গুজব বা মিথ্যা তথ্য দিয়াশলাইয়ের মতো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
প্রকাশ : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:০৩
গুজব বা মিথ্যা তথ্য দিয়াশলাইয়ের মতো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, গুজব বা মিথ্যা তথ্য একটি দিয়াশলাইয়ের মতো। দিয়াশলাই কাঠি যেমন মুহূর্তেই জ্বলে উঠে ও বিশাল অগ্নিকাণ্ড ছড়াতে পারে, তেমনি কোনো গুজব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় স্থিতিশীলতা নষ্ট করতে পারে।


তিনি বলেন, তাই গুজবে কান দেবেন না। মিথ্যে তথ্য সামাজিক স্থিতিশীলতার জন্য হুমকিস্বরূপ।


রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে বৃহস্পতিবার গুজববিরোধী জনসচেতনতামূলক বিজ্ঞাপনের (টিভিসি) উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


ডিজিটাল বাংলাদেশে গুজবকে ইন্টারনেটের কুফল বলে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে আমরা অনেক দূর চলে গেছি। শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রামের সবাই ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। কিন্তু সুফলের সঙ্গে এর অপব্যবহারও করা হচ্ছে।


তিনি বলেন, অবাধ তথ্য প্রবাহের যুগে যোগাযোগ ব্যবস্থার ডিজিটালাইজেশন ফলে বিশ্বে অভূতপূর্ব তথ্য বিপ্লব সাধিত হয়েছে। এটি যেমন সমাজে তথ্যের গতিশীলতা তরান্বিত করেছে তেমনি মিথ্যে তথ্য স্থিতিশীলতার জন্য হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে


এ ক্ষেত্রে উদাহরণ হিসেবে কয়েক মাস আগে ঘটে যাওয়া শিক্ষার্থীদের দেশব্যাপী নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের কথা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, কিছুদিন আগে স্কুলের ছেলেমেয়েরা রাস্তায় নেমে এসেছিল। যদিও তারা একটা সঠিক কারণেই রাস্তায় নেমেছিল। কিন্তু সেখানে একটি চক্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব রটিয়ে আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে নেয়ার অপচেষ্টা করেছিল।


এ সময় তিনি কোটা সংস্কার আন্দোলনের কথাও উল্লেখ করেন।


এরপর মন্ত্রী বলেন, গুজব আইনের দৃষ্টিতে দণ্ডনীয় অপরাধ। যারাই গুজব ছড়িয়ে দিচ্ছে ও চেষ্টা করছে, তাদের আমরা চিহ্নিত করেছি এবং এ প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।


এক্ষেত্রে র‌্যাব সফলতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, তথ্য আমাদের অধিকার। কিন্তু তথ্য সঠিকভাবে যাচাই না করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার বা আপলোড করা যাবে না। র‌্যাব গুজব রটানো সাইবার অপরাধীদের ওপর নজর রাখছে।


স্বারষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সমাজ ব্যবস্থায় অতীব গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা। সাধারণ জনগণের সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্কে রেখে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা। এ ক্ষেত্রে সফলতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে র‌্যাব।


তিনি বলেন, আমরা দেখেছি র‌্যাব জলদস্যু, বনদস্যু নির্মূলে কিভাবে ভূমিকা রেখেছে। জঙ্গি দমনে র‌্যাব প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। র‌্যাব জনগণের একটা আস্থার অর্জন করেছে। র‌্যাবের আগেও জঙ্গি বিরোধী টিভিসি তৈরি করে জনসচেতনতায় প্রচার করেছে।


অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামলা উদ্দিন ও র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com