বিআরটিসিকে আর দেউলিয়া দেখতে চাই না: কাদের
প্রকাশ : ২৬ মে ২০১৯, ১৪:৫৭
বিআরটিসিকে আর দেউলিয়া দেখতে চাই না: কাদের
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বিআরটিসি বাসে ফ্যান থাকে না, কাচ ভাঙ্গা থাকে এবং এসি গাড়িতে এসি থাকে না উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমি বিআরটিসিকে আর দেউলিয়া প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখতে চাই না।


তিনি বলেন, বিআরটিসি দেউলিয়া হলে আপনারা এখানে যারা আছেন, তারাও দেউলিয়া হবেন। রমজান মাস সংযমের মাস, এই মাসে ইনকামটা একটু কম করলে কী হয়? বিআরটিসি যেন সুনামের ধারায় ফিরে আসে, সেদিক বিবেচনা করে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন।


সড়ক পরিবহন ভবনে আসন্ন ঈদে মানুষের ঘরে ফেরা নির্বিঘ্ন করতে বিআরটিসি ঈদ স্পেশাল সার্ভিসসহ অন্যান্য প্রস্তুতি নিয়ে বিআরটিসি ডিপো ম্যানেজার ও কর্মকর্তাদের সাথে রবিবার এক সভায় এ কথা বলেন তিনি।


এ সময় বিআরটিসির অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিকদের মাঝে গ্র্যাচুইটির চেক বিতরণ করা হয়।


সেতুমন্ত্রী বলেন, বিআরটিসিতে যদিও জনবলের কমতি আছে। তারপরও তারা দায়িত্ব নিয়ে কাজ করবে, কমিটমেন্ট নিয়ে কাজ করবে। যেখানে চাকরি করেন সেখানে নিষ্ঠার সাথে, সততার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।


তিনি বলেন, ঈদের সময় বিআরটিসি ভাড়া নিয়েও অভিযোগ আছে। কোথাও কোথাও অতিরিক্ত ভাড়া নেয়া হয়। যদি সরকারি গাড়িতে বেশি ভাড়া নেয়া হয় তাহলে বেসরকারি গাড়ির মালিকদের কাজে কি বলবো?


বিআরটিসির কর্মকর্তাদের উদ্দেশে কাদের বলেন, ৬০০ নতুন গাড়ি আনা হচ্ছে। যতই গাড়ি আনা হোক, যদি সেবার মান না বাড়ে তাহলে চয় হাজার গাড়ি এনেও কোনো লাভ হবে না। আগে বিআরটিসির সুনাম অর্জন করুন, সার্ভিস ভালো করুন। সেবার মন বাড়ান। বিআরটিসিকে আকর্ষনীয় করতে হবে।


তিনি বলেন, এবারের ঈদে নতুন-পুরাতন মিলিয়ে বিআরটিসির ১১৪২টি বাস চলাচল করবে। পুরাতন ৮৮৯টি বাসের সঙ্গে ২৫৩টি বাস নতুন করে যুক্ত হয়েছে।


ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে নতুন উদ্বোধন হওয়া বিআরটিসি বাস চলতে বেসরকারি বাস মালিক কর্তৃক বাঁধা দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে সেতুমন্ত্রী বলেন, সবাই বাধা দিচ্ছে বিষয়টা এমন না। আমি এই বিষয়ে কথা বলেছি, সমাধান করা চেষ্ট করা হচ্ছে। আশা করি দ্রুত সমাধান হবে।


তিনি বলেন, কাঁচপুর-মেঘনা-গোমতী সেতু খুলে দেয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কোনো যানজট থাকবে না। উত্তরবঙ্গগামী ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কের দুটি ফ্লাইওভার ও চারটি আন্ডারপাস খুলে দেয়ায় যানজট না থাকলেও টঙ্গী থেকে গাজীপুর পর্যন্ত রাস্তায় কিছুটা সমস্যা হতে পারে।


তিনি বলেন, টঙ্গী-গাজীপুর সড়কের যানজট নিরসনকল্পে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীকে সভাপতি করে একটি কমিটি করা হয়েছে। আশা করি এ কমিটি যানজট নিরসন করতে পারবে। এছাড়া সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে টঙ্গী থেকে গাজীপুর পর্যন্ত সড়কে ৩শ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত থাকবে।


টঙ্গী-গাজীপুর সড়কের যানজট নিরসন কমিটিতে সদস্য হিসেবে রয়েছেন- গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, স্থানীয় সংসদ সদস্য জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার, বিআরটিএ কর্মকর্তা ও রুট ট্রানজিটের প্রকল্প পরিচালক।


বিবার্তা/আকরাম/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com