পাকিস্তানে নতুন বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে দেবো না: জারদারি
প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:১৬
পাকিস্তানে নতুন বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে দেবো না: জারদারি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)-র কো-চেয়ারম্যান আসিফ আলি জারদারি বলেছেন, পাকিস্তানে নতুন বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে দেবে না তার দল। শনিবার পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের সাঙ্ঘর জেলার তান্দো আদম শহরে সিনেটর ইমামুদ্দিন সৌকিনের আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন আসিফ আলি জারদারি।


তিনি বলেছেন, স্বাধীনতার পর প্রায় তিন দশক ধরে ভারতের নেতারা পাকিস্তানকে ভেঙে ফেলার ষড়যন্ত্র করেছিল। মুসলিমরা কংগ্রেসের প্রধান মাওলানা আবুল কালাম আজাদকে সম্মান করেন, কিন্তু তিনিও ওই ষড়যন্ত্রকারীদের একজন। তবে এবার আমরা আরেকটি বাংলাদেশ তৈরি হতে দেব না।



দেশটির সাবেক এই প্রেসিডেন্ট বলেন, একটি যুদ্ধে জয়ী হয়ে পাকিস্তানের সৃষ্টি হয়নি। বরং আমাদের পূর্বপুরুষরা পাকিস্তান সৃষ্টি করেছেন। রাজনৈতিক আলোচনার মাধ্যমেই পাকিস্তানকে স্বাধীন করেছেন কায়েদ-ই-আজম।


পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভু্ট্টোর স্বামী জারদারি বলেন, পিপিপির নেতাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা দেয়া হয়েছিল। কারণ শাসকরা প্রাদেশিক স্বায়ত্তশাসন সংক্রান্ত সংবিধানের অনুচ্ছেদে সংশোধনী আনতে চেয়েছিল। তিনি বলেন, আমাদের সঙ্গে তাদের লড়াই, তাদের যুদ্ধ সম্পদের জন্য...পাকিস্তানের সম্পদের জন্য, শুধু সিন্ধু প্রদেশের সম্পদের জন্য নয়।


তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কার্ডিভাস্কুলার ডিজিজ (এনআইসিভিডি), জিন্নাহ পোস্টগ্রাজুয়েট মেডিক্যাল সেন্টার (জেপিএমসি) ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর চাইল্ড হেল্থ (এনআইসিএস) হচ্ছে প্রাদেশিক স্বায়ত্তশাসন বাতিল চেষ্টার একটি আলামত।


ইমরান খানের সরকারের পরিকল্পনার সমালোচনা করে জারিদারি বলেন, এখন তারা করাচি থেকে সিভিল এভিয়েশন অথরিটিকে ইসলামাবাদে সরিয়ে নিচ্ছে। করাচির লোকজন চাকরি এবং নিয়ন্ত্রণ হারাবে। ইসলামাবাদে নতুন অফিস চালু হবে এবং তারা সেখান থেকে কমিশন নেবে। এটাই তাদের পরিকল্পনা।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

বি-৮, ইউরেকা হোমস, ২/এফ/১, 

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com