‘জিয়ার বিরুদ্ধে কোনো অপপ্রচারই জনগণকে বিভ্রান্ত করতে পারেনি’
প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:১৫
‘জিয়ার বিরুদ্ধে কোনো অপপ্রচারই জনগণকে বিভ্রান্ত করতে পারেনি’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে কোনো অপপ্রচারই জনগণকে বিভ্রান্ত করতে পারেনি উল্লেখ করে ‘অপপ্রচারকারীদের রেহাই নেই’ বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।


শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।


কতিপয় অর্বাচীন অসুস্থ লোক ইতিহাস বিকৃত করার প্রক্রিয়ায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে খাটো করার অপচেষ্টায় নিরন্তর কাজ করছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।


রিজভী বলেছেন, মান্নান হীরা নামে এক ব্যক্তি নিজেকে আওয়ামী লীগের নেকনজর পাওয়ার জন্য ‘ইনডেমনিটি’ নামে তথাকথিত একটি বিকৃত ইতিহাসের চটি নাটক লিখে ‘জয় বাংলা’ ব্যানারে বা তাদের সাংস্কৃতিক জোটের নামে গত এক বছর যাবত সারাদেশে মঞ্চায়ন করে বেড়াচ্ছে। তারা নতুন প্রজন্মের সামনে সম্পূর্ণ মিথ্যা এক বিকৃত ইতিহাস দাঁড় করানোর হীন প্রচেষ্টা তুলে ধরেছে এ নাটকের কল্পিত গল্পে। পাশাপাশি দেখানো হয়েছে, জিয়াউর রহমানের নির্দেশে নাকি ১৯৭৫ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর খন্দকার মোশতাক ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি করেছিলেন। এ নাটকে খুনি ও খল চরিত্র এমনভাবে সাজানো হয়েছে যাতে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগে। এ নাটক নির্মাতাদের কতো বড় স্পর্ধা যে, এদেশের কোটি কোটি মানুষের প্রাণপ্রিয় নেতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে নিয়ে ‘অসত্য ইতিহাস’ রচনা করে তা নাটক আকারে বিকৃতভাবে মঞ্চস্থ করছে।


রিজভী বলেন, এই কথিত পথনাটকটি ২৬ সেপ্টেম্বর নিশিরাতের এক সংসদ সদস্যের মালিকানাধীন টিভিতে প্রচার করা হবে বলে আমরা জানতে পেরেছি। আমরা তাদের সাবধান করে দিতে চাই, এ ইতিহাস বিকৃতি ও তথ্যসন্ত্রাসমূলক নাটক প্রচারের অপচেষ্টা চালিয়ে গণশত্রু হবেন না। এই নাটকের রচয়িতা, পরিচালক, নির্দেশক, অভিনেতা-কলাকুশলীদের জনগণ মনে রাখবে। এই অর্বাচীনরা হলো গণতন্ত্রকে কবর দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার নামে ব্যবসা করা ফড়িয়া ও দালালদের সহযোগী। এরা হলো বর্তমান নিষ্ঠুর নাৎসি আওয়ামী লীগের সহযোগী, যাদের পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষক বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমানকে ধারণ করার সাহস ও শক্তি নেই।


তিনি বলেন, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় সংগঠিত এই ষড়যন্ত্রকে জনগণ শুধু ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যানই করছে না, স্বাধীনতার ঘোষক ও রণাঙ্গনের বীর সেক্টর কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা শহীদ জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও তার চরিত্র হননের অপপ্রয়াসের জন্য আপামর জনগণ দারুণভাবে ক্ষুব্ধ ও মর্মাহত। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে অপমান করা মানেই রণাঙ্গনের সকল মুক্তিযোদ্ধাকে অপমান করা। এই দিন দিন না, আরও দিন আছে। দেশের জনগণই এর উপযুক্ত জবাব দেবে। বিকারগ্রস্ত মানসিকতার এই ‘ইনডেমনিটি’র নামে চরিত্রহননকারী নাটকের নির্মাতাদের এহেন কর্মকাণ্ডে আমি তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি। এটির সাথে যারা জড়িত কিংবা প্রচার করবেন জনগণ তাদের ক্ষমা করবে না।


তিনি আরো বলেন, মনগড়া কোনও ইতিহাস মানুষের কাছে টিকে থাকে না। যারা মিথ্যা ইতিহাস লিখেছে তারাও ইতিহাসের খলনায়ক। নবাব সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে চক্রান্তমূলক ‘অন্ধকূপ হত্যা’র অভিযোগে তার চরিত্র হনন করার চেষ্টা করা হয়েছিল, কিন্তু জনগণের কাছে সেটি বিশ্বাসযোগ্য হয়নি। ইতিহাসে নবাব সিরাজই মহানায়ক। আর যারা মিথ্যা ইতিহাস রচনা ও ষড়যন্ত্র করেছিল তারা ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। আর তাদের পৃষ্ঠপোষক সম্রাজ্যবাদী উৎপীড়কদের এদেশ থেকে বিদায় নিতে হয়েছে। আওয়ামী লীগের শক্তি হচ্ছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। আর বিএনপি’র শক্তি হলো জনগণ। তাই নাটক রচয়িতাকারীদের বলছি-বিএনপি নিরালম্ব নয়। অপপ্রচারকারী বিকৃতমনা সরকারের আনুকূল্য পাওয়া কতিপয় সাংস্কৃতিক কর্মীরাও জনগণের রোষ থেকে রেহাই পাবে না।


সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, শামসুল হক, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুস সালাম, আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।


বিবার্তা/বিপ্লব/জহির

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com