কে হচ্ছেন নতুন আইজিপি
প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:২৯
কে হচ্ছেন নতুন আইজিপি
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

চলতি মাসেই মেয়াদ শেষ হচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হকের। তাই কে হচ্ছেন নতুন আইজিপি – এ প্রশ্ন আলোচিত হচ্ছে ব্যাপকভাবে। এখন পর্যন্ত সম্ভাব্য আইজিপি হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন র‌্যাব ও পুলিশের কয়েকজন ঊধ্বর্তন কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে আছেন পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারি, অতিরিক্ত আইজিপি মোখলেসুর রহমান, র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ ও ঢাকা মহানগর পুলিশের বর্তমান কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। এছাড়াও বর্তমান আইজিপি এ কে এম শহীদুল হককে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়া হতে পারে বলেও গুঞ্জন রয়েছে।


পুলিশের আইজি পদটিতে নিয়োগদানের বিষয়টি বরাবরই প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছা-অনিচ্ছার ওপর নির্ভরশীল। সুতরাং আইজিপি পদে নতুন মুখ হিসেবে কাকে দেখা যাবে, তা নিশ্চিত করে কেউই বলতে পারবেন না।


পুলিশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) পদ থেকে আইজিপি পদে ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর যোগদান করেছিলেন এ কে এম শহীদুল হক। এরপর থেকে তিনি দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন। এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থাও অর্জন করেছেন তিনি।


এ কে এম শহীদুল হকের মেয়াদ ৩১ জানুয়ারি শেষ হচ্ছে।


আইজিপি পদে নিয়োগ পাওয়ার ব্যাপারে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় রয়েছেন স্পেশাল ব্রাঞ্চের প্রধান অতিরিক্তি আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণেস্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী জাবেদ পাটোয়ারি বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে চাকরিতে যোগদান করেন। ১৯৮৪ ব্যাচের এই কর্মকর্তা চাকরির প্রতিটি ক্ষেত্রে মেধা, দক্ষতা ও যোগ্যতার পরিচয় দিয়ে বর্তমানে পুলিশের সর্বোচ্চ পদের এক ধাপ নিচে অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক পদে কর্মরত রয়েছেন। তার চাকরির মেয়াদ রয়েছে আগামী ২০২০ সাল পর্যন্ত।


এদিকে গত ৭ জানুয়ারি বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত মহা-পুলিশ পরিদর্শক (অতিরিক্ত আইজিপি) মো. মোখলেসুর রহমানকে গ্রেড-১ পদে পদোন্নতি প্রদান করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়। মনে করা হচ্ছে, নতুন পুলিশপ্রধান হিসেবে তাকেও দেখা যেতে যারে। কারণ, ১৯৯৬ সালের ১৩ আগস্ট তার নেতৃত্বে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি লে. কর্নেল ফারুক, লে. কর্নেল রশীদ ও খায়রুজ্জামানকে গ্রেফতার করা হয়। এটিই ছিল ১৯৭৫-পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিরুদ্ধে সরকারের নেয়া প্রথম পদক্ষেপ। ওই সময় তিনি এসবি’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছিলেন।


বাংলাদেশ পুলিশের ৮৫তম ব্যাচের এ কর্মকর্তা চাকরিজীবনের বিভিন্ন সময়ে বহুবার পুলিশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পদক বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম) ও পুলিশ প্রেসিডেন্ট মেডেলসহ (পিপিএম) অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন।


পুলিশ সদর দফতরে তিন বছর আগে অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন ও অপারেশন) হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের আগে তিনি ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্টের (সিআইডি) প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার আগে তিনি ইউএনডিপি’র পুলিশ রিফর্ম প্রোগ্রামের জাতীয় প্রকল্প পরিচালক, পুলিশের ঢাকা বিভাগের ডিআইজি, পুলিশ সদর দফতরের ডিআইজি (ট্রেনিং) সারদা পুলিশ একাডেমির প্রিন্সিপাল (ডিআইজি), বরিশাল আরআরএফের কমান্ড্যান্ট, পুলিশ সুপার গাজীপুর, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিসিসহ(পূর্ব) পুলিশ বিভাগের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। মোখলেসুর রহমানের চাকরির মেয়াদ আছে ২০১৯ সাল পর্যন্ত।


আলোচনায় থাকা অন্য দু’জনের মধ্যে র‌্যাবের মহাপরিচালকের বেনজীর আহমেদের চাকরির মেয়াদ সবচেয়ে বেশি - আগামী ২০২২ সাল পর্যন্ত।


এছাড়া ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামানের মেয়াদ ২০১৯ সালে শেষ হবে বলে জানা গেছে।


এদিকে, গত ৬ জানুয়ারি পুলিশ সদর দফতরে ‘পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮’ উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে নিজ দায়িত্বের মেয়াদ শেষ হওয়ার বিষয়টি মনে করিয়ে দেন বর্তমান আইজিপি। সংবাদ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শহীদুল হক বলেন, আজ থাক, এ বিষয়ে পরে কথা বলব। যাবার আগে আরেকবার আসবো আপনাদের সামনে, তখন উত্তর দিব।


তবে আইজিপি নিয়োগটি স্বাভাবিক নিয়মেই দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। তিনি বলেন, এখনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি। স্বাভাবিক নিয়মেই আইজিপি নিয়োগ দেয়া হবে।


বিবার্তা/খলিল/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com