আ.লীগ ও বিএনপি নির্বাচন কমিশনকে রাবার স্ট্যাম্প বানিয়েছে: জিএম কাদের
প্রকাশ : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:০৫
আ.লীগ ও বিএনপি নির্বাচন কমিশনকে রাবার স্ট্যাম্প বানিয়েছে: জিএম কাদের
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নির্বাচন কমিশনকে রাবার স্ট্যাম্প বানিয়েছে। সাধারণ মানুষ যদি সঠিকভাবে প্রতিনিধি নির্বাচন করতে না পারে তাহলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয় না, জবাবদিহিতা থাকে না। দেশের মানুষ চায় একদিনের জন্য হলেও ভোটের মাধ্যমে তার প্রতিনিধি নির্বাচন করবে।


শনিবার (১৫ জানুয়ারি) জাপার বনানী কার্যালয়ে সুপ্রিম কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবি মো. নজরুল ইসলাম খানের জাপায় যোগদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


জিএম কাদের বলেন, ১৯৯১ সালের পর থেকে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি বারবার রাষ্ট্র ক্ষমতায় গিয়ে প্রথমে ভোটার বিহীন নির্বাচন, পরে খুনোখুনির নির্বাচন এখন হচ্ছে ফলাফল পরিবর্তনের নির্বাচন কায়েম করেছে। মানুষ ভোট দেয় একজনকে, ফলাফলে ঘোষণা হয় অন্যজনের নাম। মামলা করলে ৫ বছরে মামলার রেজাল্ট আসে না, কিন্তু মেয়াদ শেষ হয়ে যায়।


তিনি বলেন, রাবার স্ট্যাম্প নির্বাচন কমিশন হলে কেউ আর নির্বাচনে যাবে না, রাজনৈতিন দল থাকবে না, দেশে রাজনীতিও থাকবে না। নির্বাচন নিয়ে জনগণের আস্থা তলানিতে পৌঁছেছে। চলমান নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের জন্য মরিয়া হয়ে উঠছে একদল, আবার নৌকার সমর্থকরাই নৌকা ডুবিয়ে দিচ্ছে।


গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেন, পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ পদত্যাগ করার পর আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতৃত্বে দেশে স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে আর গণতন্ত্র নিপাত গেছে।


তিনি বলেন, একটি দল রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসে দেশকে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন করেছে পরবর্তীতে অন্যদলটি রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসে পরপর চারবার দেশকে দুর্নীতিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করেছে। আবার একটি দল বিচার বর্হিভূত হত্যাকাণ্ড শুরু করেছে, অন্যদলটি বিচার বর্হিভূত হত্যাকাণ্ডে দেশকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করেছে। একটি দল ভোট ডাকাতি শুরু করেছে, অন্যদল ক্ষমতায় এসে নির্বাচন কমিশনকে রাবার স্ট্যাম্প বানিয়েছে। এমন একটি দেশের জন্য মুক্তিযুদ্ধ হয়নি, এমন দেশের জন্য বীর শহীদরা জীবন দেয়নি, এমন দেশের জন্য মা-বোনেরা সম্ভ্রম দেয়নি। দেশের মানুষ এমন পরিস্থিতি থেকে মুক্তি চায়।


যোগদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট সংবিধান বিশেষজ্ঞ ও জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম বলেন, দ্বাদশ সংশোধনীর মাধ্যমে সাংবিধানিক স্বৈরতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। জনগণ সংবিধান সংশোধন করে সাংবিধানিক স্বৈরতন্ত্র পরিবর্তন করে গণতন্ত্রে পৌছতে চায়।


ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাপার সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম রুবেলের সভাপতিত্বে যোগদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এডভোকেট শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, যোগদানকারী এডভোকেট মোঃ নজরুল ইসলাম খান।


উপস্থিত ছিলেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আব্দুস সবুর আসুদ, নাজমা আখতার এমপি, ভাইস চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম শরু চৌধুরী, যুগ্ম-মহাসচিব ফকরুল আহসান শাহজাদা, ইকবাল হোসেন তাপস, মোঃ বেলাল হোসেন প্রমুখ।


বিবার্তা/জাহিদ বিপ্লব/আশিক

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com