কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অমান্য করে ছাত্রদলের ১১ নেতাকে শোকজ
প্রকাশ : ৩০ জুন ২০২২, ১৬:৩৪
কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অমান্য করে ছাত্রদলের ১১ নেতাকে শোকজ
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অমান্য করে ১১ জন নেতাকে বেআইনীভাবে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে যশোর জেলা ছাত্রদল।


কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র বিবার্তাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


সূত্রটি জানায়, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের নির্দেশনা মতো বন্যার্তদের সহযোগিতায় অনুদানের টাকা জমা দেয়ার কারণে, জেলা ছাত্রদল স্বৈরাচারী এবং অসাংগঠনিক সিদ্ধান্তের মাধ্যমে মনিরামপুর উপজেলা এবং মনিরামপুর পৌর ছাত্রদলের আহবায়ককে শোকজ নোটিশ দিয়েছে।


'যেখানে কেন্দ্রীয় সংসদের নির্দেশনা ছিল যার যতটুকু সামর্থ্য আছে, সেই সামর্থ্য অনুযায়ী কেন্দ্রীয় সংসদের কাছেই অনুদান পৌঁছে দিতে হবে।'


নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক শোকজপ্রাপ্ত এক নেতা বিবার্তাকে বলেন, মনিরামপুর উপজেলা ও পৌর ছাত্রদলের নেতা কর্মীদের মুখে মুখে একটা প্রশ্ন ঘুরে বেড়াচ্ছে যশোর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং সাংগঠনিক সম্পাদক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এবং কেন্দ্রীয় সংসদ থেকে কি শক্তিশালী কি?


তিনি জানান, যশোর জেলা ছাত্রদলের বিরুদ্ধে অনেক অসাংগঠনিক এবং স্বৈরাচারী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার পরেও কোন শাস্তিমূলক সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করায় যশোর কমিটির নিজেদেরকে কেন্দ্রীয় সংসদ থেকে শক্তিশালী দাবি করে নেতা কর্মীদের কাছে।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক যশোর জেলা ছাত্রদলের শোকজপ্রাপ্ত আরেক নেতা বিবার্তাকে বলেন, যশোর জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক ভিত্তি মজবুত এবং শক্তিশালী করার জন্য জেলা কমিটির বিরুদ্ধে চরম সাংগঠনিক শাস্তি নিশ্চিত করে কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি গঠনের মাধ্যমে জেলা ছাত্রদলকে স্বতন্ত্র সংগঠনের মর্যাদা দেয়ার জন্য সংগঠনটির তৃণমূলের নেতা কর্মীরা দাবি জানাচ্ছেন।


এদিকে ৩০ জুন যশোর জেলা ছাত্রদলের দপ্তর থেকে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়, কোনো ধরনের অবহিতকরণ ছাড়াই বন্যার্তদের সহায়তায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী গৃহীত যশোর জেলা ছাত্রদলের ত্রাণ তহবিলে আর্থিক সহায়তা করা থেকে ১১ জন বিরত থেকেছেন। যেটা স্পষ্টত সাংগঠনিক শৃংখলা লঙ্ঘন। যার পরিপেক্ষিতে বিভিন্ন ইউনিটের ১১ জন ছাত্রনেতাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।


যে ১১ জন নেতাকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে তারা হলেন: মনিরামপুর উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক ওলিয়ার রহমান, মনিরামপুর পৌর ছাত্রদলেরর আহবায়ক কামরুজ্জামান, সদস্য সচিব এনামুল কাদির, অভয়নগর উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক নাইম উদ্দিন বিজয়, সদস্য সচিব তকিবুর রহমান, সদস্য সচিব, নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রদলের সদস্য সচিব মো. ফয়সাল, নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রদলের আহবায়ক আসাদুজ্জামান ইমন, বাঘারপাড়া উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক নাফিস ইকবাল ঈসা, সদস্য সচিব পারভেজ রহমান, বাঘারপাড়া পৌর ছাত্রদলের আবায়ক রফিকুল ইসলাম এবং সদস্য সচিব হৃদয় তারেক।


চিঠিতে বলা হয়, এই ১১ জন নেতাকে আগামী দুই দিনের মধ্যে যশোর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. রাজিদুর রহমান সাগর ও সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান বাপ্পির নিকট স্ব শরীরে উপস্থিত হয়ে কারণ দর্শানোর জন্য সংগঠনের পক্ষ থেকে নির্দেশ দিয়েছেন জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহ নেওয়াজ ইমরান।


অন্যদিকে মনিরামপুর উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক মো. ওলিয়ার রহমানের পৃথক আরেক চিঠিতে কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে যশোর জেলা ছাত্রদল।


গতকাল (২৯ জুন) যশোর জেলা ছাত্রদলের দপ্তর থেকে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়, আপনি আমাদেরকে কোনো ধরনের অবহিতকরণ ছাড়াই বন্যার্তদের সহায়তায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দীয় নির্দেশনা অনুযায়ী গৃহীত যশোর জেলা ছাত্রদলের ভ্রাণ তহবিলে আর্থিক সহায়তা করা থেকে বিরত থেকেছেন। যেটা স্পষ্টত সাংগঠনিক শৃংখলা লঙ্ঘন।


চিঠিতে ওলিয়ার রহমানকে বলা হয়, আপনার বিরুদ্ধে অনতিবিলম্বে কেনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা আগামী ৩ দিনের মধ্য যশোর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. রাজিদুর রহমান সাগর ও সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান বাপ্পির কাছে স্ব শরীরে উপস্থিত হয়ে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহ নেওয়াজ ইমরান।


এদিকে মনিরামপুর পৌর ছাত্রদলের আহবায়ক কামরুজ্জামানে কাছে অন্য আরেক চিঠিতে কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে যশোর জেলা ছাত্রদল।


গতকাল (২৯ জুন) যশোর জেলা ছাত্রদলের দপ্তর থেকে চিঠিতে বলায় হয়, আপনি আমাদেরকে কোনো ধরনের অবহিতকরণ ছাড়াই বন্যার্তদের সহায়তায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী গৃহীত যশোর জেলা ছাত্রদলের ত্রাণ তহবিলে আর্থিক সহায়তা করা থেকে বিরত থেকেছেন। যেটা স্পষ্টত সাংগঠনিক শৃংখলা লঙ্ঘন।


চিঠিতে কামরুজ্জামানকে বলা হয়, আপনার বিরুদ্ধে অনতিবিলম্বে কেনো সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা আগামী ৩ দিনের মধ্য যশোর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. রাজিদুর রহমান সাগর ও সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান বাপ্পির নিকট স্ব শরীরে উপস্থিত হয়ে কারণ দর্শানোর নির্দেশ প্রদান করেছেন সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহ নেওয়াজ ইমরান।


বিবার্তা/কিরণ/এমবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com