শিশু ধর্ষণ প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন চায় নারীমুক্তি কেন্দ্র
প্রকাশ : ২৪ আগস্ট ২০১৯, ২২:৫২
শিশু ধর্ষণ প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন চায় নারীমুক্তি কেন্দ্র
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে রবিবার (২৪ আগস্ট) বিকাল সাড়ে ৪টায় বাংলাদেশ নারীমুক্তি কেন্দ্রের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।


কেন্দ্রীয় সভাপতি সীমা দত্তের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অর্থ সম্পাদক তসলিমা আক্তার বিউটি, সদস্য তৌফিকা লিজা ও ফারজানা আক্তার মালা।


সমাবেশে ‘ধর্ষক-নির্যাতক ও তাদের প্রশ্রয়দাতাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই; নারী ও শিশু ধর্ষণ-নির্যাতন প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলুন’ এই শ্লোগান দেয়া হয়।


সীমা দত্ত বলেন, ১৯৯৫ সালের এই দিনে দিনাজপুরে ১৪ বছরের কিশোরী ইয়াসমিনকে নিরাপদে বাড়ি পৌঁছে দেয়ার নামে পুলিশ পিকআপে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ ও হত্যা করে। ঘটনাটিতে দিনাজপুরসহ সারাদেশের শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষের বিবেক আলোড়িত হয়। সৃষ্টি হয় এক অভ্যূত্থানমূলক পরিস্থিতির। পুলিশের গুলিতে সাতটি তাজা প্রাণ ঝরে পড়ে। কিন্তু আন্দোলনের চাপে পরবর্তীতে বিচারে তিনজন আসামির ফাঁসির রায় কার্যকর হয়। তাই এই দিনটিকে বাংলাদেশের নারীসমাজ ‘নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস’ হিসাবে পালন করে আসছে।


তিনি বলেণ, সম্মিলিত প্রতিরোধই যে একমাত্র অন্যায় রুখে দিতে পারে তা সেদিন প্রমাণ হয়েছিল। আজ ২৪ বছর পরে আমরা দেখছি নারী শিশুর উপর নির্মম নৃসংশতা কিন্তু অপরাধীরা সরকারি রাজনৈতিক দল অথবা প্রশাসনের ছত্রছায়ায় নিরাপদে ঘুরে বেড়াচ্ছে। পুলিশের কাছে বিচার চাইতে গেলে কিংবা মামলা করতে গেলে ভুক্তভোগীকে নানাভাবে হেনস্থা হতে হচ্ছে।


তিনি আরো বলেন, আজ সময় হয়েছে রাজপথে নেমে সম্মিলিতভাবে এর প্রতিরোধ গড়ে তোলা। প্রতিদিন আমাদের চারপাশে ঘটে যাওয়া নারী নির্যাতনের ঘটনাগুলি দেখেও যদি আমরা চুপ থাকি তাহলে আমাদের বোন, কন্যা, মায়ের সম্ভ্রম রক্ষা করা যাবে না। আমাদের সন্তানদের অন্ধাকার জগত থেকে ফেরানো যাবে না।


বিবার্তা/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com