দুই দশকেও বিচার হয়নি রানার সম্পাদক মুকুল হত্যার
প্রকাশ : ৩০ আগস্ট ২০১৯, ১০:৫৫
দুই দশকেও বিচার হয়নি রানার সম্পাদক মুকুল হত্যার
যশোর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

এক সময়ের যশোরের প্রভাবশালী পত্রিকা দৈনিক রানার সম্পাদক আরএম সাইফুল আলম মুকুল হত্যার দুই দশক পার হলেও শেষ হয়নি বিচারকাজ।


দীর্ঘদিনেও বিচার না পেয়ে হতাশ তার পরিবার ও সাংবাদিক সমাজ। এ দীর্ঘ সময়ে নানা জটিলতা ও প্রতিবন্ধকতায় আটকে গেছে মামলার বিচারকাজ। শুক্রবার (৩০ আগস্ট) প্রয়াত সাংবাদিক মুকুলের ২১তম হত্যাবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।


পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৮ সালের ৩০ আগস্ট রাতে রানার সম্পাদক সাইফুল আলম মুকুল শহর থেকে বেজপাড়ার নিজ বাসভবনে যাওয়ার পথে চারখাম্বার মোড়ে দুর্বৃত্তদের বোমা হামলায় নিহত হন। পরদিন নিহতের স্ত্রী হাফিজা আক্তার শিরিন কারো নাম উল্লেখ না করে কোতয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পরে তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডি যশোর জোনের তৎকালীন এএসপি দুলাল উদ্দিন আকন্দ ১৯৯৯ সালের ২৩ এপ্রিল বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য, সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামসহ ২২ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।


একপর্যায়ে আইনি জটিলতার কারণে মামলার কার্যক্রম থমকে পড়ে। এ কারণে চাঞ্চল্যকর এ মামলাটি হাইকোর্ট থেকে বাতিল করে দেয়া হয়। দীর্ঘদিন পর ২০০৫ সালে হাইকোর্টের একটি বিশেষ বেঞ্চ থেকে মুকুল হত্যা মামলা পুনরুজ্জীবিত করে বর্ধিত তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়।


ওই বছরের ২১ ডিসেম্বর সিআইডি কর্মকর্তা মওলা বক্স নতুন দুজনের নাম অন্তর্ভুক্ত করে আদালতে সম্পূরক চার্জশিট দেন। ২০০৬ সালের ১৫ জুন যশোরের স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল (৩) এবং অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে (২) ২২ জনকে অভিযুক্ত করে মুকুল হত্যা মামলার চার্জগঠন করা হয়। এ সময় মামলা থেকে তৎকালীন মন্ত্রী তরিকুল ইসলাম ও রূপম নামে আরেক আসামিকে অব্যাহতি দেয়া হয়।


২০১০ সালে মামলার ২৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয় যশোরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালতে। মুকুল হত্যা মামলা থেকে অব্যাহতি পেতে আসামি ইত্তেফাকের সাংবাদিক ফারাজী আজমল হোসেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে আবেদন করেন। রিট আবেদন নিষ্পত্তি না হওয়ায় মুকুল হত্যা মামলার কার্যক্রম স্থবির রয়েছে।


এ প্রসঙ্গে যশোরের স্পেশাল জজ আদালতের (জেলা জজ) পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এসএম বদরুজ্জামান বলেন, এ মামলার আসামি ফারাজী আজমল হোসেন হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন। সেই রিটের নিষ্পত্তি হলে নিম্ন আদালতে সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হবে।


এদিকে আজ (৩০ আগস্ট) শহীদ সাংবাদিক সাইফুল আলমের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে প্রেস ক্লাব ও যশোর সাংবাদিক ইউনিয়ন (জেইউজে), সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরসহ বিভিন্ন সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।


কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে শোকযাত্রা, শহীদের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল।


বিবার্তা/তুহিন/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com