‘নতুন প্রজন্মের জন্য সমৃদ্ধ দেশ গড়ে তুলবো’
প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:৪০
‘নতুন প্রজন্মের জন্য সমৃদ্ধ দেশ গড়ে তুলবো’
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমরা বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতকে অগ্রাধিকার দিচ্ছি। ৯০ ভাগ মানুষ বিদ্যুৎ পাচ্ছেন। ২০২১ সালের মধ্যে ২৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করবো। সকলে মিলে নতুন প্রজন্মের জন্য উজ্জ্বল ও সমৃদ্ধ দেশ গড়ে তুলবো, এমন পরিকল্পনা নিয়েছি।’


আজ রবিবার সকালে রাজধানীর রেডিসন হোটেলে জেদ্দাভিত্তিক ইসলামি উন্নয়ন ব্যাংকের (আইডিবি) আঞ্চলিক প্রধান কার্যালয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।


রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আইডিবি ভবনে এখন ‘ফিল্ড অফিসের’ মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করছে আইডিবি। তবে আইডিবির সব সিদ্ধান্তই আসে সদর দপ্তর থেকে। তাই ঢাকায় আঞ্চলিক সদর দফতর চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে সংস্থাটি।


উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতকে এগিয়ে নিতে কাজ করছি , ২০০ প্রকার সরকারি সেবা জনগণের হাতে পৌঁছে দিয়েছি। ১৫ কোটি তিন লাখ মোবাইল সিম এখন মানুষ ব্যবহার করে। প্রযুক্তিতে আমরা অনেক এগিয়েছি। মহাশূন্যে ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট’ উৎক্ষেপণের মাধ্যমে ৫৭তম স্যাটেলাই উৎক্ষেপণকারী দেশ হওয়ার গৌরব অর্জন করেছি। আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। ’


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের উন্নয়নের পথে অভিযাত্রা মসৃণ ছিল না। নানা ঘাত প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে এগোতে হয়েছে। এতো কিছুর পরও দক্ষ নেতৃত্ব ও জনগণের বলিষ্ট প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে আজ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছে। জাতিসংঘের উন্নয়ন নীতি বিষয়ক কমিটি সিডিপিএ এ স্বীকৃতি দিয়েছে।


শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা নারী উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতিমালা করেছি। বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীদের অংশ গ্রহণ বৃদ্ধি পাচ্ছে । নেপাল, ভুটান ও পাকিস্তানের চেয়ে বাংলাদেশের নারীরা এগিয়ে। নারী পোশাক শ্রমিকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে আমরা কাজ করছি ।’


বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার বর্ণনা দিয়ে প্রধানমন্ত্র বলেন, মনুষ্য সৃষ্ট ও প্রাকৃতিকসহ নানা দুর্যোগ সত্ত্বেও বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা থেমে থাকেনি। দারিদ্রসীমা ২২ শতাংশে নেমে এসেছে। জিডিপির আকার বিবেচনায় বাংলাদেশ ৪৩ তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ। আর কর্মসমতা বিবেচনায় ৩২তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ।


আঞ্চলিক সদর দফতরের উদ্বোধন উপলক্ষে এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন আইডিবি প্রেসিডেন্ট ড. বন্দর এম এইচ হাজ্জর। সফরকালে মিয়ানমার থেকে প্রাণভয়ে পালিয়ে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে যাওয়ার কথা রয়েছে আইডিবি প্রেসিডেন্টের। আইডিবি থেকে রোহিঙ্গাদের জন্য সহযোগিতার ঘোষণাও আসতে পারে এমন আভাস দিয়েছে সরকারের নির্ভরযোগ্য সূত্র।


বিবার্তা/শারমিন/শাহনাজ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com