ডিএনসিসির অর্ধশতাধিক এলাকায় বসছে গতিরোধক ও জেব্রা ক্রসিং
সিসিটিভির আওতায় আসছে সারা দেশের সড়ক-মহাসড়ক
প্রকাশ : ২৯ আগস্ট ২০১৮, ০৯:৪২
সিসিটিভির আওতায় আসছে সারা দেশের সড়ক-মহাসড়ক
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

সড়ক নিরাপত্তা সংক্রান্ত ‘উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন সরকারি কমিটি’ সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে সারাদেশের সড়ক, মহাসড়কগুলোকে ক্লজ সার্কিট টেলিভিশন (সিসিটিভি) ক্যামেরার আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছে।


ঢাকা মহানগরীসহ দেশের ট্রাফিক ব্যবস্থার উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন ও নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে সার্বিক পর্যবেক্ষণের লক্ষ্যে গঠিত উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন সরকারি কমিটির প্রথম বৈঠকে এ নির্দেশনা দেয়া হয়।


প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে কমিটির প্রধান ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান এ নির্দেশনা দেন।


এদিকে শিক্ষার্থী ও পথচারীদের নিরাপদে সড়ক পারাপারের ব্যবস্থা করতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৫০টির বেশি এলাকায় গতিরোধক ও জেব্রা ক্রসিং বসানো হচ্ছে। এ জন্য অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতালের সামনের সড়কগুলোকে।


এর পাশাপাশি সরকারি অফিস ও বাজার এলাকায় নিরাপদ পারাপারের ব্যবস্থা করার পরিকল্পনা রয়েছে ডিএনসিসির। প্রয়োজনে এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে এবং কোরবানির ঈদের আগ পর্যন্ত ২০টির মতো জায়গায় জেব্রা ক্রসিং ও গতিরোধক বসানো হয়েছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।



সরকারি কমিটির বৈঠক সূত্রে জানানো হয়, সারাদেশের সড়ক ও মহাসড়কগুলোকে সিসিটিভি ক্যামেরা নেটওয়ার্কের আওতায় আনার জন্য প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণে স্থানীয় প্রশাসনসহ স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর সহায়তা নেয়ারও আহবান জানানো হয়েছে।


সড়ক নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সরকার গত ২০ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসানকে প্রধান করে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন এ কমিটি গঠন করে। কমিটির প্রথম বৈঠকে ঈদুল আজহার পূর্বে ও পরে রাজধানীসহ সারাদেশের সড়ক দুর্ঘটনা এবং সার্বিক পরিবহন ব্যবস্থাপনা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।


এছাড়াও রুট পারমিটবিহীন যানবাহন চলাচল বন্ধে এবং ট্রাফিক আইন সঠিকভাবে মেনে চলার বাধ্যবাধকতার জন্যই সড়ক-মহাসড়কে মোবাইল কোর্টের কার্যক্রম জোরদার করাও নির্দেশনা দেয়া হয়।


এ সভায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানানো এবং আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করা হয়। পাশাপাশি দুর্ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের দ্রুত শাস্তির আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়।


এছাড়া ঢাকাসহ সারাদেশে নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে চলমান কার্যক্রম জোরদার করতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও আহবান জানানো হয়। বৈঠকে ট্রাফিক আইন মেনে চলতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি গ্রহণেরও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।


অপরদিকে ঈদের ছুটির আগপর্যন্ত উত্তরা, মিরপুর, গুলশান, মোহাম্মদপুরসহ ডিএনসিসির আওতাধীন এলাকার ৫৩টি জায়গা জেব্রা ক্রসিং ও গতিরোধক বসানোর জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব সড়কে জেব্রা ক্রসিং ও রাম্বল স্ট্রিপ (গাড়ির চালকদের সতর্ককারী ও গতি কমানোর জন্য একটানা বসানো ছোট ছোট গতিরোধক) বসানো হবে।


রাম্বল স্ট্রিপ


যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে জেব্রা ক্রসিং দেয়া হচ্ছে সেগুলো হলো আসাদ গেটের সেন্ট যোসেফ স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মিরপুর রোডের ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ, গজনবী রোডের মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল, উত্তরার আগা খান স্কুল, মিরপুর টেকনিক্যাল মোড়ের শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, গুলশানের মানারাত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়, মনিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের মূল ভবনের সামনে ৬০ ফুট সড়ক, মিরপুরে অবস্থিত জার্মান টেকনিক্যাল বা ইউসেপ স্কুলের সামনে।


জেব্রা ক্রসিংয়ের পাশাপাশি রাম্বল স্ট্রিপ বসানো হবে এসওএস হারম্যান মেইনার স্কুলের সামনে, শহীদ পুলিশ স্মৃতি স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা কমার্স কলেজ, এয়ারফোর্স পকেট গেট, মাটিকাটা এমপি চেকপোস্টের সামনে।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com