‘সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা লাগবে’
প্রকাশ : ২০ মার্চ ২০১৯, ১৩:২৮
‘সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা লাগবে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে প্রত্যেকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আলাদা আলাদা কমিটি গঠন করা হবে। ওই কমিটি সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর বিষয়ে ট্রাফিক পুলিশ ও সিটি করপোরেশনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে সহযোগিতা করবে।


তিনি বলেন, ইতোমধ্যে স্টুডেন্ট কাউন্সিল গঠন করার জন্য প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে শিক্ষক-ছাত্রসহ দুই থেকে তিনজনের প্রতিনিধির নাম দিতে বলা হয়েছে। দুই সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে এটা চাওয়া হয়েছে। নিরাপত্তাসহ যেকোনো বিষয় এখানে আলোচনা করা হবে। এর অগ্রগতি সাত দিন পরপর পর্যালোচনা করা হবে।


তিনি আরো বলেন, যত দ্রুত সম্ভব এই কমিটি গঠনের কাজ শুরু করে দেবো। নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের সঙ্গে আমিও একমত। সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা লাগবে। আমরা একসঙ্গে মিলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার বিষয়ে কাজ করবো।


রাজধানীর প্রগতি সরণি এলাকার যে স্থানে বাসচাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহত হয়েছেন, সেখানে আবরারের নামে ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর তিনি এ কথা বলেন।


মেযর বলেন, এখানে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করার কথা থাকলেও অনেক বাধা-বিপত্তির কারণে সেটি এতদিন করা সম্ভব হয়নি। যত বাধা-বিপত্তি আসুক, এই ক্রসিংয়ে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ হবে আমি কথা দিচ্ছি।


তিনি বলেন, আবরারের নামে এ ফুটওভার ব্রিজ হবে। দুই মাসের মধ্যে এই পদচারী–সেতুর কাজ শেষ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আবরারের বাবাকে অনুরোধ করা হয়েছে দুই মাস পর তিনি যেন এই সেতুর উদ্বোধন করেন।


তিনি আরো বলেন, রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ যেসব পয়েন্টে ফুটওভার ব্রিজ এবং আন্ডারপাস নির্মাণ করার প্রয়োজন রয়েছে, সেসব স্থানে এগুলো নির্মাণ করা হবে। ডিএমপি এবং সিটি করপোরেশন আলোচনা করে এ কাজগুলো করবে।


মেয়র বলেন, শিক্ষার্থীদের যে ১০টি দাবি রয়েছে, সেই দাবিগুলো আমার কাছে আছে। আমি দাবিগুলো সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে নিয়ে গিয়ে আলোচনা করবো।


তিনি বলেন, সড়কে নির্দিষ্ট স্থান ব্যতীত কোনো বাস যদি থামানো হয়, তবে বাস মালিক ও চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে আলোচনা করা হয়েছে। সুপ্রভাত পরিবহন বাস যে ঘটনা ঘটিয়েছে, সেটির যেন পুনরাবৃত্তি না হয়, সেজন্য বাস মালিকদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।


তিনি আরো বলেন, ফিটনেসবিহীন গাড়ি যেন সড়কে না চলে, সে বিষয়ে ডিএমপি কমিশনারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। যদি ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলে তাহলে কঠোর শাস্তি দেয়া হবে।


বুধবার সকাল ১০টা থেকে রাজধানীর বসুন্ধরায় আবাসিক এলাকার প্রবেশমুখে অবস্থান নেন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসসহ (বিইউপি) বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েক শ শিক্ষার্থী। পরে বেলা ১১টার দিকে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে আসেন মেয়র।


এ সময় মেয়রের সঙ্গে ছিলেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ও বিইউপির উপাচার্য মেজর জেনারেল এমদাদ উল বারী।


মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে প্রগতি সরণি এলাকায় সুপ্রভাত (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৪১৩৫) বাসের চাপায় আবরার নিহত হয়। এর প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com