যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকোতে মুসলিমদের বেছে বেছে হত্যা
প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০২২, ১৮:০২
যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকোতে মুসলিমদের বেছে বেছে হত্যা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো শহরের পুলিশ এবং দেশটির একাধিক কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সেখানে গত ৯ মাসে পরপর চার মুসলিমের খুনের ঘটনায় তদন্ত শুরু করছে। সর্বশেষ গত শুক্রবার সন্ধ্যায়ও একজন মুসলিম খুন হয়েছেন। রাজ্যের গভর্নর এসব খুনের ঘটনাকে ‌‘টার্গেট কিলিং’ বলে বর্ণনা করেছেন। রয়টার্স।


নিউ মেক্সিকোর আলবুকার্কের পুলিশ প্রধান হ্যারল্ড মেডিনা শনিবার সাংবাদিকদের বলেছেন, শুক্রবার মুসলিম সম্প্রদায়ের এক যুবক খুন হয়েছেন। ভুক্তভোগীর নাম এবং কী ধরনের পরিস্থিতিতে তিনি খুন হয়েছেন সেবিষয়ে বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়নি। তবে এর আগে যে তিনজন মুসলিম খুন হয়েছেন, সেসব ঘটনায় দেখা গেছে, অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাদের ওপর গুলি ছোড়া হয়েছে।


মেডিনা বলেছেন, সর্বশেষ খুনের সঙ্গে সম্ভবত আগের তিনটি ঘটনার সম্পর্ক আছে। এর আগে, নিউ মেক্সিকোর পুলিশ বলেছিল, গত ৯ মাসে রাজ্যের বৃহত্তম শহরে খুন হওয়া অন্য তিনজন মুসলিম পুরুষকে তাদের ধর্ম ও বর্ণের জন্য টার্গেট করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।


নিউ মেক্সিকোর গভর্নর মিশেল লুজান গ্রিশাম শনিবার গভীর রাতে এক টুইটে বলেছেন, আলবুকার্কের মুসলিম বাসিন্দাদের টার্গেট কিলিংয়ের ঘটনা অত্যন্ত হতাশাজনক এবং একেবারে অসহনীয়। তিনি বলেছেন, এসব ঘটনা তদন্তের জন্য তিনি আলবুকার্কে রাজ্যের অতিরিক্ত পুলিশ কর্মকর্তা মোতায়েন করেছেন।


নিহতদের মধ্যে দুজন একই মসজিদের সদস্য, যারা জুলাইয়ের শেষের দিকে এবং আগস্টের শুরুতে আলবুকার্কে গুলিতে নিহত হন। পুলিশ বলেছে, গত বছরের নভেম্বরে একজন আফগান অভিবাসীর খুনের সাথে অন্যান্যদের খুনের ঘটনার সম্পর্ক থাকার ‌‌‘প্রবল সম্ভাবনা’ রয়েছে।


গত সোমবার আলবুকার্কে নিজের অ্যাপার্টমেন্ট ভবনের বাইরে গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন মুহাম্মদ আফজাল হুসেন (২৭)। এসপানোলা শহরের পরিকল্পনা পরিচালক ছিলেন। কয়েক বছর আগে পাকিস্তান থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমিয়েছিলেন তিনি। এছাড়া গত ২৬ জুলাই আলবুকার্কের আন্তর্জাতিক জেলায় আফতাব হোসেন (৪১) নামের এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।


নিউ মেক্সিকো পুলিশ বলেছে, গত বছরের ৭ নভেম্বর একটি হালাল সুপারমার্কেট ও ক্যাফের পাশের পার্কিং লটে ৬২ বছর বয়সী মোহাম্মদ আহমাদি নামের এক বৃদ্ধ গুলিতে মারা যান। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আগের ঘটনাগুলোর সম্পর্ক আছে।


নিউ মেক্সিকো রাজ্য পুলিশ, ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই) এবং ইউএস মার্শাল সার্ভিস এসব হত্যা ঘটনা তদন্ত করছে।


বিবার্তা/জেএইচ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com