ব্রিটিশ রানী এলিজাবেথের সঙ্গে ট্রাম্পের সাক্ষাৎ
প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০১৮, ০১:৫৯
ব্রিটিশ রানী এলিজাবেথের সঙ্গে ট্রাম্পের সাক্ষাৎ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের উইন্ডসর ক্যাসেলে আয়োজিত হয় এই সাক্ষাতপর্ব। এসময় মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ছিলেন মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প।


নির্ধারিত সময়সূচি অনুয়ায়ী, ঠিক বিকেল ৫টায় রানীর বাসভবনে পৌঁছান ডোনাল্ড ও মেলানিয়া ট্রাম্প। উইন্ডসর ক্যাসেলে এই দম্পতিকে হাসিমুখে স্বাগত জানান ইংল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড তথা গ্রেট ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। তবে এসময় তার স্বামী প্রিন্স চার্লস উপস্থিত ছিলেন না।


উইন্ডসর ক্যাসেলে পৌঁছালে ট্রাম্প দম্পতিকে গার্ড অব অনার জানায় ব্রিটিশ রয়্যাল আর্মির ‘কোল্ডস্ট্রিম গার্ড’। কোল্ডস্ট্রিম গার্ডের নেতৃত্ব দেন মেজর অলিভার বিগস। এসময় কোল্ডস্ট্রিম গার্ডের উদ্দেশ্যে দুইবার ‘ধন্যবাদ’ জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট।


গার্ড অব অনারের সাথে ক্যাসেলের ভেতরে প্রবেশ করেন রানী, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি। সেখানে ক্যাসেলের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং ব্রিটিশ রাজ পরিবারের কয়েকজন পরিবারের সাথে অতিথিদের পরিচয় করিয়ে দেন রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ।
এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, ব্রিটিশ রানীর সাথে চা চক্রে আছেন ডোনাল্ড ও মেলানিয়া ট্রাম্প। উইন্ডসর ক্যাসলের রয়্যাল গার্ডেনে চা পানের ব্যবস্থা করা হয় অতিথিদের।


এর আগে লন্ডন পৌঁছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এর সাথে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। বৈঠক শেষে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর আঞ্চলিক বাসভবন চেকারস-এ সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন এই দুই নেতা। সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য সম্পর্ককে ‘বিশেষের সর্বোচ্চ পর্যায়’ বলে মন্তব্য করেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’কে ‘অসাধারণ নারী’ হিসেবে প্রশংসা করে তিনি বলেন, “তিনি খুব ভালো কাজ করছেন”।


আর থেরেসা মে সাংবাদিকদের বলেন, “যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের সাথে একটি বাণিজ্য চুক্তি সম্পাদন করতে আগ্রহী”। অবশ্য এর আগে ইংল্যান্ডের দৈনিক দ্য সান’কে এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেছিলেন যে, “ইংল্যান্ড যদি ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে আসে তাহলে যুক্তরাজ্যের সাথে কোনরকম বাণিজ্য চুক্তি করবে না ওয়াশিংটন”।


ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী আর রানীর সাথে যতোই সৌহার্দ্যপূর্ণ আলাপচারিতা হোক না কেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পের ইংল্যান্ড আগমনে বেজায় চটেছেন লন্ডনবাসী। অন্তত ১০ হাজার বিক্ষোভকারী লন্ডনের ট্রাফালগার স্কয়ারে সমবেত হয়ে ট্রাম্পের আগমনে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। ইংল্যান্ডে এসে লাল গালিচার বদলে জনরোষের জনসমুদ্রে পরতে হয় মার্কিন প্রেসিডেন্টকে।


প্রতিবাদের অংশ হিসেবে ট্রাম্পের একটি ২০ ফুট লম্বা কার্টুন নিয়ে আসেন বিক্ষোভকারীরা। কার্টুনকে ট্রাম্পকে মোবাইল ফোন হাতে একটি জেদি শিশু হিসেবে দেখানো হয়। বেলুনটিকে স্কটল্যান্ডে নেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বিক্ষোভকারীরা। কারণ শনিবার স্ত্রী সমেত স্কটল্যান্ডে নিজের ব্যক্তিগত গলফ রিসোর্টে পৌছাবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।


এছাড়াও ট্রাম্প বিরোধী স্লোগান সমৃদ্ধ প্ল্যাকার্ড ও ব্যানার হাতে বিক্ষোভকারীদের বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে দেখা যায়। সূত্রঃ বিবিসি


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com