জীবিত থাকলে শেখ কামালও একজন ক্যারিসমেটিক নেতা হতেন: কৃষিমন্ত্রী
প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০২২, ২০:৪২
জীবিত থাকলে শেখ কামালও একজন ক্যারিসমেটিক নেতা হতেন: কৃষিমন্ত্রী
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

জীবিত থাকলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র শেখ কামালও একজন ক্যারিসমেটিক নেতা হতে পারতেন বলে মন্তব্য করেছেন কৃষি মন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক।


শুক্রবার (৫ আগস্ট) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে বিকেল ৪টায় শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির আয়োজনে ‘শেখ কামাল: বহুমাত্রিক অনন্য প্রতিভাবান সংগঠক’ শীর্ষক এক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন কৃষিমন্ত্রী।


কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমরা অনেক সময় চিন্তা করি দেশে নেতৃত্বের অনেক অভাব ৷ কে শেখ হাসিনার জায়গা নেবে? আজকে যদি শেখ কামাল বেঁচে থাকতো তাহলে সে বাংলাদেশের একজন নেতা হতে পারতো। বঙ্গবন্ধুকে যেমন বলতো ক্যারিসমেটিক লিডার, শেখ কামালও বঙ্গবন্ধুর মতো বাংলাদেশে একজন ক্যারিসমেটিক লিডার হতে পারতো। এই সাড়ে ১৬ কোটি মানুষের নেতৃত্বের দায়িত্ব সে নিতে পারতো।


সভাপতির বক্তব্যে ড. খন্দকার বজলুল হক বলেন, আমরা অনেকে বিদ্যুৎসাহী হই নিজে বিদ্বান না হই। অনেকে সংস্কৃতিকে ভালোবাসি কিন্তু নিজের সংস্কৃতিকে চর্চা করি না। কেউ কেউ খেলতে পছন্দ করি, আবার কেউ খেলা দেখতে পছন্দ করি। শেখ কামাল এমন একজন ছিলেন যিনি সবকিছু কাজ নিজে করতেন এবং অন্যকে তা করতে উৎসাহিত করতেন। এক্ষেত্রে তিনি অন্যান্যদের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা।


তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর আজকের এই টিএসসিতে আসার কথা ছিলো। সেটিকে ঘিরে এখানে অনেক আয়োজন চলছিল আর তাতে আমার কাজ করার সৌভাগ্য হয়েছিলো। সেদিন শেখ কামালও এখানে রাত ২টা পর্যন্ত কাজ করেছেন ৷ এদিন রাত ৩টা কি ৪টার সময় ঘাতকরা নির্মম সেই হত্যকাণ্ড ঘটিয়েছিলো। যদি শেখ কামাল সেদিন আরো কিছুক্ষণ এখানে থাকতো তার জীবনটা বেঁচে যেত। এই স্মৃতি আমি কোনোদিন ভুলতে পারিনা। আজ তাকে নিয়ে অনেক মিথ্যাচার হচ্ছে। দেশের রাষ্ট্রপতির ছেলের যদি টাকা লাগতো ব্যাংক তার কাছে আসতো, সে নয়। দুর্ভাগ্যজনকভাবে এমন ভিত্তিহীন এবং যুক্তিহীন মিথ্যাচার শেখ কামালকে ঘিরে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।


বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।


এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মশিউর রহমান, রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও কলাম লেখক সুভাষ সিংহ রায়। আলোচনা সভায় সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন।


বিবার্তা/সাইদুল/এসএফ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com