ডায়েট করতে গিয়ে ভুল করছেন না তো!
প্রকাশ : ০৮ জুলাই ২০১৮, ১৭:৩৭
ডায়েট করতে গিয়ে ভুল করছেন না তো!
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

আজকাল সবাই ডায়েট নিয়ে অনেক বেশি আগ্রহী। কিন্তু খাবারের ব্যাপারে মোটেই সচেতন না অনেকেই। অনেকে আছে অন্যের ডায়েট চার্ট অনুসরণ করে। এটা কিন্তু ঠিক না। আসল কথা হচ্ছে ডায়েট চার্ট সবার জন্য এক হয় না। কোন ব্যক্তির জন্য ডায়েট চার্ট করতে অবশ্যই সম্পর্কে কিছু জেনে নিতে হবে।


কী করলে ওজন কমবে, কী কী না খেলে ওজন কমবে, কোন কোন খাবার ওজন কমায়, ডায়েট করতে চাইলে কীভাবে করতে হবে এই সব ভেবে ভেবে ঘন্টার পর ঘণ্টা পার হয়ে যায়। অনেকেই আছেন যারা ওজন কমাবার জন্য রাতের খাবার খান না। কিন্তু আপনি জানেন কি? ওজন কমানোর সবচেয়ে ভালো উপায় হল ধীরে ধীরে স্বাস্থ্যকর উপায়ে ওজন কমানো।


একটু একটু করে ওজন বেড়ে যাচ্ছে, সেই সঙ্গে বাড়ছে দুশ্চিন্তা আর ডায়েটের পরিমাণ। কিন্তু আমরা অনেকেই ডায়েট করতে গিয়ে কিছু ভুল করে বসি, যার ফলে ওজন কমে না, উল্টো আরো শরীরের ক্ষতি হয়।


শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমাতে আমরা সকলেই বেশ তৎপর। অনেকে বেশি খেয়ে মোটা হয়, কেউ শারীরিক জটিলতার জন্য, কেউ কোন ঔষুধের সাইড ইফেক্টে আবার হরমোন এবং জ্বীন জনিত কারণে।


আর তাই না জেনে বুঝে অনেকেই আসল ডায়েট বাদ দিয়ে নকল ডায়েট নিয়ে উঠে পড়ে লাগেন। সেজন্যই ডায়েট করতে গিয়ে দেখুন শরীরে কি ধরনের ভুলগুলো আমরা করি-


একেবারেই অল্প খাওয়া


ওজন কমাতে হলে ক্যালরিযুক্ত খাবার কম খেতে হবে। সেই কম যেন একদমই কম হয়ে যায় এমনটা যেন না হয়। শরীরে পর্যাপ্ত ক্যালরির যোগান না হলে শরীর শক্তি পাওয়ার জন্য আমাদের পেশিকলা ক্ষয় করে ক্যালরি সঞ্চয় করতে থাকবে। ফলে শরীরই দুর্বল হবে। এজন্য পর্যাপ্ত খাবার খেতে হবে। ৩-৪ ঘণ্টা পরপর অল্প খাবার খেয়ে অল্প ক্যালরি গ্রহণ করুন।


খাবারে প্রোটিন কম থাকা


আমরা ভাবি যে প্রোটিন বা আমিষে হয়তো ওজন বেড়ে যেতে পারে, তাই আমিষ খাওয়া ছেড়ে শাকসবজি খাওয়ার দিকেই যেন মনোযোগ দেই বেশি। কিন্তু খাবারে পর্যাপ্ত আমিষ থাকা উচিৎ। পেশীকে সুস্থ রাখতে আমিষ খুবই প্রযোজনীয়। আর পর্যাপ্ত প্রোটিন আমাদের ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত ক্যালরি ক্ষয় করে।


চা বা কফি এড়িয়ে চলা


ডায়েট করতে গিয়ে আমরা চা কফিকে একদমই এড়িয়ে চলি। এটা একদমই ঠিক নয়। চা কফি আমাদের কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে সতেজ রাখে। ফলে আমাদের মেটাবলিজম ৮ শতাংশ পর্যন্ত বাড়িয়ে দিতে পারে। সবচেয়ে বড় কথা হলো চা কফি ৯৮ থেকে ১৭৪ ক্যালরি ক্ষয় করতে পারে। তাই অবশ্যই চা কফি খাবেন, তবে পরিমিত।


পানি পানে অসতর্কতা


আমরা সবসময় একটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রার পানি পান করি, মানে না ঠাণ্ডা না গরম। কিন্তু গবেষণা বলে যে, দিনে ৬ কাপ ঠাণ্ডা পানি খেলে ৫০ ক্যালরি কমতে পারে। এতে বছরে প্রায় ৫ পাউন্ড ওজন কমতে পারে। তাই ঠাণ্ডা পানি এড়িয়ে চলবেন না।


তাজা খাবার এড়িয়ে চলা


আমরা ভাবি যে তাজা খাবার বোধহয় শরীরের ওজন বেড়ে যাবে। আর ডায়েট চলাকালে আমরা ফ্রিজে রাখা খাবারই বেশি খেয়ে থাকি। কিন্তু টাটকা তাজা ফলমূল আর শাকসবজি আমাদের ক্যালরি ক্ষয় করিয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com