বিয়ের পর সতীত্বের পরীক্ষা শাস্তিযোগ্য অপরাধ
প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:০৮
বিয়ের পর সতীত্বের পরীক্ষা শাস্তিযোগ্য অপরাধ
ফাইল ছবি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

নিজের জনজাতির বিপক্ষে গিয়েই বিয়েতে বিপ্লব ঘটিয়েছিলেন বিবেক তমাইচিকর। নববধূকে সাদা চাদরে সতীত্বের পরীক্ষা দিতে দেননি তিনি। তবে লড়াইটা বিয়ের দিনই থেমে যায়নি।


বিয়ের পরও ভারতের মহারাষ্ট্রের কঞ্জরভাট জনজাতির সতীত্বের পরীক্ষা প্রথার বিরুদ্ধে অবিরাম লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন মুম্বাইয়ের টাটা ইনস্টিটিউট অব সোশ্যাল সায়েন্সেসের সাবেক বিবেক এবং তার পরিচিত আরো ৭৪ জন। এত দিনে সেই লড়াইয়ের জয় হলো। সতীত্বের এই পরীক্ষা শাস্তিযোগ্য অপরাধ, ঘোষণা করল ভারতের মহারাষ্ট্র সরকার।


বুধবার বিয়ের আগে নারীর কুমারীত্ব পরীক্ষা করা যাবে না। কোনো নারীকে বিয়ের আগে কুমারীত্ব পরীক্ষা করা হলে, তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে গণ্য হবে জানিয়েছে ভারতের মহারাষ্ট্র সরকার।


এদিকে বিষয়টি নিয়ে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রঞ্জিত পাতিল সামাজিক কয়েকটি সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করেছেন। ওই প্রতিনিধিদলে শিবসেনার মুখপাত্র নীলম গোরেও উপস্থিত ছিলেন।


পরে সাংবাদিকদের রঞ্জিত পাতিল বলেন, কুমারীত্ব পরীক্ষাকে যৌন হয়রানির ধরন হিসেবে বিবেচনা করা যেতে পারে। আইন ও বিচার বিভাগের সঙ্গে আলোচনার পর এ নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। এটিকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে ঘোষণা করা হবে।


ভারতের কারজারভাট সম্প্রদায়সহ কয়েকটি সম্প্রদায়ের মধ্যে এ ধরনের প্রথা চালু আছে। এসব সম্প্রদায়ের মানুষের একটি অংশ এই প্রথার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। তারা অনলাইনে এই প্রথার বিরুদ্ধে প্রচার চালাচ্ছেন।


কী এই ভার্জিনিটি টেস্ট বা সতীত্বের পরীক্ষা?


মহারাষ্ট্রের কঞ্জরভাট জনজাতির মধ্যে গত ৪০০ বছর ধরে এটা প্রচলিত প্রথা। বিয়ের রাতে বধূকে প্রমাণ দিতে হবে যে তিনি সতী । তার পরই সেই বিয়ে বৈধ হিসেবে গণ্য করা হবে। আর পরীক্ষায় পাশ না করলেই বিয়ে অবৈধ। সর্বসমক্ষে নববধূকে চরম লাঞ্ছনার মুখোমুখিও হতে হবে সে ক্ষেত্রে।


গত বছর মে মাসে কঞ্জরভাট জনজাতির এই প্রাচীন প্রথার বিরুদ্ধেই রুখে দাঁড়িয়েছিলেন বিবেক। সকলের বিরুদ্ধে গিয়ে পুনের মহিলা কমিশন এবং পুলিশের সাহায্য নিয়ে স্ত্রী ঐশ্বর্যকে বিয়ে করেন তিনি। সতীত্বের পরীক্ষা ছাড়াই। তার পর আরো অনেক প্রতিবাদীকে নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ খুলে ফেলেন। তার মাধ্যমেই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন এতদিন। সূত্র : আনন্দবাজার


বিবার্তা/মাইকেল/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com