বান্দরবানের শৈলপ্রপাতের হাতছানি
প্রকাশ : ২৭ আগস্ট ২০১৭, ০৮:৪৫
বান্দরবানের শৈলপ্রপাতের হাতছানি
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

বান্দরবানে যাবেন অথচ শৈলপ্রপাত দেখবেন না, তা কি হয়? তাছাড়া আপনি যখন বান্দরবানের চিম্বুক বা নীলগিরি যাবেন, পথেই শৈ্লপ্রপাত পড়বে। কাজেই ভাড়া করা গাড়ি রাস্তার পাশে থামিয়েই বেড়াতে পারেন। অসাধারণ একটি জলপ্রপাত। বর্ষার এর রূপ থাকে আরও ভয়ংকর সুন্দর।


বান্দরবান রুমা সড়কের ৮ কিলোমিটার দূরে শৈলপ্রপাত অবস্থিত। এটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপূর্ব সৃষ্টি। ঝরনার হিমশীতল পানি এখানে সর্বদা বহমান। এই ঝরনার পানিগুলো খুবই স্বচ্ছ এবং হিমশীতল। বর্ষাকালে এ ঝরনার দৃশ্য দেখা গেলেও ঝরনাতে নামা দুস্কর। তবে বছরের বেশির ভাগ সময় দেশী বিদেশী পর্যটকে ভরপুর থাকে।


রাস্তার পাশে শৈলপ্রপাতের অবস্থান হওয়ায় এখানে পর্যটকদের ভিড় বেশি দেখা যায়। এখানে দুর্গম পাহাড়ের কোল ঘেষা আদিবাসী বম সম্প্রদায়ের সংগ্রামী জীবন প্রত্যক্ষ করা। এখানে উপজাতি তরুণীরা হাতের তৈরি বস্ত্র ও নানান প্রকার তৈজসপত্র বিক্রয় করে থাকেন।


কীভাবে যাবেন: বান্দরবান শহর থেকে টেক্সি, চাঁদের গাড়ি কিংবা প্রাইভেট কার ও জীপ ভাড়া করে শৈলপ্রপাতে যাওয়া যায়। শহর থেকে জীপ গাড়িতে ৬০০-৭০০ টাকা এবং চাঁদের গাড়িতে ৪৫০-৫০০ টাকা লাগবে। অথবা চান্দের গাড়ি বা জিপ নিয়ে নীলগিরি বা চিম্বুক যাবার পথে এখানে নামতে পারেন। আর যদি কেবল শৈলপ্রপাত উদ্দেশ্য করে আসতে চান তবে অটোরিক্সা উত্তম বাহন।


ভাল লাগার এই শৈলপ্রপাতে আপনার সময়টা বেশ ভালই কাটবে। পানির এমন স্রোতধারা যেন জীবনের ছন্দের কথা বলবে।


বিবার্তা/জিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com