষ জয়ী হতে না পারে চিরতরে বিচার ব্যবস্থা চলে যাবে একটা দলের হাতে। গণতন্ত্র চলে যাবে একটা দলের হাতে সেই কথাটি আমাদের সব সময় মনে রাখতে হবে। সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, এই মানুষটি সত্য কথা বলেছেন এবং তিনি রায়ও দিয়েছেন সত্যভাবে। সেজন্য তাঁকে এই সরকার দেশ থেকে জবরদস্তি বের করে দিয়েছে। তাঁকে দেশত্যাগ করতে বলেছে।


অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ শাহজাহান ওমর, মীর নাসির, গিয়াস উদ্দিন, ব্যারিস্টার বদরোদ্দোজা বাদল, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, তৈমূর আলম খন্দকার, সানাউল্লাহ মিয়া, সৈয়দ মুয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কামরুল ইসলাম সজল, নাসরিন আক্তার প্রমুখ।



এছাড়া সমাবেশে গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দার আফ্রিক, বগুড়া আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোখলেসুর রহমান, চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির (বারের) সভাপতি নিজাম উদ্দিন চৌধুরী, আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের নির্বাচনী এলাকা থেকে সমাবেশে অংশ নেওয়া ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা আইনজীবী সমিতির (বারের) সভাপতি শফিকুল ইসলামসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা বিএনপিপন্থী আইনজীবীরাও বক্তব্য দেন।


বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনের পরিচালনায় সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (বার) সভাপতি ও আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক জয়নুল আবেদীন।


বিবার্তা/হাসান/কামরুল


আরও পড়ুন- “এসকে সিনহাকে জোর করে বিদেশ পাঠানো হয়েছে”


- ‘সন্তোষ থেকেই ভাসানীর অনুপ্রেরণার আলো ছড়াবে'

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com