''খালেদার মুক্তি আন্দোলনে জোরালো কর্মসূচি আসছে''
প্রকাশ : ২৮ আগস্ট ২০১৮, ১৪:২৯
''খালেদার মুক্তি আন্দোলনে জোরালো কর্মসূচি আসছে''
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানিয়েছেন, দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে জোরালো কর্মসূচি আসছে।


আগামী নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচন বিএনপির জন্য নয়, আওয়ামী লীগের জন্য চ্যালেঞ্জ। কারণ জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দেবে না। এ কারণে যত রকমের দুষ্টামি আছে, তা করছে সরকার।


রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। ১ সেপ্টেম্বর বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের এক যৌথসভা অনুষ্ঠিত হয়। যৌথসভায় দলের অঙ্গ-সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।


ফখরুল বলেন, বিএনপির ক্ষমতায় আসার জন্য নয়, মানুষের অধিকার ও গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করবার জন্য এই নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন। এ নির্বাচনে যদি আজকে এমন দেখা যায় যে বিএনপি নির্বাচনে গেলো না, সে নির্বাচন কখনোই গ্রহণযোগ্য হবে না, কোনো দিন হতে পারে না। সুতরাং নির্বাচনটাকে গ্রহণযোগ্য করার জন্য, নির্বাচনকে অর্থবহ করার জন্য সরকারের সবচেয়ে বড় দায়িত্ব রয়েছে, সেই সঙ্গে গণমাধ্যম, সুশীল সমাজ সকলের দায়িত্ব রয়েছে।


তিনি বলেন, খালেদা জিয়া উড়ে এসে রাজনীতিতে বসেননি। ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে জিয়াউর রহমানকে হত্যা করার পর অনেকে ভেবেছিল বিএনপি শেষ, ভেঙে যাবে। কিন্তু তখন খালেদা জিয়া জাতীয়তাবাদী পতাকা হাতে দীর্ঘ ৯ বছর স্বৈরাচার এরশাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে সংসদীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছেন।


খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন কোনো কর্মসূচি নেয়া হচ্ছে না, সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের বিষয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের প্রতিদিন কোনো না কোনো কর্মসূচি থাকে, আবারো কর্মসূচি আসছে, সময় মতো জোড়ালো কর্মসূচি আসছে। ঠিক সময়ে জানতে পারবেন কেমন কর্মসূচি আসছে।


সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, গণমাধ্যমের ওপরে আমাদের প্রচণ্ড আস্থা আছে। কিন্তু গণমাধ্যম কী তাদের সঠিক দায়িত্ব পালন করছেন? তারা এমন সব রিপোর্ট করছেন, নিউজ দিচ্ছেন, যা বিভ্রান্ত তৈরি করছে, যেগুলো সঠিক নয় সেগুলো আপনারা বলছেন।


তবে এ সময় গণমাধ্যমের প্রতি কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, দুর্ভাগ্য আমাদের। গতকাল আমরা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে কথা বলেছি। দু-একটি পত্রিকা ছাড়া কেউ আগ্রহ দেখায়নি। আমরা জানি, গণমাধ্যমকে পেছন থেকে আটকে দেয়া হয়েছে। জনগণ এগুলো মনে রাখছে।


বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী দলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচির বিষয়ে বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী ১ সেপ্টেম্বর সকাল ৬টায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারা দেশের দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। একই দিন বেলা ১১টায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে ফাতেহা পাঠ ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন দলের নেতা-কর্মীরা।



তিনি বলেন, ওই দিন বেলা ৩টায় জনসভার জন্য আবেদন করা হয়েছে। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অথবা নয়াপল্টনে জনসভা অনুষ্ঠানের জন্য আবেদন করা হয়েছে। এছাড়া আগামী ২ সেপ্টেম্বর বেলা ৩টায় রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।


সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, ছাত্রদলের সহ-সভাপতি নাজমুল হাসান প্রমুখ।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com