'তাইওয়ান স্বাধীন হতে চাইলে দুঃখ-দুর্দশাই বাড়াবে'
প্রকাশ : ০২ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:২৬
'তাইওয়ান স্বাধীন হতে চাইলে দুঃখ-দুর্দশাই বাড়াবে'
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

চীনা প্রধানমন্ত্রী শি জিনপিং তাইওয়ানের নাগরিকদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, স্বাধীনতা তাদের জন্য শুধু মাত্র দুঃখ দুর্দশাই বাড়াবে। স্বাধীনতা উসকে দেওয়া কোনো কর্মকাণ্ড মেনে নেওয়া হবে না। শান্তিপূর্ণ একত্রীকরণের ক্ষেত্রে ‘এক দেশ, দুই পদ্ধতি’ নীতির প্রতি আবারও আহ্বান জানান চীনের প্রেসিডেন্ট।


বুধবার তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে নীতিমালা সংক্রান্ত বিবৃতির ৪০ বছর পূর্তি উপলক্ষে দেওয়া এক ভাষণে শি জিনপিং এসব কথা বলেন।


চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং জোর দিয়ে বলেন, তাইওয়ান অবশ্যই চীনের অংশ হিসেবে থাকবে এবং দেশটিকে তা মেনে নেওয়া প্রয়োজন। এক্ষেত্রে সব ধরনের বলপ্রয়োগ করার অধিকারও রাখে চীন।


শি জিনপিং আরও বলেন, চীন-তাইওয়ান একত্রীকরণ চীনের নব-জীবনের জন্য অপরিহার্য। তাইওয়ান চীনের অভ্যন্তরীণ রাজনীতির বিষয়। এক্ষেত্রে বাইরের কোনো দেশের হস্তক্ষেপ অবাঞ্ছিত।


এমন ঘোষণার একদিন আগে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন বলেছিলেন, তাইওয়ানের অস্তিত্ব চীনের মেনে নেওয়া উচিত এবং ভিন্নতার মীমাংসা শান্তিপূর্ণভাবে করতে হবে।


প্রসঙ্গত, চীন-তাইওয়ান সম্পর্কের বিতর্ক বেশ পুরনো। ২০০৪ সালে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট চেন শুই বিয়ান ঘোষণা করেন, তাইওয়ান চীন থেকে আলাদা হয়ে সম্পূর্ণ স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চায়। এই ঘোষণা চীনকে ক্ষুব্ধ করে।


পরে ২০০৫ সালে চীন তড়িঘড়ি করে এক আইন পাশ করে। যাতে বলা হয়, তাইওয়ান যদি চীন থেকে আলাদা হওয়ার চেষ্টা করে, সেটা ঠেকাতে প্রয়োজনে শক্তি প্রয়োগ করবে চীন।


বিবার্তা/কাফী

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com