কানাডার প্রধানমন্ত্রী ভারতে উপেক্ষিত!
প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:১৯
কানাডার প্রধানমন্ত্রী ভারতে উপেক্ষিত!
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো সারা বিশ্বে নন্দিত একজন মানুষ। এখন তিনি ভারত সফরে রয়েছেন। প্রশ্ন উঠছে, এ সম্মানিত অতিথিকে কি ভারত অবজ্ঞা করছে?


এই প্রশ্নটা মূলত উঠছে এই কারণেই যে, জাস্টিন ট্রুডো যখন স্ত্রী সোফি ও তিন সন্তানকে নিয়ে ভারতে এসে নামেন, তখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানাতে যাননি। অথচ বিশ্বের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরকারপ্রধান বা রাষ্ট্রপ্রধানরা যখন ভারতে আসেন, তখন প্রটোকল ভেঙে তাদের স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে যাওয়াটাকে প্রধানমন্ত্রী মোদী প্রায় রুটিনে পরিণত করে ফেলেছেন। যেমন, গত মাসেই তিনি তাঁর 'ঘনিষ্ঠ বন্ধু' ও ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন 'বিবি' নেতানিয়াহুকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন। ২০১৫ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে স্বাগত জানানোর ক্ষেত্রেও তিনি একই কাজ করেছিলেন।


আরও আশ্চর্যের ব্যাপার হলো, কানাডার প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে শুধু যে মোদী যাননি, তা-ই নয়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ কিংবা তার দুই প্রতিমন্ত্রী - ভি. কে. সিং বা এম. জে. আকবরকে পর্যন্ত পাঠাননি। কানাডার প্রধানমন্ত্রীর জন্য এই উপেক্ষা ছিল একেবারেই বেমানান!


মি. ট্রুডোকে ভারতে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের একজন জুনিয়র মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং, যিনি মাত্র মাসচারেক আগে প্রথমবারের মতো মন্ত্রীসভার সদস্য হয়েছেন।


কেন এ উপেক্ষা


মি. ট্রুডোকে ভারত যে এভাবে শীতল অভ্যর্থনা জানাচ্ছে তার একটা কারণ হতে পারে যে, ভারতের স্বাধীন 'খালিস্তান' আন্দোলনের সমর্থকদের প্রতি কানাডা সরকারের মনোভাব।


বলে রাখা ভালো যে, জাস্টিন ট্রুডোর ক্যাবিনেটে যে চারজন শিখ মন্ত্রী আছেন, তার মধ্যে অন্তত দুজন - হরজিৎ সজ্জন ও অমরজিৎ সোধি - প্রকাশ্যেই খালিস্তান আন্দোলনকে সমর্থন করে নানা বিবৃতি দিয়েছেন।


ভারতে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং গত বছর জাস্টিন ট্রুডো ক্ষমতায় আসার পরই এ ব্যাপারে তীব্র ক্ষোভ জানিয়ে তাকে একটি চিঠিও লিখেছিলেন। সেই ক্ষোভ এখনো ভুলতে পারেননি পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। তাই মি. ট্রুডো বুধবার অমৃতসরে শিখদের পবিত্র তীর্থস্থান অমৃতসর সফরে গেলে অমরিন্দর সিং তার সঙ্গে দেখা করতে রাজি নন বলেই জানা যাচ্ছে।


একইভাবে গত রবিবার মি. ট্রুডো যখন সপরিবারে তাজমহল সফর করেন, তখন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের অনুপস্থিতিও নজর এড়ায়নি। অথচ এই আদিত্যনাথই গত মাসে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুকে রীতিমতো লাল কার্পেট বিছিয়ে তাজমহলে অভ্যর্থনা জানিয়েছিলেন। সূত্র : বিবিসি


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com