রাজাকারপুত্রকে নৌকার মনোনয়ন, বাতিল চান বীর মুক্তিযোদ্ধারা
প্রকাশ : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৫৭
রাজাকারপুত্রকে নৌকার মনোনয়ন, বাতিল চান বীর মুক্তিযোদ্ধারা
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

খুলনার তেরখাদা উপজেলার ৫নং তেরখাদা সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছেন রাজাকারপুত্র এফএম অহিদুজ্জামান। প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দেয়ায় আওয়ামী লীগের পদ থেকে বহিষ্কৃত ও রাজাকার সন্তান অহিদুজ্জামানের মনোনয়ন বাতিলের দাবি জানিয়েছেন উপজেলার ৫৮ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান।


জানা যায়, গত ২২ অক্টোবর আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত কাগজে ইউপি চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য এফএম অহিদুজ্জামানকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেয়া হয়। এরপর তেরখাদা উপজেলার ২৮ বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং ৩০ জন শহীদবীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বরাবর এফএম অহিদুজ্জামানের নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন বাতিলের লিখিত আবেদন জানান।


আবেদনে বলা হয়, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে খুলনার তেরখাদা উপজেলার ৫নং তেরখাদা সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে এফএম অহিদুজ্জামানকে। যার পিতা ভাষা ফকির ওরফে বাশার ফকির একজন যুদ্ধাপরাধী তালিকাভুক্ত রাজাকার। তার পিতা ছাড়াও দাদা, দুই চাচা মামাসহ ঘনিষ্ট আত্মীয়রা তৎকালীন থানা শান্তি কমিটির সদস্য ও রাজাকার ছিলো। আমরা অনেকেই সেই সময়ের প্রত্যক্ষ সাক্ষী।


আবেদনে তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর ডাকে ১৯৭১ সালে আমরা জীবনবাজি রেখে দেশ স্বাধীন করেছি। রাজাকার আল বদররা শত্রুদের দালাল হয়ে দেশে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে। আজ স্বাধীনতার এত বছর পর বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় পুনরায় তারা জেকে বসেছে। বীর মুক্তিযোদ্ধা হয়ে এ পরিস্থিতি মেনে নিতে আমাদের কষ্ট হয়।


জানা যায়, জেলা থেকে কেন্দ্রে পাঠানো মনোনয়ন তালিকায় নাম ছিলো না এফএম অহিদুজ্জামানের। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জড়িয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দেয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ থেকে বহিষ্কারও হয়েছিলেন। তবে সবকিছুর পরে অদৃশ্য ক্ষমতাবলে তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে খুলনার তেরখাদা উপজেলার সদর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে নির্বাচনের মনোনয়ন পেয়ে যান তিনি।


২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো মাদক ব্যবসায়ী ও পৃষ্ঠপোষকদের তালিকায় খুলনা জেলা ও মহানগরীর চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী পৃষ্টপোষকদের তালিকায়ও নাম ছিলো এফএম অহিদুজ্জামানের। প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দেয়া এফএম অহিদুজ্জামানের নাম বর্তমানেও বহিষ্কারের খাতায় রয়েছে।


অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ৫নং তেরখাদা সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এফএম অহিদুজ্জামান বিবার্তাকে বলেন, এসব অভিযোগ অসত্য।


তেরখাদা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমাণ্ডের সাবেক ডেপুটি কমাণ্ডার বোরহান উদ্দিন বিবার্তাকে বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য রাজাকার সন্তানকে মনোনয়ন দেয়ায় আমরা প্রতিবাদ করেছি। দেশের অন্যান্য জায়গায় যাতে রাজাকার সন্তানদের নৌকা প্রতীক না দেয়া হয় এজন্যও আমরা নিয়মিত প্রতিবাদ করছি।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা যুবলীগের সদস্য ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ড তেরখাদা উপজেলার সাধারণ সম্পাদক শেখ শামীম হাসান বিবার্তাকে বলেন, রাজাকার সন্তান নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছে। অথচ মুক্তিযোদ্ধারা জীবনবাজি রেখে দেশ স্বাধীন করেছেন। যাদের পিতা দেশের জন্য রক্ত দিয়েছেন, যারা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান তাদেরকে নৌকা প্রতীকের মনোনয়নে অগ্রাধিকার দেয়া দরকার।


বিবার্তা/সোহেল/আরকে

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com