সাংবাদিক খাসোগিকে হত্যার দায় সৌদি আরবের: জাতিসংঘ
প্রকাশ : ২০ জুন ২০১৯, ১১:৪২
সাংবাদিক খাসোগিকে হত্যার দায় সৌদি আরবের: জাতিসংঘ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকাণ্ডের জন্য সৌদি আরব সরকার দায়ী। যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানসহ দেশটির কয়েকজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা দায়ী থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে।


ছয় মাস ধরে তদন্ত করার পর জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ তদন্ত কর্মকর্তা অ্যাগনেস ক্যালামার্ড তার প্রতিবেদনে বুধবার এ তথ্য জানান।


পাশাপাশি খাসোগি হত্যায় সৌদি যুবরাজের প্রত্যক্ষ ভূমিকা নিয়ে আরো তদন্তের জন্য জোর সুপারিশ করেছে জাতিসংঘ।


গত বছরের অক্টোবরে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতর খাসোগিকে হত্যার ঘটনা নিয়ে বিশ্বজুড়ে তুমুল তোলপাড় হয়। খাসোগি সৌদি রাজপরিবারের একজন সমালোচক ছিলেন এবং বেশ কয়েক বছর ধরে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছিলেন।


সৌদি সরকার ও রাজপরিবার সবসময় খাসোগির হত্যাকাণ্ডে তাদের হাত থাকার কথা অস্বীকার করে আসছে। অভিযুক্ত কয়েকজনকে আটক করে তাদের বিচারও শুরু হয়েছে সৌদি আরবে।


কিন্তু জাতিসংঘের তদন্তকারীরা বলছেন, সৌদি বিচার প্রক্রিয়ার মান গ্রহণযোগ্য নয় এবং তা স্থগিত করা উচিত।


জাতিসংঘ তদন্ত কর্মকর্তা ক্যালামার্ড বলেন, খাসোগিকে ইচ্ছাকৃতভাবে ও পূর্বপরিকল্পনা করে হত্যা করা হয়েছে। বিশেষ তদন্ত শেষে এটাই পাওয়া গেছে এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন অনুযায়ী বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের এ দায় সৌদি আরবের।


এ বছরের শুরুর দিকে একদল ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ এবং আইন বিশেষজ্ঞ নিয়ে তুরস্ক যান ক্যালামার্ড। তুরস্ক কর্তৃপক্ষও তাদের কিছুপ্রমাণ সরবরাহ করেছে।


তিনি বলেন, ওই সব প্রমাণ বিশ্বাসযোগ্য। এ নিয়ে নিশ্চিতভাবেই আরো উচ্চপর্যায়ের তদন্ত হবে। আমরা সৌদি আরবের সন্দেহভাজন সিনিয়র কর্মকর্তাদের প্রতেক্যের বিরুদ্ধে আলাদাভাবে তদন্ত করব, যাদের মধ্যে যুবরাজও রয়েছেন।


তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে আমাদের মানবাধিকার তদন্তে এ হত্যাকাণ্ডের জন্য সৌদি যুবরাজ দায়ী থাকার বিষয়ে যথেষ্ট বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ পাওয়া গেছে। যেটা পরবর্তী তদন্তের দাবি রাখে।


জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কে বা কারা এই হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা কার্যকর করেছে, তা খুব একটা প্রাসঙ্গিক নয়, যেটা গুরুত্বপূর্ণ তা হলো রাষ্ট্রের পক্ষে তারা সেই কাজ করেছে।


যেভাবে খাসোগিকে হত্যা করা হয়েছে সেটিকে নির্যাতন বলে অভিহিত করেছে জাতিসংঘ। সংস্থাটি বলেছে, হত্যাকাণ্ডের তদন্তে তুরস্কের প্রয়াসকে সৌদি আরব বাধাগ্রস্ত করেছে।


হত্যাকাণ্ডের বিচার যেভাবে সৌদি আরব করছে তা প্রত্যাখ্যান করে জাতিসংঘ বলেছে, এই হত্যাকাণ্ড একটি আন্তর্জাতিক অপরাধ এবং এর বিচারের অধিকার শুধু সৌদি আরবের নয়। এই হত্যাকাণ্ড যেহেতু তুরস্কে সংঘটিত হয়েছে এবং খাসোগি যেহেতু যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা ছিলেন সেহেতু এই হত্যাকাণ্ডের বিচারের অধিকার তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্রেরও রয়েছে।


ক্যালামার্ড এ খুনের ঘটনার আন্তর্জাতিক তদন্তের জন্য জাতিসংঘ মহাসচিবকে আহবান জানান। সূত্র: বিবিসি ও রয়টার্স


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com