‘বঙ্গবন্ধু হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন জিয়া’
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৮, ১৪:৫১
‘বঙ্গবন্ধু হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন জিয়া’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী হচ্ছেন ‘খুনি’ জিয়াউর রহমান।


ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ের সাগর-রুনী মিলনায়তনে সোমবার দুপুরে ‘১৯৭৫-২০১৮: রাজনৈতিক বাস্তবতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন মন্তব্য করেন তিনি। জাতীয় শোক দিবস ২০১৮ উপলক্ষ্যে আয়োজিত ওই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিবি ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান বাহাদুর বেপারী।


হানিফ বলেন, জিয়াউর রহমানের মুখোশ উন্মোচিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে আন্তর্জাতিক যে চক্র ছিল, সেই চক্রের সঙ্গে মূল চক্রান্তকারী হিসেবে বাংলাদেশে ছিল খুনি জিয়াউর রহমান। তিনি (জিয়া) তখন সামরিক বাহিনীর উপপ্রধান হিসেবে সমস্ত কলকাঠি নেড়েছেন।


জিয়াউর রহমানকে পাকিস্তানের এজেন্ট উল্লেখ করে তিনি বলেন, খুনি জিয়ার মরনোত্তর বিচার হওয়া প্রয়োজন। উনি (জিয়া) পাকিস্তানের এজেন্ট হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। কারণ যুদ্ধচলাকালে জিয়ার স্ত্রী-সন্তানরা পাকিস্তানী সেনার হেফাজতে থেকে আরাম-আয়েশ করেছিল।


৭৫’এর দালাল আইন বাতিল করে পাকিস্তান থেকে জামায়াতকে এনেছিলেন জিয়াউর রহমান এমন মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের ওই নেতা বলেন, জিয়ার কারণেই জামায়াত বাংলাদেশে রাজনীতি করার সুযোগ পেয়েছে। এর মূল নৈপথ্যে ছিল জিয়াউর রহমান।


সুশীলদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, সুশীল-কুশীলরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করে অশুভ শক্তিকে ক্ষমতায় আনতে চায়। এই সুযোগ কখনো দেয়া হবে না। কারণ আপনাদের বেঈমানী ও মুনাফিক স্বপ্ন কখনোই পূরণ হবে না।


৭১’এর পরাজিত শক্তি এখনো তৎপর জানিয়ে হানিফ বলেন, তাদের বিরুদ্ধে সজাগ থাকতে হবে। যুদ্ধাপরাধীর বিচার শুরু হওয়ার পর থেকেই তারা দেশকে অস্থিতিশীল করতে চাচ্ছে। এটা এখনো অব্যাহত।


বিএনপির বার বার আন্দোলনের ডাক দিয়ে ব্যর্থ হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোটা সংস্কারের নামে তারা দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করেছে। সব শেষে কোমলমতী শিশুদের আন্দোলনকে কেন্দ্র করেও তারা তৎপর হয়ে উঠে। তবে ওই চেষ্টাও তাদের ব্যর্থ হয়েছে।


কেউই আইনের উর্ধ্বে নয় জানিয়ে আওয়ামী লীগের ওই নেতা বলেন, যে বা যারা ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত করছেন তাদের আইনের আওয়তায় আনা হবে।


বিবি ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান তপনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সাংবাদিক রাহাত খান, ঢাকা রিপোর্টার ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শুকুর আলী শুভ, বর্তমান সংলাপ পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক শাহ ড. আলা উদ্দিন, বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ সমিতির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহিউদ্দিন মাহি প্রমুখ।


বিবার্তা/খলিল/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com