প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর আটক নাটকের অবসান
প্রকাশ : ২০ জুলাই ২০১৯, ১৮:০৮
প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর আটক নাটকের অবসান
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

২৪ ঘণ্টার বেশি সময় পর অবসান হলো কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর আটক নাটকের। ভারতের উত্তর প্রদেশে নিহত ১০ কৃষকের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় পুলিশ তাকে আটকে দেয়।


শুক্রবার (১৯ জুলাই) থেকে গেস্ট হাউজেই নিরাপত্তা হেফাজতে ছিলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। নিহত কৃষকদের পরিবারের সাথে দেখা করার সিদ্ধান্তে অনড় থাকলে শনিবার (২০ জুলাই) আটক অবস্থাতেই কয়েকজনের সাথে দেখা করার অনুমতি পান প্রিয়াঙ্কা। তবে, তাকে আটক বা গ্রেফতার করা হয়নি দাবি করে মির্জাপুরের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ।


বিজেপির অভিযোগ, নির্বাচনে হারের পর সোনভদ্রা ইস্যুকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছে কংগ্রেস।


পুলিশের কাছে প্রায় ২৪ ঘণ্টা ধরে আটক অবস্থার মধ্যেই উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্রে নিহত কৃষকদের পরিবারের কয়েক সদস্যের সঙ্গে দেখা করেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। মির্জাপুর গেস্ট হাউজে নিহত কৃষকদের পরিবারের সদস্যরা তার সঙ্গে দেখা করতে এলে পুলিশ প্রিয়াঙ্কাকে অনুমতি দেয় সাক্ষাতের। তবে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর অভিযোগ তার সঙ্গে যারা দেখা করতে এসেছিলেন সবাইকে অনুমতি দেয়া হয়নি। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রিয়াঙ্কা। পুলিশের পক্ষ থেকে প্রিয়াঙ্কাকে মুক্ত ঘোষণার পর তিনি বলেন, আপাতত নয়াদিল্লিতে ফিরে গেলেও আবারো উত্তর প্রদেশে আসবেন তিনি।


এর আগে, নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে না দেয়া পর্যন্ত উত্তর প্রদেশ ত্যাগ করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। সকালে কয়েক দফা গেস্ট হাউজ থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলেও বাধা দেয় পুলিশ। দেখা করার দাবিতে অনড় থেকে গেস্ট হাউজেই রাত কাটান তিনি। প্রিয়াঙ্কাসহ কংগ্রেস সদস্যদের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রাখা হয় বলে দাবি করেন তারা। পরিস্থিতি শান্ত করার লক্ষ্যে মধ্যরাতে প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে বৈঠক করেন বারানসি পুলিশের এডিজি ব্রজ ভূষণ। তবে সে বৈঠকও ব্যর্থ হয়ে যায়। পুলিশ প্রিয়াঙ্কাকে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানালেও নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন প্রিয়াঙ্কা।


ক্ষমতাসীন বিজেপির অভিযোগ, সোনভদ্রা ইস্যুকে রাজনীতিকরণের চেষ্টা করছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। এক টুইট বার্তায় বিজেপি নেতা শ্রীকান্ত শর্মা বলেন, নির্বাচনে হারের পর হতাশায় ভুগছে কংগ্রেস দল। সোনভদ্রায় যাওয়ার আগে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর সরকারের অনুমতি নেয়া প্রয়োজন ছিল বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


এদিকে, সোনভদ্রায় যাওয়ার পথে তৃণমূল কংগ্রেসের সংসদীয় একটি প্রতিনিধি দলকে লাল বাহাদুর শাস্ত্রী ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে বারানসি পুলিশ আটকে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির শীর্ষ নেতা ডেরেক ও ব্রাইন।


তিনি বলেন, তাদের থামানোর কারণ জানতে চাইলে উপর মহলের নির্দেশের কথা জানায় পুলিশ।


জমি নিয়ে গোলমালের জেরে চলতি সপ্তাহে সোনভদ্রায় বিজেপি নেতার গুলিতে নিহত কৃষকদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে শুক্রবার প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আটক করে নিরাপত্তা হেফাজতে নেয় পুলিশ।


বিবার্তা/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com