‘অভিযানের নামে নিরীহ লোক হয়রানি করা হবে না’
প্রকাশ : ০২ জুন ২০১৮, ১৪:৪৯
‘অভিযানের নামে নিরীহ লোক হয়রানি করা হবে না’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, সারা দেশে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। মাদক আমাদের সন্তানদেরকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। যার সন্তান মাদকাসক্ত সে জানে, এই দুনিয়াতে জাহান্নামের কষ্ট কি জিনিস..। অনেক মা-বাবা আমার কাছে এসেছে, এসে বলেছে আমার ছেলেকে মেরে ফেলুন, আমার ছেলেকে জেলে নিন। কারণ মাদকের টাকার জন্য, নেশার টাকার জন্য মা-বাবাকে তারা সকাল-বিকাল মারতো।


রাজধানীর পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে শনিবার দুপুরে ঈদ বস্ত্র বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ঢাকা মহানগর পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।


অনুষ্ঠানে পুলিশ পরিদর্শক মাহফুজুর রহমানের মেয়ে ঐশী রহমানের উদাহরণ দিয়ে আছাদুজ্জামান বলেন, সে মাদকাসক্ত হয়ে তার মা-বাবাকে ঠান্ডা মাথায় খুন করেছে। এই সমাজে কি আমরা আরেকটি ঐশী সৃষ্টি করতে দেব। বলেন দেব কিনা..দেব না। সেই কারণের জন্যই আমরা মাদকের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করেছি।


তিনি বলেন, মাদক ব্যবসায়ীদের যে কোনো মূল্যে বিচারের আওতায় আনা হবে। মাদকের সকল আস্তানা ভেঙে গুড়িয়ে দেয়া হবে।


মাদক ব্যবসায়ীদের সর্তক করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, কাউকে এক বিন্দু ছাড় দেয়া হবে না। তবে নিরীহ লোকের ভয়ের কোনো কারণ নেই।


অনুষ্ঠানে সকলের কাছে ওয়াদা করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঢাকা মহানগর পুলিশের মাদকবিরোধী বা জঙ্গি বিরোধী অভিযানের নামে কোনো নিরীহ লোককে হয়রানি করা হবে না। যদি করা হয়, তা হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীর বিরুদ্ধে সাজার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


তিনি বলেন, পুলিশের কোনো সদস্যের সঙ্গে মাদকের কোনো ব্যক্তির সংশ্লিষ্টতা নেই এবং থাকবেও না। মাদক ব্যবসায়ী সেই হোক, যত বড় হোক, যত বড় প্রজিশনেরই হোক, যে দলের হোক, যে সংগঠনের হোক, হোক সে সরকারি কর্মচারী, হোক সে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, তাকে কোনো ছাড় দেয়া হবে না।


বিশ্বের বিভিন্ন দেশ জঙ্গি দমন সফল হতে পারেনি উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশে জঙ্গি দমন করতে পেরেছি আমরা। আজকে বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাদকের বিরুদ্ধে জিহাদের ঘোষণা দিয়েছেন। আমরা বলতে চাই, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বেই আমরা বাংলাদেশের মাটি থেকে এই ক্যান্সার, এই মাদককেই আমরা ধ্বংস করবই।


মাদক ব্যবসায়ীদের চিহিৃত করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা তাদের ধরে নিয়ে আসব। আপনাদের কাছে অনুরোধ কেউ মাদকের সঙ্গে যুক্ত হবেন না, কেউ মাদক সেবন করবেন না। মাদকের কারণেই আজ অনেক সন্তানই দেশের সম্পদ না হয়ে বোঝা হয়েছে। তাই এই মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের ঈমানী যুদ্ধ।



বক্তব্যের শুরুতে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঈদে আমরা ভাল খাবার খাব, ভাল কাপড় পড়ব। কিন্তু আমার অন্য ভাই ভাল খাবার খাবে না, ভাল কাপড় পাড়বে না, তাহলে এই ঈদ সম্পূর্ণ হবে না। এটা হাদিস ও কোরআনের কথা। সেই দায়িত্ববোধ থেকে ঢাকা মহানগর পুলিশ আপনাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। প্রত্যেকটা ঈদে এসে আপনাদের পাশে দাঁড়ায়। প্রত্যেকটা শীতকালে শীতবস্ত্র দেই। আগামীতে যতদিন থাকব, আপনাদের পাশে থাকব।


তিনি বলেন, ঢাকা মহানগর পুলিশের সদস্যরা আপনাদের প্রতি অন্যায়, অত্যাচার করবে না। আমরা আপনাদের আপজন, আপন ভাই হিসেবে আপনাদের পাশে থাকব, আপনাদের নিরাপত্তা দেব। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় এবং জনগণের নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আপনারাও আমাদের সহযোগিতা করবেন।


দেশের উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১২ ঘন্টা লোডশেডিং হত। কিন্তু গত ৫ বছর থেকে লোডশেডিং নাই বলতেই চলে। রাস্তাঘাট চার লেন হচ্ছে, আট লেন হচ্ছে, ফ্লাইওভার, মেট্রোরেলের কাজ-কর্ম চলমান। দুই-তিন বছর পরে মেট্রোরেল চালু হলে ঢাকা শহরে কোনো যানজট থাকবে না।


হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে পদ্মা সেতু করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, এই পদ্ম সেতুর কাজ আগামী দু’ বছরের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। পদ্ম সেতুর কাজ শেষ হলে দক্ষিণ বাংলার চিত্র পাল্টে যাবে। পাল্টে যাবে বাংলাদেশের চিত্র।


কিছুদিন আগে বঙ্গবন্ধু বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১ মহাকাশে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, বাংলাদেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি না। আমরা প্রমাণ করেছি, আমরা কাজ করে খাই, দেশকে ভালবাসী। আমরা এগিয়ে যাব।


তিনি বলেন, আপনারা কিছু দিন আগে দেখেছেন একটি চক্র এদেশে বোমাবাজি করেছে, নৈরাজ্য করেছে, বিদেশিদের নিরাপত্তা অনিশ্চিত করেছে। ২০১৬ সালে হলি আটিজানের মর্মান্তিক এই ঘটনা সারা দেশে কালিমাযুক্ত করেছে। আমরা সেই জঙ্গিদের কঠোরভাবে দমন করেছি। বাংলাদেশে কোনো জঙ্গির ঠাই নেই।


আজ ১৬ রমজান জানিয়ে তিনি বলেন, আজ পর্যন্ত ঢাকা শহরে কোনো ছিনতাই নেই, কোনো ডাকাতি নেই, কোনো দস্যুতা নেই, কোনো অজ্ঞানপার্টি বা মলম পার্টি নেই। গভীর রাত পর্যন্ত মানুষ শপিং মলে কেনাকাটা করছে। কারণ আমরা সারা রাত, সারা দিন পোশাকে-সাদা পোশাকে আপনাদের পাহারা দিচ্ছি।


বিবার্তা/খলিল/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com