ব্রিটিশ ট্যাংকার আটক করল ইরান, উত্তেজনা চরমে
প্রকাশ : ২০ জুলাই ২০১৯, ১০:১১
ব্রিটিশ ট্যাংকার আটক করল ইরান, উত্তেজনা চরমে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক আইন লঙ্ঘন করার দায়ে হরমুজ প্রণালী থেকে একটি ব্রিটিশ তেল ট্যাংকার আটক করেছে ইরান। বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক এই পথে ট্যাংকার আটকের ঘটনায় দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে (১৯ জুলাই) শুক্রবার রাতে জরুরি বৈঠক করেছে ব্রিটিশ মন্ত্রিসভা।খবর পার্সটুডের।


বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে বলা হয়, লন্ডন এ ব্যাপারে আরো বেশি তথ্য সংগ্রহ ও পুরো পরিস্থিতি মূল্যায়নের চেষ্টা করছে।


কোনো কোনো বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট সতর্ক করে বলেছেন, ইরান ব্রিটিশ তেল ট্যাংকার ছেড়ে না দিলে তেহরানকে ‘কঠোর পরিণতি’ ভোগ করতে হবে। একইসঙ্গে তিনি সামরিক পদক্ষেপ নেয়ার সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েবলেন, লন্ডন তেহরানের সঙ্গে কূটনৈতিক যোগাযোগের মাধ্যমে বিষয়টি সুরাহার চেষ্টা করছে।


ব্রিটিশ মন্ত্রিসভার এক মুখপাত্র জানান, ‌সরকার ইরানের এমন অগ্রহণযোগ্য কর্মকাণ্ডে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এর মাধ্যমে ইরান আন্তর্জাতিক সমুদ্রপথে কার্যক্রম চালানোর স্বাধীনতাকে চ্যালেঞ্জ করেছে।


এদিকে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি শুক্রবার রাতে এক বিবৃতিতে জানায়, আন্তর্জাতিক আইন অমান্যের দায়েহরমুজ প্রণালী থেকে ২৩ ক্রুসহ একটি ব্রিটিশ তেল ট্যাংকার আটক করা হয়েছে।


আইআরজিসি জানিয়েছে, তেল ট্যাংকারটি তিনটি আইন লঙ্ঘন করেছে। এটি আন্তর্জাতিক পানিসীমা থেকে ইরানের পানিসীমায় ঢুকে পড়েছিল। নিজেকে শনাক্তকরণ যন্ত্রপাতি বন্ধ করে রেখেছিল এবং আইআরজিসির পক্ষ থেকে বারবার সতর্ক করা হলেও তাতে তারা সাড়া দেয়নি।


বিবৃতিতে আরো বলা হয়, তেল ট্যাংকারটি আটক করে ইরানের উপকূলে নিয়ে আসা হয়েছে এবং আইনগত বিষয়গুলো খতিয়ে দেখার জন্য এটিকে হরমুজগান প্রদেশের বন্দর ও নৌচলাচলবিষয়ক সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


তেল ট্যাংকারটিতে ২৩ জন ক্রু থাকলেও ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী হান্ট দাবি করেছেন, তাদের মধ্যে একজনও ব্রিটিশ নাগরিক নেই।


এর আগে বৃহস্পতিবার আইআরজিসি ইরানের বিচার বিভাগের নির্দেশক্রমে পারস্য উপসাগর থেকে তেল চোরাচালানে জড়িত একটি বিদেশি ট্যাংকার আটক করে। ইরানের জাতীয় স্বার্থ ও পারস্য উপসাগরের নিরাপত্তা রক্ষা এবং চোরাচালান প্রতিহত করার লক্ষ্যে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়।


৪ জুলাই যুক্তরাজ্য নিয়ন্ত্রিত জিব্রাল্টার প্রণালী থেকে ইরানি তেলবাহী সুপার ট্যাংকার গ্রেস-ওয়ান আটক করে যুক্তরাজ্যের রয়্যাল নৌবাহিনী। ইতোমধ্যেই জাহাজের সব ক্রুকে মুক্তি দিলেও জাহাজটির বিষয়ে এখনো তদন্ত চালাচ্ছে জিব্রাল্টার কর্তৃপক্ষ।


গত বৃহস্পতিবার পারস্য উপসাগরে টহলরত মার্কিন রণতরি ইউএসএস-বক্সার ইরানের একটি ড্রোন ভূপাতিত করেছে বলে দাবি করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে ইরান ট্রাম্পের ওই দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে। সূত্র : পার্সটুডে



বিবার্তা/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com