আসামের ৪০ লাখ মানুষকে নাগরিকত্ব দেয়ার দাবিতে মানববন্ধন
প্রকাশ : ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৯:১৫
আসামের ৪০ লাখ মানুষকে নাগরিকত্ব দেয়ার দাবিতে মানববন্ধন
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ভারতের আসাম রাজ্যের ৪০ লাখ বাঙালির নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সংহতি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুকবার সকালে সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফোরাম, বাংলাদেশ ঘণ্টাব্যাপী এই কর্মসূচির আয়োজন করে।


মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিজেপি-আরএসএস এতদিন এনআরসি'র বিরোধী ছিলো। কারণ নিখুঁত এনআরসি প্রকাশিত হলে দেখা যেতো যে- বিভিন্ন দেশ থেকে আগত হিন্দু অনুপ্রবেশকারীর সংখ্যা মুসলিমদের তুলনায় বহুগুণ বেশি। এখন ক্ষমতায় এসে তারা সে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে, তারা যুক্তিসঙ্গত অভিযোগগুলোর জায়গাতে তার নিজস্ব দক্ষিণপন্থী রাজনীতির রূপায়ণ ঘটাচ্ছে। আসামের ঘন ঘন প্রলয়ন্কারী বন্যা এবং ভ্রাতৃঘাতী সংঘর্ষের বলি হয়ে বহুবার জনগণকে সর্বস্ব হারিয়ে ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিতে হয়েছে। এসব প্রাকৃতিক এবং মানবসৃষ্ট ঘটনায় জনগণ একদিকে যেমন তাদের জীবন, সম্পত্তি এবং বহু মুল্যবান নথিপত্র হারিয়েছেন।


বক্তারা আরো বলেন, অন্যদিকে দেশ বিভাগের বলি হাজার হাজার অসহায় মানুষ গত ৫০/৬০ বছর যাবৎ আসামসহ ভারতবর্ষের নানা প্রান্তে খাস জমি, বনাঞ্চল, বস্তি এলাকায় দীর্ঘদিন থেকে বসবাস করে আসলেও তাদের হাতে কোনও ধরনের সরকারি নথি প্রদান করা হয়নি। আজ এতবছর পর জনগণের পক্ষে এসব নথি সংগ্রহ করা যে অসম্ভব তা জানা সত্বেও সম্পূর্ণ পরিকল্পিতভাবে শুধু দলিলের ওপর ভিত্তিকরে নাগরিক পঞ্জী তৈরী করার আসল উদ্দেশ্য নাগরিকত্ব প্রদান নয় নাগরিকত্ব হরণের অপচেষ্টা মাত্র।


যেখানে অগপ-আশু'র উদ্দেশ্য হলো হিন্দু -মুসলিম নির্বিশেষে বাঙালি, সাওতাল, নেপালী, আদিবাসী চা-শ্রমিক এবং উত্তর ভারতীয় দিনমজুর খেদানো- এমন অভিযোগ করে বক্তারা বলেন, যে হিংস্র আসামীয় উগ্র জাতীয়তাবাদের পিঠে চড়ে অগপ আসামের রাজনৈতিক ক্ষমতা দখল করেছিলো, বিজেপি সেই জাতীয়তাবাদের ওপর একটি উগ্র মুসলিম বিদ্বেষের চাদর চড়িয়ে তাকে আরো জমকালো করে তুলেছে।


বক্তারা ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি অবিলম্বে নিপীড়িত ৪০ লাখ নাগরিকের নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দিয়ে তাদের হয়রানি বন্ধের দাবি জানান। দল-মত-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষকে নিপীড়িত মানুষগুলোর পাশে থাকার আহবান জানান।



মো. ইলিয়াসের সভাপতিত্বে ও বাচ্চু মিয়ার সঞ্চালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম পথিক, জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মনিরুল কবির, গণতান্ত্রিক গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি আলমগীর রনি, ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেসের বাংলাদেশ কমিটির সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক ও গার্মেন্টস শ্রমিক নেতা কামরুল হাসান, জাতীয় শ্রমিক জোটের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মোসতাক আহমেদ, গৃহ শ্রমিক নেটওয়ার্কের নেতা মুক্তি বেগম, ইয়ুথ ফোরামের সহ-সভাপতি বেলাল বাঙালী, কেন্দ্রীয় নেতা নজরুল ইসলাম, নাসির উদ্দিন তালুকদার, মো. কাজল, রিফাত প্রমুখ।


বিবার্তা/বিজ্ঞপ্তি/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com