খালেদার সাজা ও আওয়ামী লীগের অবস্থান
প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:২৪
খালেদার সাজা ও আওয়ামী লীগের অবস্থান
তৌফিক ওরিন
প্রিন্ট অ-অ+

দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডকে কেন্দ্র করে দেশের ভেতরে-বাইরে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। এর ফলে দেশের রাজনৈতিক সমীকরণ জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে। নির্বাচনী বছরে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিএনপি উভয় দলই খালেদা জিয়ার দণ্ডকে পুঁজি করে ভোটের রাজনীতিতে লাভবান হতে চায়।


রাজনৈতিক অঙ্কের জটিল খেলায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিএনপি উভয় দল হিসাব মেলাতে ব্যস্ত। পান থেকে চুন খসলেই আগামী জাতীয় নির্বাচনে কতটুকু বিরূপ প্রভাব পড়বে সেটা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন তারা। তাই উভয় দলই খুব সতর্কভাবে রাজনীতির দাবার কোটে নিজেদের ঘুঁটির চাল দিচ্ছে।


এদিকে বিএনপি নেতারা খালেদা জিয়ার দণ্ডকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত বলে ইতোমধ্যে বক্তব্য, বিবৃতি দেয়া শুরু করেছেন। আগামী জাতীয় নির্বাচনে রাজনৈতিক সংকটের শঙ্কার কথা মানুষকে জানানোর পাশাপাশি অহিংস আন্দোলন পালন করছেন তারা। তবে ক্ষমতাসীন আওযামী লীগ এই রায়ের মাধ্যমে বিএনপিকে রাজনৈতিকভাবে ফায়দা হাসিলের কোনো ধরণের সুযোগ দেবে না। আওয়ামী লীগ নেতারা খালেদার দুর্নীতির দণ্ড ও আওয়ামী লীগের অবস্থান পরিষ্কার ব্যাখ্যা করে যাচ্ছেন।


তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা মামলা, মামলার রায় ও দণ্ড নিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বিবার্তাকে বলেন, এই রায় নিয়ে আমাদের কথা বলার কোনো কারণ নেই। কারণ, মামলা হয়েছে তত্ত্বাবধয়ক সরকারের আমলে, আর সেই মামলার রায় দিয়েছে আদালত। বিএনপি ওই মামলা ও রায়ের সাথে রাজনীতির সংশ্লিষ্টতা খোঁজার চেষ্টা করছে। তবে আমি এর কোনো কারণ দেখি না। আমি মনে করি, খালেদা জিয়ার দুর্নীতির মামলা বিচারের মাধ্যমে দেশে আইনের শাসনের ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে।


খালেদার সাজার ফলে দেশে রাজনৈতিক সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে বিএনপির এমন দাবিরও শক্ত জবাব দেন আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক। এ বিষয়ে তিনি বলেন, দেশের রাজনীতিতে বর্তমানে কোনো সঙ্কট নেই। সঙ্কট সৃষ্টির আশঙ্কা যদি থাকে সেটি বিএনপির মধ্যে। কারণ, বিএনপির একটি বড় অংশ তাদের দুর্নীতিবাজ নেতৃত্বকে প্রত্যাখ্যান করতে চাইছে।


বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দণ্ডের সাথে আওয়ামী লীগ সরকারের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের আরেক সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।


তিনি বিবার্তাকে বলেন, দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী আদালত খালেদা জিয়ার সাজা হয়েছে। এ সাজা হয়েছে দুর্নীতির অপরাধে। এ রায়ে কোনো রাজনৈতিক স্বার্থ নেই। দণ্ডের কারণে রাজনৈতিক সঙ্কটেরও কোনো সুযোগ নেই। বরং দিন দিন রাজনীতি পরিশুদ্ধ হচ্ছে।


এদিকে জাতীয় রাজনীতিতে চলছে নির্বাচনী মৌসুম। নির্বাচনের বছরে এ রায়কে ঘিরে ভোটের রাজনীতিতে নিজেদের ঘরে সুফল বয়ে আনতে চায় ক্ষমতাসীনরা।


অন্যদিকে বিএনপির শীর্ষ দুই নেতা- খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান উভয়েই দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত হয়েছেন। তাই আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ভেতর থেকেও দুর্নীতিবাজদের প্রত্যাখ্যানের ডাক দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।


বিবার্তা/ওরিন/মৌসুমী/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com