‘বিএনপি নামক বিষবৃক্ষ দিয়ে গণতন্ত্র চলতে পারে না’
প্রকাশ : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২২:২৫
‘বিএনপি নামক বিষবৃক্ষ দিয়ে গণতন্ত্র চলতে পারে না’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বিএনপিকে রাজনীতির বিষবৃক্ষ উল্লেখ করে বলেছেন, গণতন্ত্র ও উন্নয়নের স্বার্থে এ বিষবৃক্ষকে রাজনীতির বাইরে রাখতে হবে।


রবিবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণ সম্পর্কে আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।


ইনু বলেন, বিএনপি হলো রাজনীতির বিষবৃক্ষ। জামায়াত-জঙ্গি হচ্ছে সেই বিষবৃক্ষের ডালপালা। এখন সিদ্ধান্ত নিতে হবে ওই বিষবৃক্ষ উপড়ে ফেলে দিবেন, না ডালপালা কেটে গাছটাকে টিকিয়ে রাখবেন। বিষবৃক্ষ দিয়ে গণতন্ত্রের বাগান সাজানো যায় না। বিএনপি নামক বিষবৃক্ষ দিয়ে গণতন্ত্র চলতে পারে না। কাউকে নির্বাচনের বাইরে রাখা হচ্ছে না। কাউকে জোর করে সাজাও দেয়া হয়নি। বিএনপি বিগত ৯ বছরে ইচ্ছা মতো নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। নির্বাচনের দরজা অপরাধী ছাড়া সবার জন্য উন্মুক্ত।


তথ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও জঙ্গিবাদ থেকে সরে আসার শপথ করেনি, অতীতের অপরাধের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেনি।


নির্বাচন দরকষাকষির বিষয় না উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, অন্তর্ভুক্তিমূলক নির্বাচন সকল দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে দেয়। কিন্তু এই অন্তর্ভুক্তিমূলক নির্বাচনের নামে হত্যা-খুনের আসামি, দুর্নীতিবাজ, জঙ্গি, সন্ত্রাসী নেতানেত্রী বা ব্যক্তিকে হালাল করে না। যদি গণতন্ত্র চান, তাহলে রাজনীতির বিষবৃক্ষ বিএনপিকে বর্জন করতে হবে। রাজাকার, জঙ্গি, জামায়াতকে নির্বাচনের বাইরে রাখতে হবে।


মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের পথে রাখতে হলে, কোনো অস্বাভাবিক সরকার দেখতে না চাইলে, কোনো দরকষাকষির সুযোগ না দিয়ে, অন্তর্ভুক্তির নামে অপরাধীদের ছাড় না দিয়ে চলমান জঙ্গি দমনের অভিযান অব্যাহত রাখতে হবে এবং দুর্নীতির বিচার অব্যাহত রাখতে হবে। সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন করতে হবে। উন্নয়ন, শান্তি ও অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখতে হবে এবং রাজনীতির বিষবৃক্ষ বিএনপিকে ক্ষমতা ও রাজনীতির বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নিতে হবে। দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হলে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে জাতীয় ঐক্য গড়ে উঠেছে সেই ঐক্যকে ধারণ করতে হবে।


এসময় তিনি বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরে বলেন, সংবিধানের প্রতি আনুগত্য থেকে প্রধানমন্ত্রী সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে মনোনিবেশ করেছেন বলেই এখন দেশের প্রবৃদ্ধি ৭.২৮ এ পৌঁছেছে। সরকার উন্নয়নের পাশাপাশি গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। সরকার গঠন করে প্রথম সংসদের প্রথম অধিবেশনেই তথ্য অধিকার আইন প্রণয়ন করেছে। বেসরকারি খাতে টেলিভিশন লাইসেন্স প্রদানসহ এফএম রেডিও, কমিউনিটি রেডিও অনুমোদন দেয়া হয়েছে।


বিবার্তা/তৌহিদ/সোহান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com